হাটে হাঁড়ি ভাঙতে আসছেন মমতা, তটস্থ আমলা থেকে নেতারা

0
103

কলকাতা: হাতে মাত্র আর আট দিন৷ তারপরই জেলায় পা রাখবেন ম্যাডাম৷ স্বভাবতই, ত্রস্ত জেলা প্রশাসনের আমলা থেকে দলের নেতারা৷ কারণ, সবই যে ওনার নখদর্পণে৷ কখন কি জিজ্ঞেস করে বসেন, তা ভেবেই এয়ার কন্ডিশন ঘরে বসেও কুলকুল করে ঘেমে উঠছেন আমলারা৷ তথৈবচ হাল জেলার নেতাদেরও৷

কারণ, উন্নয়নের প্রশ্নে তিনি যে কাউকেই রেয়াত করেন না সেটা বারে বারে স্পষ্ট করেছেন৷ একেবারে হাটে হাঁড়ি ভাঙার স্টাইলে প্রশাসনিক বৈঠকেই চেয়ে বসেছেন কৈফিয়ত৷ যার ফলে বারে বারে আমলা থেকে জন প্রতিনিধিকে হতে হয়েছে অপদস্থ৷ সম্প্রতি মেদিনীপুর ও ঝাড়গ্রামের প্রশাসনিক বৈঠক থেকে সেটা আরও একবার স্পষ্ট করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ স্বভাবতই, মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের জেলা সফরকে ঘিরে তটস্থ আমলা থেকে নেতার দল৷

ক’দিন আগেই জঙ্গলমহলের দুই জেলা মেদিনীপুর ও ঝাড়গ্রাম থেকে ঘুরে গিয়েছেন তিনি৷ এবার বাঁকুড়া ও পুরুলিয়া৷ বিধানসভা ভোটের পরে এই প্রথম জঙ্গলমহলের দুই জেলায় আসছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ৩১ মে পুরুলিয়া এবং ১জুন বাঁকুড়া৷ স্বভাবতই আমলারা যেমন ফাইল আপডেট করতে ব্যস্ত তেমনই দুই জেলার নেতারা ব্যস্ত নিজেদের খানাখন্দ ভরাট করতে৷ আইন শৃঙ্খলার প্রশ্নে ঝাড় খাওয়ার ভয়ে কাঁটা হয়ে রয়েছেন পুলিশ, প্রশাসনের একাংশ আধিকারিকেরা৷

সম্প্রতি দুই জেলার একাংশে, বিশেষত জঙ্গল ঘেঁষা এলাকায় মাওবাদী পোস্টারের সন্ধান মিলেছে৷ স্বভাবতই বৈঠকে মাও পোস্টারের প্রসঙ্গটি উঠতে পারে বলেই মনে করা হচ্ছে৷ মাও পোস্টারের নেপথ্যে সংশ্লিষ্ট এলাকার উন্নয়নে ঘাটতি, দলীয় কোন্দলের বিষয়টিও সামনে আসছে৷ সম্প্রতি জেলায় বেড়েছে চুরি, ছিনতাইয়ের ঘটনাও। প্রশ্ন উঠছে জেলা পরিষদের কাজকর্ম নিয়েও। এক দিকে বেহিসেবি খরচ বাড়ছে। অন্য দিকে উন্নয়নের জন্য রাজ্য থেকে আসা টাকাও ফেরত যাচ্ছে।

স্বভাবতই, এসব বিষয়কে ঘিরেই দুই জেলার প্রশাসন ও আমলাদের অন্দরে চলছে শেষ মুহুর্তের প্রস্তুতি৷ বাঁকুড়ার এক পদস্থ আমলার কথায়, ‘‘সবকিছুই তো ম্যাডামের নখদর্পণে থাকে৷ এদিকে কাজ করতে গেলে তো ভুল হবেই৷ তাই ওনার আগমনকে ঘিরে একটু তো টেনশন থাকবেই৷’’ একই কথা শুনিয়েছেন দলের পুরুলিয়ার এক বিধায়ক৷ তিনি বলছেন, ‘‘দিদির চোখকে ফাঁকি দেওয়া সত্যিই দুষ্কর৷ তাই ঝাড় খাওয়ার জন্য তৈরি হচ্ছি৷

আরও পড়ুন: শুভেন্দুও কি তৃণমূলের পথে, জ্যোতিপ্রিয়র মন্তব্যে বাড়ছে জল্পনা