ভোর পাঁচটায় ট্রেনিং, কঠোর পরিশ্রম করেই প্রত্যাবর্তন হার্দিকের

0
79
Desperate to play in blue jersey, Indian all-rounder says old Hardik Pandya will be back, says thank you to BCCI

স্পোর্টস ডেস্ক: ২০২১ সালের টি ২০ বিশ্বকাপে ভারতের খারাপ পারফরম্যান্সের জন্য অলরাউন্ডার হার্দিক পাণ্ডিয়াকে দায়ী করা হয়েছিল। হার্দিক পাকিস্তানের বিপক্ষে গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে বল করেননি। সেই ম্যাচে ভারত হেরে যায়। পরের ম্যাচগুলিতেও হার্দিক বল হাতে কোনও অবদান রাখতে পারছিলেন না। পরপর দুটি হারের পর ভারত সেমিফাইনালে পারেনি। লিগ পর্ব থেকে ভারতীয় দল ছিটকে যাওয়ায় অনেক সমালোচনা হয়। হার্দিক ভারতীয় দল থেকে বাদ পড়েন। নির্বাচকরা বলেছিলেন যে হার্দিক তার বোলিং এবং ব্যাটিং দিয়ে ফিটনেস প্রমাণ না করলে তাকে জাতীয় দলে সুযোগ দেওয়া হবে না।

এরপর ভেঙ্কটেশ আইয়ারকে বারবার ভারতীয় দলে সুযোগ দেওয়া হয়েছিল। কিছু ম্যাচে আইয়ারও ভালো ব্যাটিং করেছিল। এরপরে মুম্বই ইন্ডিয়ান্সও ২০২২ সালে আইপিএলের মেগা নিলামের আগে হার্দিক পাণ্ডিয়াকে রিটেন করেনি। গুজরাট দল হার্দিকের উপর ভরসা করে তাকে অধিনায়কত্বের দায়িত্ব দেয়। হার্দিক এই টুর্নামেন্টে বল ও ব্যাট হাতে দুর্দান্ত পারফর্ম করেন এবং তার দলকে চ্যাম্পিয়ন করেন। তিনি ৪৮৭ রান করেন ও আট উইকেট নেন। আইপিএল ২০২২ শেষ হওয়ার আগেই তিনি টিম ইন্ডিয়ায় ফিরে এসেছেন। এখন হার্দিক জানিয়েছেন ভারতীয় দলে প্রত্যাবর্তনের জন্য তাকে কত ত্যাগ ও কঠোর পরিশ্রম করতে হয়েছে।

- Advertisement -

আরও পড়ুন: ভারত সীমান্তে ‘মজবুত’ অবস্থান চিনের, দাবি মার্কিন প্রতিরক্ষামন্ত্রীর

একটি স্পোর্টস চ্যানেলের সঙ্গে সাক্ষাৎকারে হার্দিক বলেন, “আবেগীভাবে আমি পুরোপুরি ভালো ছিলাম। আমি নিজের জন্য খুশি ছিলাম। এটা আমার নিজের বিরুদ্ধে যে যুদ্ধ জিতেছে সেই বিষয় অনেক বেশি ছিল। নিশ্চিতভাবেই আইপিএল জেতা খুবই ভাল এবং প্লে অফে পৌঁছনো গুরুত্বপূর্ণ ছিল। কারণ মানুষ আমাদের সন্দেহ করেছিল। টুর্নামেন্ট শুরুর আগেই অনেকে আমাদের বাইরে নিয়ে গিয়েছিল। তাই অনেক প্রশ্ন উঠেছিল। আমার প্রত্যাবর্তনের আগে আমার সম্পর্কে অনেক কিছু বলা হয়েছিল। এটা আমার জন্য তাদের উত্তর দেওয়ার মতো ছিল না, কিন্তু আমি এই প্রক্রিয়া নিয়ে গর্বিত।”

আরও পড়ুন: ভারত সীমান্তে ‘মজবুত’ অবস্থান চিনের, দাবি মার্কিন প্রতিরক্ষামন্ত্রীর

হার্দিক আরও বলেছেন যে, তিনি প্রতিদিন পাঁচটায় ওঠার পর ট্রেনিং করতেন। এবং সন্ধ্যা চারটা থেকে প্রশিক্ষণের আগে পর্যাপ্ত বিশ্রাম পান তা নিশ্চিত করতে হবে। চার মাস ধরে তিনি প্রতিদিন রাত সাড়ে নয়টা পর্যন্ত ঘুমতেন। তিনি অনেক ত্যাগ স্বীকার করেছিলেন, কিন্তু তার জন্য ভালো পারফর্ম করা প্রয়োজন ছিল, যা তিনি আইপিএলের আগে লড়েছিলেন। একজন ক্রিকেটার হিসেবে তার ফলাফল দেখা আরও উপভোগ্য ছিল। ভারতীয় দলে ফেরার বিষয়ে তিনি বলেন এখন খুবই উত্তেজিত। দেশের হয়ে খেলা সব সময়ই স্পেশ্যাল এবং এত দীর্ঘ সময় পর ফিরে আসাটা আরও বেশি আনন্দদায়ক।