করোনার জেরে আইফোন বিক্রিতে রাশ টানল অ্যাপল

0
238

ক্যালিফোর্নিয়া: অ্যাপল এইমুহূর্তে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র এবং চিন সহ অনেক দেশেই তাঁদের অনলাইন স্টোরের মাধ্যমে আইফোন ক্রয় করার ক্ষেত্রে সীমাবদ্ধতা এনেছে। এখন থেকে প্রতি ব্যক্তি সর্বোচ্চ দুটি হ্যান্ডসেট কেনার সুযোগ পাবে।  শুক্রবার অ্যাপল তাঁদের  ওয়েবসাইটে এমন তথ্যই প্রকাশ করেছে।

অ্যাপল তাঁদের ওয়েবসাইটে এই তথ্য প্রকাশ করেছে এবং কোন কোন দেশের ক্ষেত্রে এটি প্রযোজ্য সেটিও তাঁরা বিস্তারিত জানিয়ে দিয়েছে। একটি ড্রপ-ডাউন মেনুর মাধ্যমে গ্রাহকদের সমস্ত মডেল জুড়ে একই মডেলের দুটির বেশি আইফোন কেনার সুযোগ দিচ্ছে না অ্যাপল। এর আগে ২০০৭ সালে এরকম ব্যবস্থা গ্রহণ করেছিল অ্যাপল। যখন আইফোন নতুন করে লঞ্চ হয়েছিল। তাঁরা এরকম করেছিল যাতে অন্য কেউ বেশীমাত্রায় ফোন কিনে তা আবার পুনরায় বিক্রি করতে না পারে।

- Advertisement -

ইতিমধ্যে চিন, হংকং, তাইওয়ান এবং সিঙ্গাপুরে প্রত্যেক আইফোন ব্যবহারকারীর কাছে একটি বার্তা পাঠানো হয়েছে। যেখানে তাঁরা গ্রাহকদের জানিয়েছে যে, এখন থেকে যারা আইফোন কিনতে ইচ্ছুক তাঁরা অর্ডার অনুযায়ী মাত্র দুটি ফোনই কিনতে পারবে। তাঁর বেশি নয়।  করোনা ভাইরাসের জেরে এইমুহূর্তে চাহিদা এবং সরবরাহ দুই ক্ষেত্রেই ব্যাঘাত ঘটছে। এই কারণেই অ্যাপল এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

চিনের এরকম পরিস্থিতির কারণে অ্যাপল চিনে তাঁর সমস্ত আউটলেট বন্ধ করে দিয়েছিল। ১৩ মার্চ পুনরায় তা আবার খোলা হয়েছে। ভাইরাসের দরুন অ্যাপলের সবথেকে গুরুত্বপূর্ণ ম্যানুফ্যাকচারিং পার্টনার ফক্সকন তাঁদের কার্যক্রম অস্থায়ী ভাবে বন্ধ করে দিয়েছিল। যদিও ফক্সকনের তরফ থেকে জানানো হয়েছে এখন পরিস্থিতি সঠিক রয়েছে।

ফেব্রুয়ারি মাসে অ্যাপল এর সিইও টিম কুক তাঁদের বিনিয়োগকারীদের উদ্দ্যেশে একটি চিঠি লিখেছিল। যেখানে সে স্পষ্ট ভাষায় জানিয়েছিল, করোনা ভাইরাসের কারণে সংস্থা তাঁদের ক্যালেন্ডার কিউ১ এর প্রাথমিক আয়ের প্রক্ষেপণগুলি এইসময় পূরণ করতে পারবে না। এই বিষয় সকল বিনিয়োগকারীদের সংস্থার তরফ থেকে সতর্ক করে দেওয়া হয়েছিল।

যদিও এখন চিনে কারখানাগুলি পুনরায় কার্যকর হয়েছে। তবুও অ্যাপল এবং অন্যান্য হার্ডওয়্যার সংস্থাগুলির চাহিদা দুর্বল হয়ে পড়েছে। কারণ, করোনা ভাইরাসের প্রকোপে পৃথিবীর বেশীরভাগ দেশে এইসময় কোয়ারেন্টাইন জারি রয়েছে।

চিনের হুহান প্রদেশ থেকে ছড়িয়ে পরা এই ভাইরাস ক্রমশ গ্রাস করছে পৃথিবীর বেশীরভাগ দেশকে। এখন সারা বিশ্ব জুড়ে এই ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা প্রায় ২৪০,০০০ জন। আর মৃতের সংখ্যা প্রায় ১০,০০০ জন। এই কারণে অ্যাপল চিনের বাইরে এখন তাঁদের অন্যান্য রিটেল দোকানগুলিকে বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।