ঋদ্ধিই কি আটকে দিলেন ভারতের জয়, স্লো ইনিংস নিয়ে চর্চা ক্রিকেটমহলে

0
456

খাস খবর ডেস্ক: ক্রিকেট জগতে বাঙালিরা নাকি বেশ বঞ্চিত। ভারতীয় দলেও নাকি পক্ষপাতিত্বের কারণে বঙ্গ সন্তানেরা তেমন সুযোগ পান না। আবেগী বাঙালি ক্রিকেটপ্রেমীদের মুখে এই কথা প্রায়শই শোনা যায়। কিন্তু সত্যি কি যোগ্যতা থাকা সত্ত্বেও সুযোগ পান না? এই প্রশ্ন উঠলে ক্রিকেটীয় যুক্তির কাছে হার মানতে বাধ্য বঙ্গ ক্রিকেটপ্রেমীদের আবেগ। ভারতীয় দলের টেস্ট ফর্ম্যাটে উইকেটকিপার ব্যাটসম্যান বলতে প্রথম নাম অবশ্যই ঋষভ পন্থ। আক্রমণাত্মক পন্থের দুর্দান্ত ব্যাটিং প্রদর্শনে ব্রাত্য বঙ্গ সন্তান ঋদ্ধিমান সাহা।

চলতি নিউজিল্যান্ড সিরিজ থেকে বিশ্রাম দেওয়া হয়েছে পন্থকে। কানপুর টেস্টের চতুর্থ দিনে শ্রেয়াস আইয়ার এবং ঋদ্ধিমান সাহার অর্ধশতক করেন। ভারত প্রথম টেস্টের চতুর্থ দিনে সাত উইকেটে ২৩৪ রান করে ইনিংস ডিক্লেয়ার করে দেয়। নিউজিল্যান্ডকে ২৮৪ রানের লক্ষ্য দেয় ভারত। ঋদ্ধিমান সাহা ১২৬ বলে ৬১ রানে নটআউট থাকেন। সময় কম, তাও ধীরে চলল ঋদ্ধির ব্যাট। দীর্ঘ দিন পর রান পেলেন তিনি, কিন্তু দলের কাজে আসল না। সেই সময় একটু আক্রমণাত্মক ব্যাট চালালে ভারতের কাজেই আসত।

- Advertisement -

আরও পড়ুন: বান্ধবীর সঙ্গে বাগদান সেরে ফেললেন শার্দুল, চিনে নিন পাত্রীকে

আরও একটু বেশি রান ভারতীয় বোলারদের হাতে থাকলে হয়তো ম্যাচের ফল বদলে যেতে পারত। আক্রমণাত্মক মেজাজে ব্যাট করলে রান আসত তাড়াতাড়ি। ফলে ডিক্লেয়ার করে দেওয়া যেত আরও আগে। কিন্তু কোথায় কি? ঋদ্ধি তো খেললেন স্ব-মেজাজে, ধীর গতিতে। স্লো ইনিংসে নিজেই করলেন রান। ঋদ্ধির এ হেন ইনিংসই হয়তো পরোক্ষ ভাবে দায়ী থাকবে এই টেস্ট ম্যাচ ড্রয়ের জন্য। স্কোরবোর্ডে ড্র লেখা থাকলেও এটি আসলে কিউইদের নৈতিক জয়। ভারতের হারও বলা যায়।

আরও পড়ুন: হরভজনকে টপকে কপিলের দিকে ছুটছেন অশ্বিন

শেষ দিন ৮৯.২ তম ওভারে ১৫৫ রানের মধ্যে নয় উইকেট হারিয়ে ফেলে নিউজিল্যান্ড। এরপর আর উইকেট ফেলতে ব্যর্থ ভারতীয় বোলাররা। রচিন রবীন্দ্র ও আজাজ প্যাটেল মিলে টিকে থাকেন ক্রিজে। শেষমেশ ড্রতে শেষ হয় কানপুর টেস্ট। এখন সকলের নজর থাকবে ওয়াংখেড়েতে দ্বিতীয় টেস্টের দিকে। যেই ম্যাচের আগে ফিরছেন ভারতের নিয়মিত অধিনায়ক বিরাট কোহলি।