মহারাষ্ট্রের জোট সরকার বাঁচাতে এবার বামেদের শরণাপন্ন পাওয়ার

0
114

মুম্বাই : মহারাষ্ট্রের জোট সরকারকে পতনের হাত থেকে বাঁচানোর জন্য অবশেষে মাঠে নামলেন বারামতির ভূমিপুত্র শরদ পাওয়ার। রাত্রি আটটায় মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধব ঠাকরের সঙ্গে বৈঠকে বসতে চলেছেন ভারতের একসময়ের ক্রীড়া প্রশাসক। এনসিপি সূত্রে খবর ইতিমধ্যে জোট সরকার বাঁচাতে সিপিএমের সাধারণ সম্পাদক সীতারাম ইয়েচুরির সঙ্গে কথা বলেছেন শরদ পাওয়ার, কারণ মহারাষ্ট্র বিধানসভায় বর্তমানে দুই জন বাম বিধায়ক রয়েছে। মহারাষ্ট্রে কৃষক আন্দোলনের পরিপ্রেক্ষিতে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেন বামেরা, এই মুহূর্তে মহারাষ্ট্রে সরকার বাঁচাতেও এবার সেই বামেদেরকেই ডাক পাঠালেন একসময়ের আন্তর্জাতিক ক্রিকেট প্রশাসক।

আরও পড়ুন- মহারাষ্ট্রে সরকার বাঁচাতে একমাত্র ভরসা “পাওয়ার প্লে”

- Advertisement -

মহারাষ্ট্র বিধানসভার মোট সদস্য সংখ্যা ২৮৮, এই মুহূর্তে একজনের মৃত্যুতে বিধায়ক সংখ্যা নেমে দাঁড়িয়েছে ২৮৭ তে। এই মুহূর্তে শিবসেনার হাতে রয়েছে ৫৬জন বিধায়ক, ফলে ২২ জন বিদ্রোহী বিধায়ক যদি দল পরিবর্তন করে বিজেপিতে যোগ দেন, তবে দলত্যাগ বিরোধী আইনের ফলে বিধায়ক পদ খারিজ হয়ে যাবে। এর বদলে যদি বিধায়করা পদত্যাগ করেন, তবে মহারাষ্ট্রের মোট বিধায়ক সংখ্যা নেমে দাঁড়াবে ২৬৫ জনে।

আরও পড়ুন- অগ্নিপথ বিক্ষোভে কাজ করছে না যোগীর বুলডোজার

এর ফলে ম্যাজিক ফিগার হবে ১৩৩, কিন্তু জোটের কাছে আছে ১৩০ জন বিধায়ক এবং বিজেপির দাবি অনুযায়ী তাদের কাছে আছে ১৩৫ জন বিধায়ক, ফলে সরকার গড়তে খুব একটা অসুবিধা হবে না বিজেপির। শিবসেনা বিধায়ক তথা পুর ও নগরোন্নয়ন মন্ত্রী একনাথ সিন্ধের বিদ্রোহী হয়ে যাওয়ার কারণে। তিনি ২২ জন বিধায়ককে সঙ্গে নিয়ে এই মুহূর্তে গুজরাটের সুরাটের একটি রিসোর্টে রয়েছেন। এখন দেখার বামেদের সমর্থন নিয়ে মহারাষ্ট্রের জোট সরকার বেঁচে যায় কিনা।