গুরুত্বপূর্ণ কর্মসূচিতে শুভেন্দু নেই কেন, জল্পনায় ফুটছে গেরুয়া শিবির

0
37

কলকাতা: বিকাশ ভবনে বিজেপি যুব মোর্চার ঘোষিত কর্মসূচিতে থাকার কথা ছিল তাঁর৷ প্রচারে সেকথা ফলাও করে জানানোও হয়েছিল৷ রাজ্য সভাপতি সুকান্ত মজুমদারের পাশাপাশি সেই কর্মসূচিতে হাজির হয়েছিলেন বিজেপির সর্বভারতীয় যুব মোর্চার সভাপতি তেজস্বী সূর্য, বিজেপি সাংসদ রাজু বিস্তা৷ কিন্তু শুভেন্দু অধিকারী? নৈব নেব চ:৷

রাজ্যের শিক্ষাঙ্গনে দুর্নীতির কালোপাহাড়ের অভিযোগ৷ এহেন গুরুত্বপূর্ণ ইস্যুতে যুব সংগঠনের কর্মসূচিতে বিরোধী দলনেতার অনুপস্থিতি নিয়ে ইতিমধ্যেই প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে দলের অন্দরেই৷ কানাঘুষো বাড়ছে জল্পনাও৷ বস্তুত, শুভেন্দুর পাশাপাশি এদিনের কর্মসূচিতে অনুপস্থিত ছিলেন দলের প্রাক্তন রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষও৷ স্বাভাবিকভাবেই জল্পনার পারদ ফুটছে ক্ষোদ বিজেপির অন্দরেই৷

বস্তুত, সোমবারই সামনে এসেছে দলের পূর্ব মেদিনীপুর জেলার হোয়াটস অ্যাপ গ্রুপ থেকে শুভেন্দুর বেরিয়ে যাওয়ার ঘটনা৷ তার অব্যাহতি পরেই এদিন দলের গুরুত্বপূর্ণ কর্মসূচিতে তাঁর না-থাকা নিয়ে কর্মীদের মধ্যেই নানান জল্পনা মাথা চাড়া দিতে শুরু করেছে৷ একাংশের মতে, বর্তমানে যেভাবে এরাজ্যে সংগঠন পরিচালনা করা হচ্ছে, তাতে ক্ষুব্ধ বিরোধী দলনেতা৷ তাই এই গরহাজিরা৷

যদিও অপর অংশ এমন জল্পনাকে খারিজ করে দিয়েছেন৷ বিজেপির এরাজ্যের দাপুটে নেতা দেবাশিস জানার যুক্তি, ‘‘এদিন বিকাশভবনে দলের যুব সংগঠনের কর্মসূচি ছিল৷ স্বাভাবিকভাবে, শুভেন্দু সেখানে যাননি৷’’ পাল্টা হিসেবে প্রশ্ন উঠে আসছে, যুব সংগঠনের কর্মসূচি হলেও তার প্রচারে তো শুভেন্দুর ছবিও ব্যবহার করা হয়েছিল৷ তাছাড়া রাজ্য সভাপতিও তো ওই কর্মসূচিতে রয়েছেন৷ তাহলে শুভেন্দু গেলেন না কেন? একাংশের দাবি, ‘‘দাদা রাজ্যের বিরোধী দলনেতা৷ প্রচন্ড ব্যস্ত থাকেন৷ ফলে সব কর্মসূচিতে তাঁর পক্ষে উপস্থিত থাকা সম্ভব নয়৷ বিষয়টিকে অন্যভাবে দেখা ঠিক নয়৷’’

ঘোলা জলকে আরও ঘুলিয়ে দিতে এই ইস্যুতে আসরে নেমে পড়েছেন শাসকদলের নেতৃত্বরা৷ তৃণমূলের মুখপাত্র কুণাল ঘোষের কটাক্ষ, ‘‘ওটা তো এখন আর বিজেপি নেই৷ দিলীপ বিজেপি বনাম সুকান্ত বিজেপি৷ ফলে সেখানে থাকা না থাকা নিয়ে এমন অনেক কাণ্ডকারখানা ঘটবে৷’’

আরও পড়ুন: সেলফি তুলতে গিয়ে চলন্ত ট্রেন থেকে পড়ে জখম মহিলা, উধাও স্বামী