27.6 C
Kolkata
Friday, May 7, 2021
Home খাস পলিটিক্স west bengal assembly election 2021: বুদ্ধের ‘শ্মশানে‘ ‘শান্তি’র ভোট দেখাল নন্দীগ্রাম

west bengal assembly election 2021: বুদ্ধের ‘শ্মশানে‘ ‘শান্তি’র ভোট দেখাল নন্দীগ্রাম

রানা দাস, নন্দীগ্রাম:  দেড় দশক পরে ফের খবরের শিরোনামে উঠে এসেছে নন্দীগ্রাম। ২০০৭ থেকে ২০২১.. এই ১৪ বছরে অনেক কিছু দেখেছে হলদি নদীর তীরের মানুষ৷ নিজের ভিটেমাটি রক্ষা করতে গিয়ে তরতাজা ১৪টি প্রাণ হারাতে হয়েছে একই দিনে৷ ২০০৭ সালের ১৪ মার্চের আগে ৭ জানুয়ারি আরও চার  কিশোর-যুবককে শহিদ হতে হয়েছিল৷ তারপর সেই বছরের ১০ নভেম্বর আলিমুদ্দিন স্ট্রিটের ম্যানেজারদের অপারেশন সুর্যোদয়ে আরও বেশ কয়েকজনকে আরও খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না৷ এখনও তাদের স্ত্রীরা হাতে শাঁখা-কপালে সিঁদুর পরে অপেক্ষায় রয়েছেন৷ আশা একটাই… স্বামী ঘরে ফিরে আসবেন!

- Advertisement -

না! কারও স্বামী, কারও বাবা আবার কারও সন্তান এখনও ফিরে আসেনি৷ তবে এই ১৪ বছরে দুু’বার নতুন সরকার এসেছে৷ নন্দীগ্রামকে হাতিয়ার করে রাজ্য পরিবর্তনের সরকার এসেছে৷ জমি আন্দোলনের পর কার্যত ভুলে যাওয়া মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আবার নন্দীগ্রামে ফিরে এসেছেন৷ কারণ, এবার তিনি সেই কেন্দ্রের প্রার্থী হয়েছেন৷ বিপক্ষে নন্দীগ্রামের ‘ঘরের ছেলে’ শুভেন্দু অধিকারি প্রার্থী হয়েছেন৷ সেই কারণেই এবার নন্দীগ্রামের ভোট ছিল হাই ভোল্টেজ লড়াই৷

স্বাভাবিকভাবেই জমি আন্দোলন শুরুর দুই মাস আগে (২০০৬ সালের ১৯ নভেম্বর) থেকে আমার সঙ্গে নন্দীগ্রামের সম্পর্ক৷ তাই এবারের ভোটের উত্তাপ নিতে নন্দীগ্রাম আমাকে হাতজানি দিচ্ছিল৷ তাই একবার ফিরে এলাম নন্দীগ্রামে৷ ভোটের সেই উত্তাপ নিতে আমার দুই সহকর্মী সৌমেন শীল আর সুভাষ বৈদ্যকে নিয়ে কলকাতা থেকে ভোর তিনটের সময় রওনা দিয়েছিলাম নন্দীগ্রামের উদ্দেশ্যে৷ যখন পূর্ব মেদিনীপুরে পৌঁছেছি তখন চারপাশে ঘন কুয়াশা। সকাল ছ’টা বেজে গেলেও সেই কুয়াশা কাটেনি।

- Advertisement -

এবারই প্রথমবার নয়‘ আমি এর আগেও ২০০৮ সালে নন্দীগ্রামের মাটিতে পড়ে থেকে পঞ্চায়েত ভোটে কভার করেছি৷ তারপর ২০০৯ সালের লোকসভা ভোটেও সেখানে ছিলাম৷ নন্দীগ্রামের মাটি আর মানুষকে আমি খুব ভালো করেই চিনি এবং জানি৷ এখানে ভোট মানেই একটা বাড়তি উত্তাপ থাকে৷ যে কোন ভোট মানেই বোমা-গুলি, রক্তপাত, ছাপ্পা, বুথ জ্যাম একটা সমার্থক শব্দ৷ ভোটারদের বুথে যেতে না দেওয়াাই এখানকার রীতি৷ নন্দীগ্রাম নিয়ে একটা কথা আছে, বুথ যার, ভোট তার৷ আশাকরি পাঠকদের বুঝতে কোন অসুবিধা হচ্ছে না৷

