সরকারের সঙ্গে সহযোগিতা নয়, DA আদায়ে এবার রাজপথে রণংদেহী সরকারি কর্মীরা

0
11

কলকাতা: ডিএ (DA) মামলায় আদালতের রায়দানের পর চার মাস অতিক্রান্ত৷ আদালতের নির্দেশ মানা তো দূরে থাক, আদালতকে ভুল পথে পরিচালিত করার চেষ্টা করেছিল রাজ্য৷ এমনকি কর্মচারীদের বকেয়া কোনও ডিএ নেই বলেও রাজ্যের তরফে আদালতকে জানিয়েছিলেন রাজ্যের অ্যাডভোকেট জেনারেল (এজি)। বৃহস্পতিবার রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের স্বপক্ষে আদালতের রায় ঘোষণা হওয়ার পরই এবার নিজেদের রণংদেহী মূর্তির ইঙ্গিত স্পষ্ট করলেন কনফেডারেশন অফ স্টেট গভর্নমেন্ট এমপ্লয়িজ-এর সভাপতি শ্যামলকুমার মিত্র৷

শ্যামলবাবুর দাবি, ‘‘এরপর রাজ্য সরকারের সঙ্গে কোনও রকম সহযোগিতা করব না। এবার আমরা রাজ্য সরকারের সঙ্গে সার্বিক বিরোধিতার নীতিতে যাচ্ছি।’’ কেন একথা বলছেন, তাঁর স্বপক্ষে ব্যাখ্যাও দিয়েছেন শ্যামলবাবু৷ তিনি বলেন, ‘‘২০ মে হাই কোর্টের ডিভিশন বেঞ্চ নির্দেশ দিয়েছিল, তিন মাসের মধ্যে বকেয়া মহার্ঘ ভাতা মেটাতে হবে রাজ্য সরকারকে। আমরা রাজ্যের সঙ্গে সহযোগিতা করতে চেয়েছিলাম৷ কিন্তু রাজ্য কোনও আলোচনায় না গিয়ে আদালতে মিথ্যে তথ্য সরবরাহ করেছিল৷ আমরা তার প্রতিবাদে আদালতে সঠিক তথ্য তুলে ধরেছি৷ আইনের প্রতি আস্থা ছিল৷ অবশেষে সেই নির্দেশ সামনে এল৷’’ খানিক থেমে তিনি যোগ করেছেন, ‘‘আইনি লড়াইয়ের পাশাপাশি এবার নিজেদের প্রাপ্য অধিকার ফিরে পেতে প্রয়োজনে আমরা রাজপথে নেমে আন্দোলন সংগঠিত করব৷’’

- Advertisement -

বস্তুত, বর্তমানে কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মীরা ৩৪ শতাংশ হারে ডিএ (DA) পান। সেখানে রাজ্যের সরকারি কর্মীরা প্রায় ৩১ শতাংশ কম ডিএ পান৷ এর প্রতিবাদে স্টেট অ্যাডমিনিস্ট্রেটিভ ট্রাইব্যুনাল (স্যাট)-এ ২০১৬ সালে মামলা করে কনফেডারেশন অফ স্টেট গভর্মেন্ট এমপ্লয়িজ। সংগঠনের তরফ থেকে ডিএ বৈষম্য দূর করার দাবি জানানো হয়৷ ওই মামলাতেই কর্মচারীদের দাবির স্বপক্ষে রায় দিয়েছিল আদালত৷ যার পাল্টা হিসেবে তিন, তিনবার রায় পুনর্বিবেচনার আর্জি জানায় রাজ্য৷ অতীতের মতো এবারেও রাজ্যের দাবিতে কোনও যৌক্তিকতা দেখছে না আদালত৷ তাই আর্জি খারিজ করে দিয়েছে আদালত৷ তারপরই পাল্টা হুঙ্কার সামনে এনেছেন রাজ্য সরকারি কর্মচারি সংগঠনের নেতৃত্বরা৷

আরও পড়ুন: লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে ডেঙ্গুর সংক্রমণ, সঙ্গী আতঙ্কও

আরও পড়ুন: https://play.google.com/store/apps/details?id=app.aartsspl.khaskhobor