জেল ফেরৎ Kunal Ghosh ‘কার’, প্রশ্ন তৃণমূলেই

0
54
kunal ghosh
ফাইল ছবি

সুমন বটব্যাল, কলকাতা: রাহুল সিনহা কি ১৬ আনা সত্যি কথাটাই বলেছিলেন! পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের জেলের ‘আপ্যায়ন’ নিয়ে শুরু থেকেই ছক্কা হাঁকাচ্ছেন কুণাল (Kunal Ghosh)৷ এমনকি দলের তরফে ‘সেন্সর’ করার পরও তিনি যেভাবে ‘১৯২৯ সাল থেকে চলতে থাকা অ্যান্টিসেপটিক পারফিউম ক্রিম বোরোলিনে’র প্রসঙ্গ টেনে এনেছেন, তাতে রাহুলের দাবি ঘিরে নতুন করে চর্চ্চা শুরু হয়েছে তৃণমূলের অন্দরেই৷

রাহুল ঠিক কি বলেছিলেন, সেটা জানতে হলে ফিরতে হবে ফ্ল্যাশব্যাকে৷ ‘দলের মধ্যেই রয়েছে তৃণমূলের কয়েকজন চর৷’ জুনের শুরুতে দলের অন্দরে এমন বিস্ফোরক মন্তব্য করতে দেখা গিয়েছিল বিজেপি সাংসদ জগন্নাথ সরকারকে৷ যার জবাবে সেই সময় তৃণমূলের মুখপাত্র কুণাল ঘোষ দাবি করেছিলেন, ‘‘চরের দরকার নেই৷ আমরা দরজা খুললে বিজেপির এরাজ্যের বাকি সাংসদ, বিধায়কদের ৮০ শতাংশ তৃণমূলে চলে আসবেন৷’’
যার জবাবে গত ৯ জুন সাংবাদিক বৈঠক ডেকে বিজেপির এরাজ্যের প্রাক্তন রাজ্য সভাপতি, বর্তমানে কেন্দ্রীয় নেতা রাহুল সিনহা দাবি করেছিলেন, ‘‘কুণালকে আমরাই চর হিসেবে তৃণমূলে রেখেছি৷ ওই-ই তো আমাদের যাবতীয় ভেতরের খবরাখবর দেয়!’’ কেন একথা বলছেন, তার স্বপক্ষে রাহুলের ব্যাখ্যা ছিল, ‘‘মনে রাখবেন, এই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের জন্যই কুণাল ঘোষকে জেল খাটতে হয়েছিল৷ ফলে মমতার ওপর কারও সবচেয়ে বেশি রাগ থাকলে, তার নাম কুণাল ঘোষ৷’’

- Advertisement -

বস্তুত, পার্থ ইস্যুতে কুণালকে খোলামেলা বলতে শোনা গিয়েছে, সারদাকাণ্ডে জেলে পাঠাতে তাঁর বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করেছিলেন পার্থ। এমনকী যারা যারা তাঁর বিরুদ্ধে সেই সময় ষড়যন্ত্রে সামিল হয়েছিলেন, তাঁদের অবস্থাও পার্থরই মতো হবে৷ কটাক্ষের সুরে বলতে শোনা গিয়েছে, ‘‘পার্থ চট্টোপাধ্যায় জেলে ঢুকে দেখুন কেমন লাগে!’’ প্রকাশ্যে দাঁড় করিয়েছেন জোরাল দাবি, ‘‘আমি যেমন বন্দিজীবন কাটিয়েছি, পার্থর ক্ষেত্রেও যেন তেমনই হয়!’’

স্বভাবতই, দলের অন্দরে চর্চ্চা শুরু হয়েছে কুণাল ঘোষকে নিয়ে৷ সাংবাদিক থেকে রাজনৈতিক নেতা হয়ে ওঠা এবং জেল-জীবন৷ যার দৌলতে কুণাল (Kunal Ghosh) এখন ‘অকুতোভয়’ হয়ে উঠেছেন বলেই মনে করছেন দলের একাংশ৷ তাঁদের কথায়, হতেও তো পারে৷ মোদী-শাহের ঘনিষ্ট বৃত্তে থাকা বাবুল সুপ্রিয় যখন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সৈনিক হতে পারেন তখন কোনও কিছুই অসম্ভব নয়৷ তার ওপর পার্থ ইস্যুতে কুণালের একের পর এক মন্তব্য, যা দলকে অস্বস্তিতে ফেলার জন্য যথেষ্ঠ বলেই মত নেতৃত্বর৷ স্বভাবতই, পার্থ ইস্যুতে এবার ঘরের অন্দরেই আতস কাচের নিচে কুণাল৷ যদিও এই বিষয়ে সাংবাদিক-নেতার কোনও প্রতিক্রিয়া মেলেনি৷ যেমন নিজের অতীতের দাবি নিয়ে কোনও প্রতিক্রিয়া মেলেনি রাহুল সিনহারও৷ স্বভাবতই, ‘কে কার লোক’ তা নিয়ে রাজ্য রাজনীতির উঠোনে বাড়ছে সন্দেহের পারদ৷

আরও পড়ুন: পার্থ দলেরই ‘সম্পদ’, কুণালকে ‘সেন্সর’ করে কি এই বার্তায় দিল তৃণমূল