Vice Presidential Election: দলের নির্দেশ উড়িয়ে ভোট দিলেন শিশির-দিব্যেন্দু

0
66
Sisir Adhikari

কলকাতা ও নয়াদিল্লি: ভোটদানে বিরত থাকার জন্য দলের তরফে নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল৷ সেই নির্দেশ উড়িয়েই শনিবার উপ রাষ্ট্রপতি নির্বাচনে ভোট দিলেন শিশির অধিকারী (Sisir Adhikari) এবং দিব্যেন্দু অধিকারী৷ বস্তুত, এর আগে রাষ্ট্রপতি নির্বাচনের সময়ও দলের তরফ থেকে এরাজ্যের ভোটদানে অংশগ্রহণের কথা বলা হলেও পিতা-পুত্র অবশ্য সেই নির্দেশ উড়িয়ে দিল্লি গিয়েছিলেন৷ স্বভাবতই, শুভেন্দুর পিতা ও ভাইয়ের এমন পদক্ষেপে তাঁদের পদ্ম-যোগে বিশেষ দেরি দেখছেন না রাজনৈতিক মহল৷ ওই মহলের মতে, হয়তো শেষ মুহুর্তে তৃণমূলের সাংসদ পদ থেকে ইস্তফা দিতে পারেন পিতা-পুত্র৷ এঘটনা তারই প্রাথমিক পদক্ষেপ৷

শিশির-দিব্যেন্দু যে দলের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে যাবেন, তা অবশ্য রাজনৈতিক মহলের কাছে স্পষ্ট ছিল৷ কারণ, রাষ্ট্রপতি নির্বাচনে দলের নির্দেশ নির্দেশ উড়িয়ে দিল্লি গিয়ে ভোট দান করলেও বাইরে এসে শিশিরবাবু (Sisir Adhikari) দাবি করেছিলেন, ‘‘নেত্রী এবং দলের নির্দেশ মেনে যশবন্ত সিনহাকেই ভোট দিয়েছি৷’’ একই কথা শুনিয়েছিলেন দিব্যেন্দুও৷ বরং একধাপ এগিয়ে শিশিরবাবু বলেছিলেন, ‘‘আমি তৃণমূলে ছিলাম, আছি এবং থাকব৷ দলের সিদ্ধান্তই আমার কাছে শেষ কথা৷’’ স্বভাবতই, অনেকেই মনে করেছিলেন উপ রাষ্ট্রপতি নির্বাচনেও হয়তো দলের নির্দেশ মেনে ভোটদান থেকে বিরতই থাকবেন শুভেন্দুর বাবা ও দাদা৷

এমনকি জল্পনা জিইয়ে রেখে শুক্রবারও শিশিরবাবু (Sisir Adhikari) বলেছিলেন, ‘গেলে দেখতে পাবেন, না গেলেও পাবেন’! তবে এদিন অবশ্য তৃণমূলের বাকি সাংসদরা ভোটদান থেকে বিরত থাকলেও ভোট দিতে দেখা গিয়েছেন শিশির অধিকারী ও তাঁর সেজো পুত্রকে৷ যা দেখে রাজনৈতিক মহলের অনুমান, এদিনের পরিস্থিতির পর খাতায় কলমে তৃণমূলের সঙ্গে বিচ্ছেদের পথে আরও অগ্রসর হল শিশির-দিব্যেন্দু৷ তবে সেটা কবে, তা এখনও স্পষ্ট নয়৷

আরও পড়ুন: খাস কলকাতায় যুবককে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ, ক্লোজ সার্জেন্ট সহ তিন পুলিশ কর্মী

downloads: https://play.google.com/store/apps/details?id=app.aartsspl.khaskhobor