আরও পড়ুন: west bengal assembly election 2021 দাদা না দিদি, আজ কাকে ‘এপ্রিল ফুল’ বানাবে নন্দীগ্রাম

ফিরে আসছি এবারের ভোট চিত্র নিয়ে৷ সকালে নন্দকুমারে পৌঁছে দেখলাম স্থানীয় কয়েকজন কান-গলা ঢাকতে মাফলার ব্যবহার করছে। সারা রাস্তায় তখনও ঘন কুঁয়াশা৷ জেলার কিছুই স্পষ্ট দেখা যাচ্ছে না৷ এপ্রিল মাসের দক্ষিণবঙ্গে এমন ছবি আগে দেখিনি। নন্দীগ্রাম নিয়ে রাজনৈতিক উত্তাপ ছিলই। আবহাওয়া দফতরের পূর্বাভাস ছিল যে বেশ গরম থাকবে। সেই কারণে ভোটারদেরকেও সতর্ক করে দেওয়া হয়েছিল। তবে সকাল সাতটা থেকে ধীরে ধীরে সেই ছবি বদলে যেতে শুরু করল। পাল্লা দিয়ে বাড়তে থাকল রোডের তাপ আর রাজনৈতিক উত্তাপ৷

- Advertisement -

আরও পড়ুন: west bengal assembly election 2021 গোপন ডেরায় বসে মমতার জয়ের ব্যবধান জানালেন তাহের

রাজনৈতিক উত্তাপ বৃদ্ধির কারণ অবশ্য হিংসা ছিল না। বিজেপি প্রার্থী শুভেন্দু অধিকারী ভোট দিয়ে বেরিয়ে এসে সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া বিবৃতিতে বিরোধী প্রার্থী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উদ্দেশ্যে আক্রমণ করেছিলেন৷ তবে শুভেন্দু যখন ভোট দিয়ে নিজের কার্যালয়ে ঢুকছেন তখন রেয়াপাড়ায় ভাড়া নেওয়া বাড়িতে রয়েছেন মমতা। বাইরে কখন আসবেন, তখনও তা কেউ জানতেন না। ফলে শুরুতেই পারস্পরিক আক্রমণ নিয়ে রাজনৈতিক উত্তাপ সেভাবে বাড়েনি। বাড়বে কী করে? কারণ নির্বাচন কমিশন নিযুক্ত আধাসেনা নন্দীগ্রামের চিরাচরিত ভোট ম্যানেজারদের গ্যারেজ করে দিয়েছিল৷ সেই কথাটাই শোনা গেল নন্দীগ্রামের এক গোপন ডেরায় বসে থাকা তৃণমূল কংগ্রেস নেতা তথা মমতার অন্যতম সৈনিক আবু তাহেরের গলায়৷

আরও পড়ুন: west bengal assembly election 2021 জিতলে সিকান্দার, হারলে বিশ্বাসঘাতক

আমগাছিয়ার একটি বুথে ইভিএম খারাপ হয়ে যাওয়ার খবর আসে ভোট শুরুর কিছু পরেই। সামসাবাদে তৃণমূল কর্মীদের ভোট দানে বাধা দেওয়া হয়। যদিও ওই দুই ঘটনা সামাল দিতে খুব বেশি সমস্যা হয়নি কমিশনের। আগের দিন ভেকুটিয়ায় একটি খুন ঘিরে আতঙ্ক ছড়িয়েছিল। সেখানের অনেকে ভোট দিতে যেতে নারাজ ছিলেন। যদিও বাহিনীর তৎপরতায় সেই ভয় কেটে যায় ভোটারদের।

