মমতার ডিগ্রিটাই জাল, বিস্ফোরক দাবি সুজনের

0
106
Sujan Chakraborty

কাঁথি: বিদ্যাসাগরের পোড়া বাংলার শিক্ষাঙ্গন কালিমালিপ্ত৷ মন্ত্রী থেকে দাপুটে আধিকারিক সিবিআইয়ের ‘জালে’ খাবি খাচ্ছেন অনেকেই৷ এবার খোদ মুখ্যমন্ত্রীর সার্টিফিকেটই জাল বলে দাবি করলেন সিপিএম নেতা সুজন চক্রবর্তী৷ তবে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ঠিক কোন সার্টিফিকেট জাল, তা অবশ্য স্পষ্ট করেননি সুজন৷ জুম্মাবারে পূর্ব মেদিনীপুর জেলা সিপিএম কার্যালয়ে এক দলীয় কর্মসূচিতে যোগ দিতে এসেছিলেন সিপিএমের দাপুটে নেতা৷ সেখানেই রাজ্যের শাসকদল ও তাঁর নেত্রীকে চাঁছাছোলা ভাষায় আক্রমণ করেন তিনি।

এদিন দলীয় কর্মসূচির ফাঁকে ‘খাসখবর’কে সুজন দাবি করেন, ‘‘রাজ্যের জাল চক্র শুরুই করেছেন স্বয়ং মুখ্যমন্ত্রী। ওনার ডিগ্রিটাই তো জালি! এই মুখ্যমন্ত্রীর নেতৃত্বে পশ্চিমবাংলায় জাল কারবারের রমরমা চলার আদর্শ জায়গা।’’ ৪৫ দিন পর নিজ ভূমে ফিরেছেন অনুব্রত৷ সেউ প্রসঙ্গ টেনে সুজনের টিপ্পনি, ‘‘ওনার মাথায় অক্সিজেন কম যায়! কিন্তু মঙ্গল কামনায় দেড় কুইন্টাল বেল কাঠ পোড়ান যজ্ঞতে। তিন টিন ঘি পুড়িয়েছেন৷ কিন্তু কি লাভ হল, ছাড় তো পেল না কিছু!’’

কটাক্ষ ছুঁড়ে দিয়েছেন রাজ্যের প্রাক্তন শিক্ষামন্ত্রীর উদ্দেশ্যে৷ বলেছেন, ‘‘পার্থবাবু কেমন মন্ত্রী, যে উনি কমিটি করলেন তার কমিটির মাথা তৎকালীন শিক্ষামন্ত্রী হওয়া সত্ত্বেও কমিটির লোক কথা শুনল না ওনার। ওনার অনেক টাকা, টাকা রেখেছেন বলেই সেই সব টাকা খরচ করে সুপ্রিম কোর্টে যাচ্ছেন পার্থবাবু।’’ দাবি করেছেন, ‘‘পশ্চিম বাংলার এসএসসি নিয়ে রাজ্য সরকার নিয়োগ প্রক্রিয়া অবিলম্বে চালু করুক। আজই সরকারি কর্মীদের বকেয়া মহার্ঘ্য ভাতা অবিল্বমে চালু করুক সরকার। নিয়োগ শুরু হোক সরকারি কর্মীদের শূন্য পদে।’’

খানিক থেমে বোমা ফাটিয়েছেন সুজন, ‘‘সবে শুরু, বাংলার তৃণমূলের ১৭-১৮জন নেতা মন্ত্রী সিবিআই নজরে। তবে দিদিমনি চাইছেন দিল্লিকে দিয়ে সিবিআই ম্যানেজ করতে! তা মাঝে মাঝে হচ্ছে, আবার কখনও হচ্ছে না।’’ জঙ্গলমহল থেকে মুখ্যমন্ত্রী দাবি করেছিলেন, ‘‘বাম আমলে চিরকুটে চাকরি হত৷’’ এদিন মমতার সেই বক্তব্যকে চ্যালেঞ্জ করে সুজন বলেন, ‘‘বাম আমলে চিরকুটে কাজ হত এমন তথ্য মুখ্যমন্ত্রী কমিশন করে প্রমান করুন। অনেক কমিশন করেছেন, কিন্তু তাতে লাভ কিছু হয়নি৷ কোনও দুর্নীতি সামনে আসেনি।’’

আরও পড়ুন: পার্থর নির্দেশে বদলে গেল মিছিলের স্লোগান