রতনে রতন চেনে, অর্জুনের গড় সামলাবেন শুভেন্দু

0
37

কলকাতা: দল বদলে জোড়াফুলের নামাবলী গায়ে চড়িয়েছেন ব্যারাকপুরের দোর্দন্ডপ্রতাপ সাংসদ৷ এহেন আবহে বিজেপির নিচুতলার কর্মীরা কি করবেন বুঝে উঠতে পারছেন না৷ এহেন পরিস্থিতিতে এলাকায় দলের সংগঠন অটুট রাখতে এবার অর্জুনের গড় সামলাবেন শুভেন্দু অধিকারী৷ সোমবার রাজারহাটের এক হোটেলে বৈঠকের পর এমনই সিদ্ধান্ত সামনে এনেছেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি সুকান্ত মজুমদার৷

সুকান্ত জানান, এখন থেকে অর্জুন সিংয়ের এলাকার দায়িত্ব সামলাবেন শুভেন্দু অধিকারী। দলীয় সূত্রের খবর, আগামী ২৫ মে ব্যারাকপুরে দলের একটি সাংগঠনিক বৈঠক ডাকা হয়েছে। ওই বৈঠক থেকেই আনুষ্ঠানিকভাবে শুভেন্দুকে ব্যারাকপুরের গুরু দায়িত্ব দেওয়া হবে৷ অর্জুন দলবদল করার পর ব্যারাকপুরে দলের সংগঠন কিভাবে সামলানো হবে তা নিয়ে সোমবার তড়িঘড়ি বৈঠকে বসেছিলেন বিজেপির শীর্ষ নেতৃত্ব। সেখানেই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

এদিনের বৈঠকে সুকান্ত ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন বিজেপির এরাজ্যের পর্যবেক্ষক এবং বিজেপির সাইবার সেলের প্রধান অমিত মালব্য৷ বৈঠকে শুভেন্দু ছিলেন কি না তা স্পষ্ট নয়৷ দিল্লি থেকে ভার্চুয়ালি বৈঠকে যোগ দিয়েছিলেন দিলীপ ঘোষ৷ সূত্রের খবর, অর্জুনের মতো ডাকাবুকো নেতার এলাকাকে সামলাতে শুভেন্দুর বিকল্প এই মুহূর্তে দলে অন্য কেউ নেই বলেই মনে করা হচ্ছে৷ তাই বিরোধী দলনেতার ঘাড়ে এই গুরুভার তুলে দেওয়া হয়েছে৷

যদিও রাজনৈতিক মহলের অভিমত, শুভেন্দু ও অর্জুনের সম্পর্ক বরাবরই ভাল৷ এমনকি দু’তরফই দল বদলের পরও সেই অর্থে প্রকাশ্যে কেউই কারও বিরুদ্ধে এতদিন মুখ খোলেননি৷ কিন্তু এবারে দল বদলের পরই নাম না করে অর্জুন প্রথম আক্রমণটি শানিয়েছিলেন অধিকারী পরিবারের দিকে৷ তাঁর সাংসদ পদ থেকে ইস্তফা নিয়ে জানতে চাওয়া হলে টেনে এনেছিলেন শিশির অধিকারী ও দিব্যেন্দু অধিকারীর প্রসঙ্গ৷ যার জেরে কাঁটা দিয়ে কাঁটা তোলার পথেই হাঁটলেন নেতৃত্ব, এমনটাই মত ওই মহলের৷

আরও পড়ুন: দল বদলের হিড়িকে শুধু সাধারণ মানুষের নয়, ক্ষতি হচ্ছে রাজনীতিরও