শান্তিপূর্ণ ভোট করাতে সমগ্র নন্দীগ্রাম সিল করে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয় নির্বাচন কমিশন। সেই কারণে ওই বিধানসভা কেন্দ্রের প্রতিটি সীমান্তে ছিল নাকা চেকিং। উপযুক্ত পরিচয়পত্র ছাড়া কোনও ব্যক্তিকে নন্দীগ্রামে ঢুকতে দেওয়া হচ্ছিল না। ভাঙাবেড়া বা তেখালি ব্রিজে পেরিয়ে খেজুরির দিক থেকে অনেকেই প্রবেশের চেষ্টা করেছিল। যদিও কাউকেই সেই সুযোগ দেওয়া হয়নি। চণ্ডীপুর সীমান্তে ছাড় দেওয়া হয়েছিল কলকাতা থেকে যাওয়া সংবাদমাধ্যমের গাড়িগুলিকে।

দুপুরে নন্দীগ্রাম বিডিও অফিসের সামনে দুই মহিলা নিজেদের মধ্যে আলোচনা করতে করতে যাচ্ছিলেন, “এমন ভোট আগে কখনও হয়নি।” পাশের দোকানিও একই কথা বললেন। ময়না, কেশপুর বা অন্যত্র বিক্ষিপ্ত কিছু ঘটনা ঘটলেও নন্দীগ্রাম শান্তই ছিল। যদিও শিল্প না হওয়া নন্দীগ্রামকে শ্মশানের সঙ্গে তুলনা করেছিলেন প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য। যদিও শ্মশানের মতো নীরব নন্দীগ্রাম কখনই ছিল না। শিল্প না হওয়ার কারণে তো নয়ই।

তবে তৃণমূল জমানাতেও ওই এলাকার ভোটে উত্তেজনার খবর পাওয়া যেত। তালপাটি খাল সংলগ্ন এই গঞ্জের ভোট মানেই একটা সময় বোমা, গুলি কার্যত কম্পালসারি হয়ে উঠেছিল৷ বুথ জ্যাম, ছাপ্পা ভোটের মতো ঘটনাও ভোটের দিন দেখতে অভ্যস্ত এখানকার আমআদমি৷ বিকেলের দিকে বয়াল গ্রামে গিয়েছিলেন মমতা। যা নিয়ে স্থানীয়দের উন্মাদনা ছিল। পরে সেখানে যান শুভেন্দু। এই নিয়ে দুই পক্ষের নেতাদের মধ্যে কিছুটা বচসা হয়েছিল। তবে তা হাতাহাতি বা তার থেকে বড় পর্যায়ে যায়নি। তবে নন্দীগ্রামের ভোট নিয়ে আশঙ্কায় ছিলেন কমিশনের কর্তাব্যক্তিরাও৷ তাই অতীতের ‘তেমন কিছু’ আটকাতে কমিশনের তরফে তৎপরতায় ছিল না কোনও ঘাটতি৷ কিন্তু দিনের শেষে দেখা গেল, শান্তির ভোটই হল নন্দীগ্রামে৷ স্বভাবতই, স্বস্তির শ্বাস প্রশাসনের অন্দরে৷

বেলা বাড়তে সোনাচূড়ার কাছে এক জায়গা থেকে বোমাবাজির খবর আসে। ঘটনাস্থলে গিয়ে জানা যায় একটা শব্দবাজি ফাটানো হয়েছিল। ওই সোনাচূড়াতেই দুই সপ্তাহ আগে তৃণমূল-বিজেপি সংঘর্ষ হয়েছিল। মাথা ফাটিয়ে দেওয়া হয় তৃণমূলের এক নেতাকে। ওই এলাকার বুথগুলিতে ভোট হয়েছে নির্বিঘ্নে। নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা এক জওয়ান বললেন, “আমরা থাকতে কোনও সমস্যা হবে না। হতে দেব না।” আর সেই কথাটাই এদিন বয়ালে শুনতে পাওয়া গেল৷ সেখানে বাংলার ‘বর্তমান’ মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে মুখের উপর, কলার উঁচিয়ে এক আই পি এস অফিসার তথা সি আর পি এফ কর্তা বললেন, ‘এই  উর্দি নোংরা হতে দেব না’৷ কথা রেখেছেন সেই অফিসার এবং তাঁর বাহিনী৷ সেটা স্পষ্ট হল ভোট শেষে৷ শ্মশানেও শান্তিতে ভোট করাল নন্দীগ্রাম!

