30 C
Kolkata
Saturday, April 17, 2021
Home খাস পলিটিক্স মোদী-ম্যাজিকেই একুশের বঙ্গ ভোটে বাজিমাতের স্বপ্ন দেখছেন দিদিমণি

মোদী-ম্যাজিকেই একুশের বঙ্গ ভোটে বাজিমাতের স্বপ্ন দেখছেন দিদিমণি

সুমন বটব্যাল ও সৌমেন শীল: রাজনীতির আঙিনায় তাঁরা পরস্পরের প্রতিপক্ষ৷ কিন্তু একুশের ভোটে মমতার প্রকাশিত প্রার্থী তালিকায় কোথাও যেন সেই মোদী-ছায়ায় দেখতে পাচ্ছেন রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা৷ এক ধাপ এগিয়ে ঠাট্টার সুরে কেউ কেউ বলছেন, বিপদে সেই মোদীর পথই শরণ করতে হল দিদিমণিকে!

- Advertisement -

আরও পড়ুন- ভোটের প্রচারে কালী, কেউ বা শরণাপন্ন দেবাদিদেবের

রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের দাবি, ইতিহাস অন্তত তেমনটাই বলছে৷ পুরনো বিধায়কদের একাংশকে প্রার্থী না করে ২০০১ সালে গুজরাতে সাফল্য পেয়েছিলেন নরেন্দ্র মোদী। একই ধারা বজায় রেখেছিলেন ২০০৭ ও ২০১২ সালের নির্বাচনেও৷ যথাক্রমে ৪৭ জন ও ৩০ জন বিধায়ককে টিকিট দেননি। ফলস্বরুপ, ভোটে প্রভাব ছিল পজেটিভ৷ মোদীতে আস্থা রেখেছিলেন গুজরাতবাসী৷ ভোট বেড়েছিল গেরুয়া শিবিরের৷

- Advertisement -

আরও পড়ুন- ‘বহিরাগত’ সায়নীতে অসন্তোষ পান্ডবেশ্বরে

রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের অভিমত, নির্বাচিত বিধায়ককে টিকিট না দিলে ভোটে তাঁর কু-প্রভাব পড়তে পারে, প্রচলিত এই ধারণাকে ভেঙে দিয়েছিলেন নরেন্দ্র দামোদর৷ বরং উলটে পথে হেঁটে তিনি প্রমাণ করে দিয়েছিলেন, সরকার বা শাসকদলের বিরুদ্ধে সাধারণ মানুষের যতটা রাগ থাকে, তাঁর থেকে অনেক বেশি ক্ষোভ থাকে স্থানীয় বিধায়ক বা নেতৃত্বের উপরে। ফলে নিস্ক্রিয় বিধায়ককে প্রার্থী না করে জনমানসে এই বার্তা দেওয়া যায় যে, মানুষের হয়ে কাজ না করলে দল তাঁকে বরদাস্ত করবে না৷

- Advertisement -

রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের মতে, গুজরাতে বিজেপির সাফল্যের পিছনে উন্নয়নের পাশাপাশি এটাও ছিল মোদীর অন্যতম ম্যাজিক৷ পরিসংখ্যান বলছে দ্বিতীয় দফায় মুখ্যমন্ত্রী হওয়ার সময়ে যে ৪৭ জন বিধায়ককে মোদী টিকিট দেননি, তাঁরা অনেকেই কংগ্রেসে যোগ দিয়ে প্রার্থী হয়েছিলেন। কিন্তু জিততে পারেননি। একই ফর্মুলায় তৃতীয়বারের জন্য মুখ্যমন্ত্রী হয়েছিলেন নরেন্দ্র মোদী।

