পৃথিবীর শেষ কোথায়, জানেন কি

0
40

খাস খবর ডেস্ক: আমাদের গ্রহ পৃথিবী আদতে একটি বস্তু। আর যেকোনও বস্তুরই একটি সীমানা বা শেষ প্রান্ত থাকে। পৃথিবীর সীমানা কোথায়? এই উত্তর অনেকেরই জানা। আবার অনেকেই জানেন না।

আরও পড়ুন: প্রশান্ত মহাসাগরের তলায় ইঁটের বাঁধানো রাস্তা, জল্পনা বাড়ছে আটলান্টিসের

খাস খবর ফেসবুক পেজের লিঙ্ক:
https://www.facebook.com/khaskhobor2020/

উল্লেখ্য, পৃথিবীর মূলতঃ তিনটি অংশ। স্থলমণ্ডল, জলমণ্ডল আর তারপর সবার ওপরে বায়ুমণ্ডল। এই বায়ুমণ্ডল আবার পাঁচ ভাগে বিভক্ত। ট্রপোস্ফিয়ার, স্ট্র্যাটোস্ফিয়ার, মেসোস্ফিয়ার, থার্মোস্ফিয়ার এবং এক্সোস্ফিয়ার। এরপরই শুরু হয় অনন্ত মহাশূন্য।

অর্থাৎ এক্সোস্ফিয়ার-ই পৃথিবীর শেষ এলাকা। তবে এই স্তরের অনেক আগেই কারম্যান লাইন নামে পরিচিত মেসোস্ফিয়ারের শেষপ্রান্তটিকে পৃথিবীর শেষপ্রান্ত বলা হয়। এই লাইনের নামকরণ করা হয়েছে হাঙ্গেরিয়ান-মার্কিন পদার্থবিদ থিওডোর ভন কারম্যানের নামে। ইনি ১৯৫৭ সালে পৃথিবী এবং মহাকাশের মধ্যে সীমানা নির্ধারণ করার চেষ্টা করেছিলেন।

কারম্যান লাইনের ওপরে থার্মোস্ফিয়ার এবং এক্সোস্ফিয়ার থাকলেও একেই পৃথিবীর শেষ এবং মহাকাশের শুরু বলা হয়। অর্থাৎ কোনও বস্তু কারম্যান লাইন অতিক্রম করলেই বলা যেতে পারে, বস্তুটি মহাকাশে পৌঁছে গিয়েছে। কারম্যান লাইন সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে ১০০ কিলোমিটার ওপরে। যেখানে বাতাসের ঘনত্ব খুবই কম। বিমান চলাচলের জন্য এই কারম্যান লাইন খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এই লাইনের নিরিখেই নির্ধারণ করা হয় যে একটি বিমান কত উচ্চতায় উঠবে। কারণ বাতাস কম ঘনত্বের বলে বিমান চলাচলের জন্য যে পরিমাণ বায়ুর চাপ দরকার তা এখানে তৈরি হয়না।