গত একমাসে ২০ লক্ষ ভারতীয় অ্যাকাউন্ট নিষিদ্ধ করেছে হোয়াটসঅ্যাপ কর্তৃপক্ষ

0
128

খাস খবর ডেস্ক: মাত্র একমা। ৩০ দিনের মধ্যেই ২০ লক্ষ ভারতীয় ব্যবহারকারীর অ্যাকাউন্ট নিষিদ্ধ করল হোয়াটসঅ্যাপ কর্তৃপক্ষ। কারণ? সংস্থাটি স্পষ্ট জানিয়েছে, অন্যান্যদের বিরুদ্ধে নেতিবাচক, অশ্লীল মন্তব্য করার জন্য তথা স্প্যাম মসেজ পাঠানোর জন্য এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে তারা৷

আরও পড়ুন, মেসির চুক্তিতে কোপ গ্রিজম্যানের ওপর, ছাড়তে চলেছেন ক্লাব

বন্ধুবান্ধব, প্রিয়জনের সঙ্গে যোগাযোগ হোক কিংবা আর্থিক লেনদেন। বর্তমানে ভারত তথা গোটাবিশ্বের অন্যতম জনপ্রিয় অ্যাপ হোয়াটসঅ্যাপ। কিছু বছর আগেই মার্ক জাকারবার্গের ফেসবুক কিনে নিয়েছে হোয়াটসঅ্যাপের সম্পূর্ণ স্বত্তাধিকার। সেই অ্যাপ কর্তৃপক্ষই এবার জানিয়ে দিল, ১৫ই মে থেকে ১৫ই জুন অবধি ২০ লক্ষ ভারতীয় হোয়াটসঅ্যাপ অ্যাকাউন্ট নিষিদ্ধ করেছে তারা৷

আরও পড়ুন, রুখবে ব্ল্যাক ফাঙ্গাসও, পকেট ভেন্টিলেটর আবিষ্কার করে চর্চায় হাওড়ার বিজ্ঞানী

ভারত সরকারের নতুন তথ্য প্রযুক্তি আইন অনুযায়ী প্রতি ৩০-৪৫ দিনের মধ্যেই এই প্রকাশ করতে হবে অ্যাপগুলিকে। মূলত সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম সংস্থাগুলিকে এই রিপোর্ট পেশ করার নির্দেশ দিয়েছে সরকার। সেই রিপোর্টেই হোয়াটসঅ্যাপ জানিয়েছে, ‘আমাদের লক্ষ্য, যাতে কোনও ব্যবহারকারী বাকিদের নেতিবাচক মন্তব্য করতে না পারেন। তাঁদের বিরুদ্ধে অহেতুক কোনও মন্তব্য যাতে না করা হয়। এই ধরনের ব্যবহারকারীদের অ্যাকাউন্টই নিষিদ্ধ করেছে অ্যাপ কর্তৃপক্ষ। তিনটি পর্যায়ে এই ধরনের ব্যবহারকারীদের চিহ্নিত করে এই ব্যবস্থা নিয়েছে তাঁরা। অন্যান্য ব্যবহারকারীদের মতামতও নেওয়া হয়েছে এক্ষেত্রে।’ সংস্থাটি জানিয়েছে, মোট নিষিদ্ধ অ্যাকাউন্টের ৯৫ শতাংশই স্প্যাম মেসেজ পাঠান বাকিদের৷

উল্লেখ্য, ব্যবহারকারীদের তথ্যের সুরক্ষা অটুট রাখতে ভারত সরকারের বিরুদ্ধে ইতিমধ্যেই একটি মামলা লড়ছে হোয়াটসঅ্যাপ।