Virat vs BCCI: “দুই তারকার লড়াই”, ওয়াঘার ওপার থেকে এল প্রতিক্রিয়া

0
208

খাস খবর ডেস্ক: ভারতের টেস্ট দলের অধিনায়কের পদ থেকে বিরাট কোহলির সরে দাঁড়ানোর সিদ্ধান্ত অনেকের কাছেই বিস্ময়কর। শনিবার হঠাৎ করেই নিজের সিদ্ধান্তের কথা টুইট করে জানিয়ে দেন তিনি। বেশ কিছুদিন ধরেই অবশ্য বোর্ড বনাম বিরাট ঠান্ডা লড়াই চলছে। শনিবার বিরাটের ঘোষণার পর থেকেই বিসিসিআই এবং সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় সোশ্যাল মিডিয়ায় তীব্র সমালোচনার মুখে পড়েছে। সৌরভ অবশ্য জানিয়েছেন, এটি বিরাটের একান্ত ব্যক্তিগত সিদ্ধান্ত।

এই বিষয়ে ভিন্ন মত পোষণ করছেন বিভিন্ন প্রাক্তনী ও ক্রিকেট বিশেষজ্ঞরা। ওয়াঘার ওপার থেকেও প্রতিক্রিয়া এসেছে। পাকিস্তানের প্রাক্তন অধিনায়ক রশিদ লতিফ বিশ্বাস করেন যে, সৌরভ টুইটে যা কিছু বলুক না কেন, টেস্ট অধিনায়ক হিসেবে বিরাটের পদত্যাগের “কারণ” বিসিসিআই প্রধানের সঙ্গে তার বিরোধ। একটি ভিডিওতে রশিদ লতিফ বলেছেন, “এটা হওয়ার আসল কারণ হল বোর্ডের সঙ্গে বিরাটের দ্বন্দ্ব। বিরাট যাই বলুক না কেন, এটা তার সিদ্ধান্ত বা সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় যা টুইট করেন, এটা দুই কিংবদন্তির মধ্যে একটা লড়াই।”

- Advertisement -

আরও পড়ুন: উত্তরসূরী কে, পন্থেই ভরসা রাখছেন গাভাস্কার

তিনি আরও বলেন, “কিছু মানুষ আবেগপ্রবণ। তিনি জানেন কখন এবং কীভাবে কোহলিকে উত্তেজিত করতে হয়। ওয়ানডে অধিনায়ক হিসেবেও তাকে বাদ দেওয়া হয়েছিল যখন তিনি ঘোষণা করেছিলেন যে তিনি বিশ্বকাপের পরে টি -২০ তে ভারতের অধিনায়কত্ব করবেন না। আপনি শুধু কোহলিকে কষ্ট দেননি, আপনি ভারতীয় ক্রিকেটকে অশান্ত করেছেন।”

আরও পড়ুন: IND vs SA: সিরিজের আগে প্রাক্তনের মুখে নয়া কোচের প্রশংসা

ওয়ানডে অধিনায়কত্ব ছাড়ার পর বিরাট কোহলির সাংবাদিক সম্মেলনের পরেই উত্তপ্ত ভারতীয় ক্রিকেট মহল। বিসিসিআই প্রেসিডেন্ট সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় ও বিরাট কোহলির দুই রকম বয়ানকে ঘিরে যত বিতর্ক। বিসিসিআই প্রেসিডেন্ট সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় বলেছিলেন যে, তিনি বিরাটকে টি -২০ অধিনায়কত্ব ছেড়ে না দেওয়ার জন্য অনুরোধ করেছিলেন। বিরাটের সাংবাদিক সম্মেলনের পর স্পষ্ট হয় সৌরভ নাকি কিছুই বলেননি। এমনকি তিনি জানতেনও না যে ওয়ানোডে অধিনায়কত্বের পদ থেকে তাঁকে সরানো হতে পারে।