মোহনবাগানের কোচ হওয়ার প্রস্তাব পেয়েছিলেন ফুটবল অন্তপ্রাণ মান্না দে

0
53
die hard Mohun Bagan and football-fan-manna-dey

খাস ডেস্ক: আজ ১ মে, কিংবদন্তি সঙ্গীত শিল্পী মান্না দে-র ১০৩ তম জন্মদিন। ভারতীয় সঙ্গীত জগতের উজ্জ্বল নক্ষত্র মান্না দে -এর গান ছাড়াও আরও অনেক শখ ছিল। ‘ভজহরি মান্না’ ভালবাসতেন‌‌ রান্না করতে। সর্বপরি ছিলেন একজন বড় ফুটবলপ্রেমী। শুধু যে খেলা দেখতেন বা ভালোবাসতেন তাই নন, রীতিমতো একজন বিশেষজ্ঞের মতো খেলাটা বুঝতেন। অনেক সময় বিশ্লেষণও করতেন। একবার ইস্টবেঙ্গল মোহনবাগান ডার্বি ম্যাচ নিয়ে বিশ্লেষণ করে ফুটবলারদের বুঝিয়েও ছিলেন।

আজীবন মোহনবাগান সমর্থক মান্না দে -এর সঙ্গে হামেশাই টক্কর চলত ইস্টবেঙ্গল সমর্থক শচীণ দেব বর্মনের। মুম্বইয়ে খেলা থাকলে দু’জনেই একসঙ্গে দেখতে যেতেন। ডার্বির সময় চলত ইস্টবেঙ্গল মোহনবাগান নিয়ে তর্ক-বিতর্ক। ইস্টবেঙ্গল বা মোহনবাগান হারলে মনখারাপ হয়ে যেত তাঁদের। মোহনবাগান অন্তপ্রাণ মান্না দে -কে একবার সবুজ-মেরুন দলের কোচ হওয়ার জন্যও অনুরোধ করা হয়েছিল। শুনতে অবাক লাগলেও এটাই সত্যি। মোহনবাগান খেলোয়াড়দের সঙ্গে ব্যক্তিগত সম্পর্কও ছিল মান্না দে -এর।

আরও পড়ুন: ‘হৃদয়ে লেখো নাম, সে নাম রয়ে যাবে’, জন্মদিনে স্মৃতি রোমন্থন কিংবদন্তি শিল্পীর

একবার মান্না দে ও তাঁর বাদ্যযন্ত্রীরা ট্রেনে করে যাচ্ছিলেন একটি অনুষ্ঠান করতে। ওই একই ট্রেনে ইস্টবেঙ্গল-মোহনবাগানের খেলোয়াড়রা যাত্রা করছিলেন। খেলতে যাচ্ছে। মান্না দে -এর সঙ্গে আড্ডা ও গানের আসর বসিয়ে দিয়েছেন ফুটবলাররা। কিন্তু হাসি-মজা ছেড়ে মান্না দে রীতিমতো মোহনবাগান খেলোয়াড়দের ক্লাস নিলেন, তাদের শাসনও করলেন। কয়েক দিন আগে ইস্টবেঙ্গল মোহনবাগানকে হারিয়েছিল, সেই ম্যাচে ঠিক কোথায় ভুল হয়েছিল মোহনবাগান ফুটবলারদের তা তিনি বুঝিয়ে দিলেন।

আরও পড়ুন: রিয়ালের La Liga জয়ের কারিগর কোচ আনসেলোত্তির লক্ষ্য এবার চ্যাম্পিয়ন্স লিগ

কখন বল হোল্ড করেছিলে, কোনটা মিস হয়েছে, সব ভুলগুলি ধরিয়ে দিলেন। মান্না দে -এর কাছে এই বিশেষ ক্লাস করে খুশি মোহনবাগানের সব খেলোয়াড়রা। প্রত্যেকেই বলে উঠলেন, ‘মান্নাদা, এবার আপনিই মোহনবাগানের কোচ হয়ে যা।’ এই কথা শুনে জোরে হেসেছিলেন তিনি। এত বড় একজন ফুটবল সমর্থক হয়ে তাই দীপ্ত কন্ঠে গেয়েছিলেন, ‘সব খেলার সেরা বাঙালির তুমি ফুটবল’। ‘ধন্যিমেয়ে’ ছবির সেই বিখ্যাত গান, যা আজও বাঙালির মুখে মুখে ফেরে।