‘ভূতের মুখে রাম নাম’, সিবিআইকে হাসপাতালে ডাকল অনুব্রত

0
349

কলকাতা: ভূতের মুখে রাম নাম! বহুল ব্যবহারে জীর্ণ প্রবাদটাই ফের সামনে উঠে এল বীরভূমের শাহেনশা অনুব্রত মণ্ডলের দৌলতে৷ এই মুহূর্তে এসএসকেএমের উডর্বান ওয়ার্ডের ২১১ নম্বর কেবিনে ভর্তি রয়েছেন তিনি৷ সেখান থেকেই আইনজীবী মারফৎ সিবিআইয়ের কাছে পাঠানো চিঠিতে তিনি লিখেছেন, ‘‘আমি অসুস্থ৷ তবে আপনারা চাইলে আজই হাসপাতালে এসেও আমার সঙ্গে দেখা করতে পারেন!’’

যা শুনে রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা, ওই প্রবাদ সামনে আনছেন৷ তৃণমূলের বীরভূমের জেলা সভাপতির সিবিআই ইস্যুতে এমন পদক্ষেপকে, ‘১৮০ ডিগ্রি পাল্টি খাওয়া’র সঙ্গে তুলনা করে নিন্দুকেরা বলছেন, এতদিন তো সিবিআই এড়ানোর জন্য বারংবার কোর্টে দৌড়াচ্ছিলেন৷ আজ হল কি!

বস্তুত, গরু পাচার মামলায় বার বার চার বার সিবিআই হাজিরা এড়ানোর অভিযোগ উঠেছে অনুব্রতর বিরুদ্ধে৷ এমনকি শেষবার কলকাতা হাইকোর্টও এবিষয়ে তাঁর ওপর থেকে রক্ষাকবচ তুলে নেওয়ায় সিবিআইয়ের হাজিরার মুখোমুখি হওয়ার জন্য প্রস্তুত হয়েছিলেন মণ্ডল সাহেব৷ এমনকি সুদূর বীরভূম থেকে মঙ্গলবার রাতেই এসে পৌঁছেছিলেন নিউটাউনের চিনারপার্কের ফ্ল্যাটে৷ এদিন সকাল সওয়া দশটা নাগাদ সেখান থেকে সিবিআই দফতরে যাওয়ার পথে গাড়িতেই অসুস্থ অনুভব করেন তিনি৷ এরপরই তাঁকে নিয়ে যাওয়া হয় এসএসকেএমে-এমনটাই দাবি ঘনিষ্ঠ মহলের৷

এদিন নিজাম প্যালেসে দাঁড়িয়ে অনুব্রতর আইনজীবী বলেন, ‘‘আমার মক্কেলকে পুরোপুরি রাজনৈতিক কারণে হয়রানি করা হচ্ছে৷ সিবিআই যে নিরপেক্ষ নয়, তা ইতিমধ্যেই স্পষ্ট করেছে দেশের শীর্ষ আদালত৷ তবে অভিযোগ যেহেতু উঠেছে তাই আমার মক্কেল সিবিআইয়ের হাজিরায় উপস্থিত হতে প্রস্তুত৷ এদিন হাজিরার জন্য তিনি বেরিয়েওছিলেন৷ মাঝপথে অসুস্থ হয়ে পড়লে কি বা করার আছে৷ ওনার শ্বাসকষ্টজনিত সমস্যা রয়েছে৷ তবু সিবিআই চাইলে হাসপাতালে গিয়ে ওনাকে জেরা করতে পারেন৷’’ যা শুনে নিন্দুকেরা বলছেন, এতদিন হাজিরা এড়ানোর জন্য কোর্টে দৌড়াচ্ছিলেন, আজ হঠাৎ উলোটপুরাণ কেন? রাজনৈতিক মহল বলছে, চাপ বাড়ছে৷ ঘাড়ের কাছে নিঃশ্বাস ফেলছে বগটুই কাণ্ডও৷ তাই নয়া কৌশলের পথেই হেঁটেছেন বীরভূমের ‘ডন’!

আরও পড়ুন: হাটে হাঁড়ি ভাঙলেন কুণাল, জানালেন- তৃণমূলের সবচেয়ে বড় লোভী, ধান্দাবাজ’কে