ভ্যাকসিন কুপন বিলিতে স্বজন-পোষণ, ঘুরিয়ে স্বীকার নবান্নের: কড়া পদক্ষেপের বার্তা

0
1042

খাস খবর ডেস্ক: দেশ জুড়ে আছড়ে পড়তে পারে করোনার তৃতীয় ঢেউ। তার আগে ভ্যকসিন নিতেই হবে। ভ্যাকসিনের লাইনে হুড়োহুড়ির মধ্যে পড়ে রক্তাক্ত হওয়ার খবরও মিলেছে। সেই হয়রানি কমাতে বাড়ি বাড়ি গিয়ে কুপন বিলি চালু করেছিল রাজ্যসরকার। দায়িত্ব পড়েছিল আশা-কর্মীদের উপর। এবার সেই ভ্যাকসিনের কুপন বিলি নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করলেন রাজ্যের মুখ্যসচিব হরিকৃষ্ণ দ্বিবেদী।

আরও পড়ুনঃ অপসারিত সভাপতি, প্রকাশ্যে দলের গোষ্ঠীকোন্দল

নবান্ন সূত্রে খবর, মঙ্গলবার জেলাশাসক, জেলা স্বাস্থ্য আধিকারিকদের সঙ্গে বৈঠক করেন রাজ্যের মুখ্যসচিব। এ দিনের বৈঠকে মুখ্যসচিব ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, সরকারি আধিকারিকদের দিয়েই ভ্যাকসিনেশনের কুপন বিলি করতে হবে। কোন অঞ্চলে কুপন বিলি করা হবে তা ঠিক করবেন সরকারি আধিকারিকরাই। তার জন্য আগে থেকে প্রচারও করতে হবে। ভ্যাকসিনের জন্য যে কুপন বিলি করা হচ্ছে তা কোনভাবেই যেন রাজনৈতিক নেতারা বিলি না করতে পারে সেই দিকে নজর দিতে বলেন মুখ্য সচিব। মঙ্গলবারের বৈঠকে কার্যত কড়া বার্তা দেওয়া হয়েছে বলেই জানা গিয়েছে।

আরও পড়ুনঃ প্রাকৃতিক বাতাসকে পরিশুদ্ধ করে বারাসতে তৈরি হবে অক্সিজেন, চালু হল প্লান্ট

পাশাপাশি, এদিনের বৈঠকে বেশকিছু জেলাতে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা কেন বাড়ছে তা নিয়েও ক্ষোভ প্রকাশ করেন মুখ্যসচিব । শুধু তাই নয়, পাশাপাশি, স্বাস্থ্য পরিকাঠামো উন্নত হওয়ার পরেও কেন একটি জেলাতে চার জনের মৃত্যু হবে তা নিয়েও ক্ষোভ প্রকাশ করা হয়। নবান্ন সূত্রে খবর, এই প্রসঙ্গ নিয়ে একটি জেলার স্বাস্থ্য আধিকারিকের ভূমিকা নিয়েও ক্ষোভ প্রকাশ করেন তিনি।

এছাড়াও এদিন জেলাশাসক দের সঙ্গে বৈঠক করা হয়েছে নবান্নের তরফে। যে সব জেলাগুলো করানার পজিটিভিটি রেট দুই শতাংশের ওপর রয়েছে তাদের পরিস্থিতির উপর কড়া নজর দিতে বলা হয়েছে। দার্জিলিং, নদিয়া, ঝাড়গ্রাম, উত্তর ২৪ পরগনায় করোনা নিয়ে জেলাশাসকদের বিশেষ নজর দিতে বলা হয়েছে। জোর দিতে বলা হয়েছে করোনা টেস্টিংয়ের ওপরও।

ভ্যাকসিন নিতে গিয়ে রোজ বিভিন্ন সমস্যার মুখে পড়ছেন সাধারণ মানুষ। সেই কারণেই ভ্যাকসিনের কুপনের ব্যবস্থা করা হয়েছে। অথচ উত্তর ২৪ পরগনা ও দক্ষিণ ২৪ পরগনায় বিভিন্ন ঘটনা নজরে এসেছে। যেখানে রাজনৈতিক নেতাদের দেখা গিয়েছে কুপন বিলি করোতে। উঠেছে স্বজন পোষনের অভিযোগও। এই ঘটনায় নজরে আসার পর মুখ্যমন্ত্রী পুরো বিষয়টি খতিয়ে দেখতে বলেছিলেন।

#covid19 #westbengal #nabanna #ChiefSecretary