আরও পড়ুন- কেষ্টপুরে উদ্ধার তাজা বোমা, অভিযুক্ত তৃণমূল

‘জহর’ চিনতে ভুল করেননি সংঘের নেতৃত্বরা৷ রাতারাতি ডেস্টিনি বদলে যায় নরেন্দ্রর৷ মুখ্যমন্ত্রী থেকে সরাসরি প্রধানমন্ত্রী থুড়ি সারাদেশের বিজেপির মুখ হয়ে উঠেছিলেন তিনি এবং এখনও সেই ধারা অব্যহত৷ রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকদের মতে, একুশের বঙ্গ ভোটের দিকে তাকালে দেখা যাবে, একদিকে বঙ্গে গেরুয়া দাপাদাপি অন্যদিকে ঘরভাঙা হতচ্ছাড়া দশার মাঝেও এক ধাক্কায় ৬৪ জন বিধায়ককে কার্যত ‘রিসাইন লেটার’ ধরাতে কম্পিত হননি দলনেত্রী৷ বরং প্রার্থী তালিকা চূড়ান্ত করার বিষয়ে এবারে অত্যন্ত কঠিন পদক্ষেপই নিয়েছেন তিনি৷ সুপারিশের পরিবর্তে অগ্রাধিকার পেয়েছে প্রার্থীর যোগ্যতা, ‘স্বচ্ছ ভাবমূর্তি’, জনপ্রিয়তা এবং কর্মদক্ষতার বিষয়টি৷ তথ্য নিয়েছেন ভৌট-কৌশলী প্রশান্ত কিশোরের সংস্থার কাছ থেকেও।

আরও পড়ুন- ১৫০ রোহিঙ্গা মুসলমানকে ফেরত পাঠাবে ভারত

দলীয় সূত্রের খবর: প্রার্থী তালিকা বাছাইয়ের ক্ষেত্রে মন্ত্রী থেকে পুরনো দিনের একাধিক সহকর্মী, কারও নামই বাতিল করতে দ্বিধা করেননি নেত্রী৷ কে নেই সেই তালিকায়? সোনালি গুহ, স্মিতা বক্সি, দীপেন্দু বিশ্বাসেরা তো বটেই খারাপ পারফরম্যান্সের কারণে বাদ পড়েছেন দুই দাপুটে মন্ত্রীও৷ অসুস্থতা ও বয়সের কারণেও বাদ পড়েছেন কয়েকজন৷ জীবনযাপন নিয়ে এলাকায় একাধিক অভিযোগ রয়েছে এমন দাপুটে নেতাদেরও রেয়াত করা হয়নি৷ সেই তালিকায় রয়েছেন আরাবুলের মতো ভাঙড়ের দাপুটে নেতাও৷ অন্য কেন্দ্রে দাঁড়ানোর আবদার রেখেছিলেন অভিনেত্রী তথা রায়দিঘির বিধায়ক দেবশ্রী রায়৷ কোনও ‘এক্সকিউজ’ শুনতে চাননি মমতা৷

আরও পড়ুন- আগামী পাঁচ বছরের জন্য মমতাকে বিরোধী দল করে রেখে দেব: দিলীপ

রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের মতে, ‘‘ক্লাসের কঠোর দিদিমণির মতোই প্রার্থী নির্বাচনের ক্ষেত্রে নিরপেক্ষ থাকার চেষ্টা করেছেন মমতা৷ তার নিট ফল এক ধাক্কায় ৬৪ জন বিধায়ককে কোপে পড়তে হয়েছে৷’’ বার্তা দেওয়ার চেষ্টা হয়েছে: মানুষের হয়ে কাজ না করলে তৃণমূলে কোনও স্থান নেই৷ বরং পুরনোদের সরিয়ে এক ঝাঁক নতুন মুখ এনে স্পষ্ট বার্তা তুলে ধরা হয়েছে: তরুণ প্রজন্মকে স্বাগত৷

আরও পড়ুন- টিকিট না পেয়ে মোদীর উপর রাগে বিজেপি ছাড়লেন মন্ত্রী

মমতা না মোদী, কার হাতে থাকবে বাংলা, সেটা জানতে ২ মে পর্যন্ত অপেক্ষা করতেই হবে৷ তবে ভোটের আগে মমতা দলের প্রার্থী তালিকা নির্বাচনে যেভাবে নিশব্দ বিপ্লব ঘটিয়েছেন তাতে মোদী ম্যাজিকেরই ছায়া দেখছেন রাজ্যের রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা৷ এপথেই যে সাফল্য এসেছিল গুজরাতে!

