শুভেন্দুর মানহানির মামলায় আদালতে আত্মসমর্পণ কুণাল ঘোষের

0
47

কাঁথি: শুভেন্দু অধিকারীকে রাজনৈতিক বেজন্মা বলার মামলায় আদালতে আত্মসমর্পণ করলেন তৃণমূল কংগ্রেসের মুখপাত্র কুনাল ঘোষ৷ আইনজীবীর আবেদনের ভিত্তিতে বিচারক তাঁর জামিন মঞ্জুর করেন৷ মঙ্গলবার কাঁথি আদালতের জুডিশিয়াল দ্বিতীয় আদালতের বিচারক শিভম মিশ্রর এজলাসে আত্মসমর্পণ করেন কুণাল। বস্তুত, এদিন কুণাল ঘোষের হাজিরাকে কেন্দ্র করে কাঁথি আদালতে নিশ্চিদ্র নিরাপত্তার বন্দোবস্ত করা হয়েছিল৷

আদালত থেকে বেরিয়ে তৃণমূল কংগ্রেসের মুখপাত্র কুনাল ঘোষ বলেন, “নন্দীগ্রামে তৃণমূল কংগ্রেসের সভা থেকে আমি শুভেন্দুকে রাজনৈতিক আক্রমণ করেছিলাম। ওই ঘটনায় এদিন বিচারক আমার জামিন মঞ্জুর করেছেন।’’ একই সঙ্গে শুভেন্দুর ভাই সৌমেন্দুর উদ্দেশ্যে ব্যঙ্গের সুরে কুণাল বলেন, ‘‘এদের মামলা করার শখ আছে, কিন্তু নোটিস দিতে জানে না। এরা দিল্লির একটি গেস্ট হাউসে নোটিস পাঠিয়েছে। তবু আমি চাই, এই মামলায় লড়তে৷ তাই এসেছি৷’’

- Advertisement -

২০২১ সালের ১০ নভেম্বর নভেম্বর নন্দীগ্রামের জনসভা থেকে রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারীর উদ্দেশ্যে কুনাল বলেছিলেন, ‘‘নন্দীগ্রাম বাঁচাও ! গাদ্দার হটাও ! মিরজাফর হটাও ! বিভীষণ হটাও, জন্মের ঠিক আছে ওর ?? তোমাকে তোমার গোটা গুষ্টিকে জন্ম দিয়েছে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ! তুমি বেইমান, তুমি গদ্দার, তুমি রাজনৈতিক বেজন্মা!’’

একদিন পর ১১ নভেম্বর শুভেন্দু অধিকারীর ভাই সৌমেন্দু অধিকারী আইনজীবী মারফত কাঁথি আদালতে কুণালের বিরুদ্ধে মানহানির মামলা দায়ের করেন। সেই মামলার পরিপ্রেক্ষিতে মঙ্গলবার কাঁথি আদালতে আত্মসমর্পণ করেন কুনাল ঘোষ। বস্তুত, এর আগে সোমবার রাতেও কাঁথির নির্বাচনী প্রচার থেকে কুণাল দাবি করেছেন, ‘‘শুভেন্দু রাজনৈতিক বেজন্মা, প্রয়োজন হলে ১০০বার আমি সেটাই বলব৷ কারণ, যা বলেছি, সত্য বলেছি৷’’

আরও পড়ুন: শুভেন্দু একটু অ্যাবনরম্যাল, বিস্ফোরক দাবি কুণাল ঘোষের