এগিয়ে আসতে পারে পঞ্চায়েত নির্বাচন, জল্পনা উস্কে দিলেন মুখ্যমন্ত্রী

0
21
mamata banerjee

কলকাতা: তেইশের ত্রিস্তর পঞ্চায়েত ভোট তবে কি সময়ের আগেই সম্পন্ন হবে? ছন্নছাড়া বিরোধীদের আরও বেকায়দায় ফেলতে সময়ের আগেই তবে কি পঞ্চায়েত ভোট করাবে রাজ্য? বেশ কিছুদিন ধরেই এই নিয়ে চলছিল জল্পনা৷ বুধবার দুপুরে দুর্গাপুরের প্রশাসনিক সভা থেকে যা কার্যত আরও উস্কে দিলেন স্বয়ং মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷

রাজ্যের প্রশাসনিক প্রধান মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে এদিন বলতে শোনা গিয়েছে, ‘‘যে কোনও দিন ইলেকশন (পঞ্চায়েত ভোট) ঘোষণা হয়ে যাবে! তাই কাজগুলো ঝটপট করুন, নইলে ইলেকশনে ললিপপ খাবেন!’’ ম্যাডামের মুখে এহেন কথা শুনে প্রশাসনিক সভায় আমলারা একে অপরের মুখ চাওয়া চাওয়ি শুরু করেন৷ একই সঙ্গে তাঁদের বুঝতে অসুবিধা হয় না, ম্যাডাম ঠিক কি ইঙ্গিত দিতে চাইছেন৷ স্বভাবতই, ত্রিস্তর পঞ্চায়েত নির্বাচন নিয়ে রাজনৈতিক দলগুলির পাশাপাশি প্রশাসনের অন্দরেও চর্চ্চার মাত্রা আরও বেড়েছে৷

রাজ্য প্রশাসনের এক পদস্থ কর্তা বলেন, ‘‘গরমের সময় ভোট হলে পাজনৈতিক কর্মী থেকে সাংবাদিক, এমনকি জনতা সকলকেই বাড়তি গরম সহ্য করতে হয়৷ সেই কারণে ক্ষমতায় আসার পর থেকেই ভোটের সময়কাল পরিবর্তন করার পক্ষপাতী মুখ্যমন্ত্রী৷ সদ্য সমাপ্ত পুরসভা ও কর্পোরেশন ইলেকশনও সেই কারণে ভিন্ন সময়ে হল৷ ফলে ত্রিস্তর পঞ্চায়েতের ভোট সময়ের আগে হলেও তাতে অস্বাভাবিক কিছু নেই৷ সেটাই এদিন কার্যত স্পষ্ট করে দিলেন ম্যাডাম৷’’

রাজ্য নির্বাচন কমিশন সূত্রের খবর, নির্ধারিত সময়ে মেনে ত্রিস্তর পঞ্চায়েত ভোট হলে সেটা হবে তেইশের এপ্রিল-মে মাসে৷ তবে গতিপ্রকৃতি অনুযায়ী সময়সীমা আরও তিন মাস এগিয়ে আসতে পারে৷ এদিন দুর্গাপুরে মুখ্যমন্ত্রীর প্রশাসনিক বৈঠকের পর থেকেই এই বিষয়ে জল্পনাআরও বাড়তে শুরু করেছে৷ রাজনৈতিক মহলের মতে, সেক্ষেত্রে বাড়তি অ্যাডভান্টেজও পেতে পারে রাজ্যের শাসকদল৷ কারণ, রাজ্যের প্রধান বিরোধী দলের হাল এখন অনেকটাই ছন্নছাড়া৷ তাদের ঘর গোছানোর আগেই ভোট ঘোষণা করে দিলে তাতে বিরোধী শিবিরের বিড়ম্বনা বাড়বে বলেই অভিমত৷

আরও পড়ুন: হাইকোর্ট ফিরল জ্যাঠামশাই বির্তকে, ইতি টানলেন বিচারপতি গঙ্গোপাধ্যায়