- Advertisement -

সপ্তাহের সবচেয়ে জনপ্রিয় সংবাদ

স্বামী মেয়ে ছেলেকে নিয়ে পাহাড়ে ঘুরে এলেন জোজো

অর্পিতা দাস: গত বছর থেকেই জোজোর জীবনে এসেছেন তাঁর ছোট্ট ছেলে আদিপ্ত। তাই এখন জীবনটা অনেকটাই বদলে গেছে জোজোর জন্য। কাজ ছাড়াও নিজেকে এবং...

নাবালকের সঙ্গে যৌনতায় লিপ্ত হয়ে শ্রীঘরে তিন সন্তানের মা

খাস খবর ডেস্ক: প্রায় সাত-আট বছরের দাম্পত্য জীবনে জন্ম দিয়েছেন তিন সন্তানের। তারপরেও কম বয়সী ছেলের শরীর দেখে নিজেকে সামলাতে পারেনি। সোশ্যাল মিডিয়ায় আলাপ...

শীতলকুচি কাণ্ড : বিজেপি নেতাদের জেলে ঢোকান, পাশে আছি: মমতাকে বার্তা অধীরের

বালুরঘাট: শীতলকুচির ঘটনায় এবার প্রকাশ্যেই তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের পাশে দাঁড়ালেন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীররঞ্জন চৌধুরী৷ জানিয়ে দিলেন, শীতলকুচির ঘটনায় কুকথা বলা বিজেপি নেতাদের...

শীতলকুচি যাবেন দিলীপ ঘোষ, নিহতদের ক্ষতিপূরণ দেওয়া নিয়ে কটাক্ষ রাজ্যকে

পলাশ নস্কর, দমদম: শীতলকুচির (Sitalkuchi) ঘটনা নিয়ে উত্তপ্ত বঙ্গ রাজনীতি৷ চলছে দোষারোপ ও পাল্টা দোষারোপের পালা৷ ঘটনার দায় বিজেপি ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের (Amit...

খবর এই মুহূর্তে

পশুখাদ্য কেলেঙ্কারির অন্তিম মামলায় জামিন, জেল থেকে বাড়ি ফিরবেন লালু

রাঁচি: অবশেষে জেল থেকে ছাড়া পাচ্ছেন আরজেডি নেতা লালু প্রসাদ যাদব (Lalu Prasad Yadav)৷ পশুখাদ্য কেলেঙ্কারির শেষ মামলায় জামিন পেলেন তিনি৷ শনিবার ঝাড়খণ্ড হাইকোর্ট...

West Bengal Assembly Election 2021: শীতলকুচির অডিও ক্লিপ নিয়ে মমতার বিরুদ্ধে কমিশনে অভিযোগ বিজেপির

খাসখবর ডেস্ক: প্রথমের পর ফের পঞ্চম দফায়৷ ২৭ মার্চ বাংলায় শুরু হয়েছিল একুশের বিধানসভা নির্বাচন৷ আর প্রথম ভোটের দিন সকালেই ফাঁস হয়েছিল নন্দীগ্রামের তৃণমূল...

west bengal assembly election 2021: পঞ্চম দফায় প্রার্থীর নিরিখে গেরুয়া শিবিরকে টেক্কা ঘাসফুলের

কলকাতা: শেষ হাসি কে হাসবেন তা অবশ্য জানা যাবে ২ তারিখ৷ তবে পঞ্চম দফা ভোটে খ্যাতনামা প্রার্থীর নিরিখে গেরুয়া শিবিরকে বেশ খানিকটা পিছনে ফেলে...

হিংসার মাধ্যমে রাজনীতি সম্ভব নয়: গুরুং

খাস খবর ডেস্ক: বাংলার মুকুট বলে পরিচিত দার্জিলিং-এ হিংসা ছড়ানোর গুচ্ছ গুচ্ছ অভিযোগ রয়েছে তাঁর বিরুদ্ধে। রাজ্য পুলিশের কর্মী অমিতাভ মালিককে খুনের অভিযোগও রয়েছে...