তৃণমূল নেতার ওপর হামলা-বোমাবাজির অভিযোগ, গ্রেফতার বিজেপির কার্যকর্তা সহ ৫

0
189

কাঁথি: তৃণমূল অঞ্চল সভাপতিকে বন্দুকের বাঁট দিয়ে খুনের চেষ্টার পাশাপাশি পুলিশকে লক্ষ্য করে বোমাবাজি ও এলাকার সন্ত্রাস চালানোর অভিযোগে বিজেপির কার্যকর্তা সহ ৫ জন বিজেপি কর্মী সমর্থক গ্রেফতার করল পুলিশ। বাকি অভিযুক্তদের খোঁজে তল্লাশি শুরু করেছে পুলিশ। ভূপতিনগর থানার পুলিশ জানিয়েছে, অভিযুক্তরা হল বিজেপির বুথ সভাপতি দক্ষিণ বরোজ এলাকায় বিমল দোলাই, মনোরঞ্জন দোলাই, কায়েমগেড়িয়া গ্রামের খগেন আড়ি, মহিতোষ আড়ি এবং পাঁউসি গ্রামের কালীপদ দাস। বুধবার অভিযুক্তদের কাঁথি মহকুমা আদালতে তোলা হয়। বিচারক তাদের জামিন নাকচ করে ১৪ দিনের জেল হেফাজতের নির্দেশ দেন। এই ঘটনার জেরে এলাকায় রাজনৈতিক চাপানউতোর শুরু হয়েছে।

সূত্রের খবর, ভূপতিনগরের স্থানীয় গ্রাম পঞ্চায়েতের উপপ্রধান তথা তৃণমূল কংগ্রেসের অঞ্চল সভাপতি মিহির ভৌমিকের অতর্কিতে হামলা চালানোর অভিযোগ উঠে বিজেপি আশ্রিত দুষ্কৃতীদের বিরুদ্ধে। বন্দুকের বাঁট দিয়ে খুনের চেষ্টা করা হয় তৃণমূল নেতাকে। জখম অবস্থায় ওই তৃণমূল নেতাকে উদ্ধার করে স্থানীয় হাসপাতাল নিয়ে গেলে, পরে সেখান থেকে তমলুক জেলা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এরপর আক্রান্ত তৃণমূলের অঞ্চল সভাপতি মিহির ভৌমিককে নিয়ে বিক্ষোভ দেখায় তৃণমূল কর্মী সমর্থকরা। ঘটনাস্থলে পৌঁছায় তৃণমূলের জেলা নেতৃত্ব থেকে উচ্চত্বর নেতৃত্বরা। পরে অঞ্চল সভাপতি তথা উপপ্রধান মিহির ভৌমিক থানায় ৩০ জনের নামে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

- Advertisement -

আরও পড়ুন –NOCর নামে কলেজগুলি থেকে টাকা আত্মসাৎ করতেন পার্থ চট্টোপাধ্যায়, দাবি ইডির

মঙ্গলবার বিকাল এলাকার অগ্নিগর্ভ হতে থাকে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে চেষ্টা চালায় ভূপতিনগর থানার বিশাল পুলিশ বাহিনী। এরপরেই পুলিশের সামনেই কিছু দুষ্কৃতী বোমাবাজী করে। ব্যাপক উত্তেজনা ছড়ার গোটা এলাকার। এমনকি কিছু বাসিন্দারা আতঙ্কে বাড়ি ছেড়ে অন্যত্র আত্মীয়র বাড়িতে রওনা দেয় বলেই সূত্রে জানা গিয়েছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে রাতভর অভিযান চালিয়ে ঘটনায় অভিযুক্ত ৫ জনকে গ্রেফতার করে। গ্রেফতার সকলেই এলাকার বিজেপির সভাপতি থেকে বিজেপি কর্মী সমর্থক হিসেবে পরিচিত।

এপ্রসঙ্গে কাঁথি মহকুমা পুলিশ আধিকারিক সোমনাথ সাহা বলেন, “মঙ্গলবার দুপুর থেকে ঘটনাস্থলে রয়েছি। পরিস্থিতি এখন নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। দুটো মামলা রুজু হয়েছে। আগ্নেয়াস্ত্র নিয়ে মারধর ও খুনের চেষ্টা একটি মামলা রুজু হয়েছে। পুলিশের সামনে বোমাবাজি আরেকটি মামলা রুজু করা হয়েছে। এখনও পর্যন্ত পাঁচজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বাকিদের খোঁজে তল্লাশি শুরু করা হয়েছে।”

আরও পড়ুন-Bilkis Bano Case: ১১ জন ধর্ষকের মুক্তিকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে শীর্ষ আদালতের দারস্থ বিলকিস বানো

ভগবানপুরে তৃণমূল নেতা তথা জেলা পরিষদের সদস্য মানব পড়ুয়া বলেন, “এলাকার বিধায়কে নেতৃত্বে বিজেপি কর্মীরা এলাকায় নতুন করে অশান্তি সৃষ্টি করছে। তার প্রতিফলন প্রকাশ্য দিবালোকে তৃণমূলের নেতার উপর হামলা চালাচ্ছে। পুলিশের সামনে বোমাবাজি করছে। আইন আইনের পথে চলবে। আমরা রাজনৈতিকভাবে মোকাবেলা করবো।”

এনিয়ে তীব্র কটাক্ষ করেছেন বিজেপি নেতৃত্ব। কাঁথি সাংগঠনীক জেলার বিজেপি নেতা তাপস দোলাই বলেন, “তৃণমূলের গোষ্ঠী কোন্দল বিজেপি নেতা ও কর্মীদের ওপর চাপাচ্ছে। আগামী পঞ্চায়েত নির্বাচনে মানুষ যোগ্য জবাব দেবো।”