- Advertisement -

সপ্তাহের সবচেয়ে জনপ্রিয় সংবাদ

দুর্ঘটনার কবলে ‘খড়কুটো’-র চিনি ওরফে প্রিয়াঙ্কা

কলকাতা: স্টার জলসার জনপ্রিয় ধারাবাহিক খড়কুটো নিয়ে এখন বেশ দুশ্চিন্তায় অনুরাগীরা। কারণ সকলের প্রিয় ভজনবাবু। সম্প্রতি মুখোপাধ্যায় পরিবারের সকলের কাছে খুব অপমানিত হয়েছেন ভজন...

বাংলাকে কোনওমতেই আগের কাশ্মীরের অবস্থায় চলে যেতে দেওয়া যাবে না: অনির্বাণ

খাসখবর ডেস্ক: বিস্ময়কর, ভয়ঙ্কর, অভাবনীয়..৷ বোলপুরের ইলামবাজারে গাড়ির পিছনে সংখ্যালঘু ঘরের বাচ্চাদের তাড়া করার ফুটেজ দেখে শিউরে ওঠেন খোদ বিজেপি প্রার্থী অনির্বাণ গঙ্গোপাধ্যায়৷ পশ্চিমবঙ্গের...

‘আমি কোনও অঙ্গনা-কঙ্গনা নই’, এসকর্ট বলা সমালোচকদের জবাব শ্রীলেখার

খাস খবর ডেস্ক: 'আমি কোনও অঙ্গনা কঙ্গনা নই। আর বেশি কিছু বললাম না।' সাফ জানিয়ে দিলেন অভিনেত্রী শ্রীলেখা মিত্র। নিয়ম লঙ্ঘনের অভিযোগে বলিউড অভিনেত্রী...

দিলীপই সোনার বাংলার সম্ভাব্য মুখ্যমন্ত্রী, বৈঠকে মোদী-নাড্ডা

খাস খবর ডেস্ক: তাঁর নেতৃত্ব বাংলার মাটিতে প্রথমবার ভালো ফল করতে পেরেছিল দল। সেই ব্যক্তির নেতৃত্বের উপরে ভরসা করেই বিধানসভা নির্বাচনের গুটি সাজানো হয়েছিল।...

খবর এই মুহূর্তে

তৃণমূলের সন্ত্রাস থেকে বাঁচতে উত্তরবঙ্গে পৃথক রাজ্যের দাবি জঙ্গি সংগঠনের

খাস খবর ডেস্ক: ভোট পরবর্তী হিংসায় উত্তপ্ত হয়েছে সমগ্র রাজ্য। দক্ষিণের তুলনায় উত্তরবঙ্গে খারাপ ফল করেছে তৃণমূল। সমগ্র রাজ্যের শাসনভার হাতে পাওয়ার কারণে উত্তরের...

Breaking News:করোনা পরিস্থিতি পর্যালোচনায় একাধিক রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে কথা মোদীর, ব্রাত্য মমতা

নয়াদিল্লি: করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে বেসামাল ভারত। যত দিন যাচ্ছে দেশে করোনা সংক্রমণ ততই লাগামছাড়া হয়ে উঠছে।দৈনিক সংক্রমণ ইতিমধ্যেই ৪ লক্ষ ছাড়িয়ে গিয়েছে। এই পরিস্থিতিতে...

মমতার হারে ‘লক্ষ্মীছাড়া’ নন্দীগ্রাম

সৌমেন শীল: সদ্য শেষ হয়েছে বিধানসভা নির্বাচন। মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে তৃতীয়বারের জন্য শপথ নিয়েছেন তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এ বারের সাফল্য ছাপিয়ে গত দুই বারের...

যুবকের মৃতদেহ উদ্ধার ঘিরে চাঞ্চল্য

নিজস্ব প্রতিনিধি, পূর্ব মেদিনীপুর: ফিশারির পালাঘর সংলগ্ন এলাকা থেকে এক যুবকের মৃতদেহ উদ্ধার ঘিরে চাঞ্চল্য ছড়াল। অচৈতন্য অবস্থায় ওই যুবককে উদ্ধার করে কাঁথি হাসপাতালে...