ক্লাসরুমেই ষষ্ঠ শ্রেণির ছাত্রীকে গণধর্ষণের অভিযোগ, স্কুলের ভূমিকা নিয়ে উঠছে প্রশ্ন

0
90
Gang Rape

নিজস্ব সংবাদদাতা, মালদহ: ক্লাসরুমেই ষষ্ঠ শ্রেণির এক ছাত্রীকে গণধর্ষণের ( gang rape) অভিযোগ উঠেছে গাজোলের একটি জুনিয়র হাইস্কুলের বিরুদ্ধে৷ এই ঘটনায় নির্যাতিতার মায়ের অভিযোগের ভিত্তিতে তিনজনকে গ্রেফতার করেছে গাজোল থানার পুলিশ৷ ধৃতদের একজন আবার নির্যাতিতার বান্ধবীর দাদা৷ গোটা ঘটনায় স্কুলের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন নির্যাতিতার মা৷ ঘটনায় তীব্র চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে মালদহের গাঁজোল জুড়ে৷

বিস্তারিত খবর, লাইভ ভিডিও সহ সমস্ত রকম আপডেট পেতে লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ: https://www.facebook.com/khaskhobor2020/

- Advertisement -

জানা গিয়েছে, ওই জুনিয়র স্কুলে ছাত্রী সংখ্যা ৩৭৷ শিক্ষক রয়েছেন মাত্র একজন৷ সেদিন অসুস্থতার জন্য তিনি স্কুল যাননি৷ একই কারণে স্কুলে অনুপস্থিত ছিলেন তিনি৷ হাতে গোনা কয়েকজন ছাত্রী স্কুলে গিয়েছিল৷ তবে শিক্ষক না থাকায় পঠনপাঠন হয়নি৷ তারা মিড ডে মিল খেয়ে বাড়ি চলে যায়৷ তবে খাবার খাওয়ার পরেও নির্যাতিতা ও তার এক বান্ধবী স্কুলে ছিল৷

আরও পড়ুন: রাধিকা আপ্তের সঙ্গে স্ক্রিন শেয়ার, বলিউডে হাতেখড়ি ‘গোধুলি আলাপ’ খ্যাত এই টেলি অভিনেত্রীর

সেই সময় বহিরাগত তিন যুবক স্কুলে ঢোকে৷ তাদের মধ্যে একজন ছাত্রীদেরই এক বান্ধবীর দাদা৷ তারা দু’জনকেই দোতলায় টেনে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে৷ কিন্তু এক ছাত্রী কোনওমতে তাদের হাত ছাড়িয়ে পালিয়ে যায়৷ এরপরেই ওই তিন যুবক এক ছাত্রীকে দোতলার একটি ঘরে নিয়ে গিয়ে গণধর্ষণ করে বলে অভিযোগ৷

এদিকে পালিয়ে যাওয়া ছাত্রীটি নির্যাতিতার বাড়িতে গিয়ে সব কথা খুলে বললে স্কুলে ছুটে যান মা৷
নির্যাতিতার মা বলছেন, “এই ঘটনার জন্য দায়ী স্কুল কর্তৃপক্ষ৷ সেদিন খবর পাওয়ার পর সঙ্গে সঙ্গে স্কুলে গিয়ে দেখি, দোতলার ঘরে বসে মেয়ে কাঁদছে৷ অনেক জিজ্ঞাসা করলেও সে কিছু বলেনি৷ বাড়ি ফেরার পর মেয়ে সব ঘটনা খুলে বলে৷ এরপরেই আমি গাজোল থানায় তিন যুবকের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেছি৷ পুলিশ তিনজনকেই গ্রেফতার করেছে৷”

আরও পড়ুন: “দেশে সন্ত্রাসবাদী হামলার সম্ভাবনাকে উপেক্ষা করা যাবে না,” কিসের ইঙ্গিত দিলেন সেনাপ্রধান

এই ঘটনায় অভিযোগ দায়ের হতেই তিন অভিযুক্তকে গ্রেফতার করেছে গাজোল থানার পুলিশ৷ ১৪ দিনের পুলিশি হেফাজতের আবেদন জানিয়ে মঙ্গলবার ধৃতদের মালদহ জেলা আদালতে পেশ করে৷ বিচারক তিনজনেরই পুলিশি হেফাজতের নির্দেশ দিয়েছেন৷ ঘটনার তদন্তে নেমেছে পুলিশ৷ সেই সঙ্গে ধৃতদের জিজ্ঞাসাবাদ শুরু করেছে৷

সারাদিনের সমস্ত খবরের আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন খাস খবর অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ: https://play.google.com/store/apps/details?id=app.aartsspl.khaskhobor