19 C
Kolkata
Saturday, January 29, 2022
Home খাস খবর ‘পেনশনের টাকায় সুখে শান্তিতে থাকতেই পারতাম, কিন্তু সেটা করতে পারিনি, ওই জীবনানন্দের...

‘পেনশনের টাকায় সুখে শান্তিতে থাকতেই পারতাম, কিন্তু সেটা করতে পারিনি, ওই জীবনানন্দের জন্য’

‘‘এখানে উন্নয়নের অনেক কথা শোনা যায়, কিন্তু আলোচনা ছাড়াই বাজেট পেশ হয়ে যায়!’’

সুমন বটব্যাল, কলকাতা: উলোট পুরাণ! এই বিধায়ক নিজের বেতন বাড়ানোর কথা বলেন না৷ বরং, সরকারের কাছ থেকে পাওয়া সাম্মানিকের যোগ্য পারিশ্রমিক ফিরিয়ে দিতে চান৷

- Advertisement -

এই বিধায়ক বয়সে প্রবীণ হলেও মনের দিক থেকে তরতাজা৷ তাই বুড়ো হাড়েও নিজের বিধানসভা এলাকার গ্রাম থেকে গ্রামান্তর, গলি তস্য গলির ভিতরে নির্দ্ধিধায় পৌঁছে যেতে পারেন৷ লোকমুখে নয়, মানুষের কথা ‘মানুষের মুখ’ থেকেই শোনেন৷

এই বিধায়ক গঠনমূলক সমালোচনায় বিশ্বাসী৷ জীবনের চার দশক দেশের অর্থমন্ত্রকের গুরদায়িত্ব সামলেছেন৷ তবু জীবন সায়াহ্নে পৌঁছে যেন বারে বারে হোঁচট খেতে হচ্ছে তাঁকে৷ তাই অকপটে নিজের হতাশা প্রকাশ করতে দ্বিধা করেন না৷

- Advertisement -

ভরা সাংবাদিক বৈঠকে অকপটে বলতে পারেন, ‘‘তোমরা সকলেই আমার থেকে বয়সে ছোট৷ তবু বলতে বাধ্য হচ্ছি, বিশ্বাস করুন, কাজ করতে এসে এভাবে হতাশ হব, সত্যিই ভাবিনি৷’’

অকুস্থল, বিজেপির রাজ্য সদর দফতর৷ বক্তার নাম- ড: অশোক লাহিড়ি৷ বিশিষ্ট অর্থনীতিবিদ এবং বালুরঘাটের বিজেপি বিধায়ক৷ মঞ্চে তাঁর পাশে বসে থাকা শমীক ভট্টাচার্য এবং প্রাক্তন সাংসদ দীনেশ ত্রিবেদী নিজেদের দিকে মুখ চাওয়া চাওয়ি করছেন৷ অশোকবাবু বলেন কি! বিধায়ক নাগাড়ে বলে চলেন, ‘‘সারা জীবন মাথা উঁচু করে চাকরি করেছি। কখনও নিজের দায়িত্ব পালনে গাফিলতি করিনি এবং কাউকে করতেও দিইনি। এই প্রথম হতাশা লাগছে। সত্যি, খুব খারাপ লাগছে৷ কারণ, মাইনে পাচ্ছি অথচ কাজ করতে পারছি না!’’

খানিক থেমে ডুব দেন স্মৃতির পাঠাগারে, ‘‘কর্মসূত্রে ৭১ সালে বাংলা থেকে পরিযায়ী হয়েছিলাম৷ চাকরি থেকে অবসরের পর পেনশনের টাকায় সুখে শান্তিতে থাকতেই পারতাম৷ কিন্তু সেটা করতে পারিনি, ওই জীবনানন্দের জন্য!’’
আবার আসিব ফিরে ধানসিঁড়িটির তীরে-এই বাংলায় হয়তো মানুষ নয়… আউড়ে আদ্যন্ত অর্থনীতিবিদ অশোক লাহিড়ির কন্ঠে ঝরে পড়ে কৃতজ্ঞতা, ‘‘ছোট থেকে এই বাংলার জল, বাংলার বায়ু তো ভোগ করেছি, বাংলার মানুষের ভালবাসায় বড় হয়ে উঠেছি, তার কিছুটা হলেও তো ফিরিয়ে দিতে হবে৷ তাই শেষ বয়সে ফের বাংলায় ফিরে আসা!’’

- Advertisement -

সরকারের কাছে বারংবার জানতে চেয়েও বালুরঘাটের ২৩০টি পরিবারের নাম কেন আবাস যোজনা থেকে বাদ দেওয়া হয়েছে, তা জানতে পারেননি৷ তাই বুধের বিকেলে পলিটিক্যাল প্রেসমিট থেকে বিধায়ক বলে বসলেন, ‘‘ভোটের সময় মানুষকে বলেছিলাম, তাদের পাশে থাকব৷ বালুরঘাটের মানুষ আমাকে তাঁদের অভিভাবক হিসেবে নির্বাচিত করেছেন৷ ২৩০টা গরিব মানুষ কেন বাংলা আবাস যোজনার বাড়ি থেকে বঞ্চিত হবেন, সেটা আমি জানতে পারব না? বিরোধী বিধায়ক হিসেবে জেতাটাই কি আমার সবচেয়ে বড় অপরাধ?’’

মনে করিয়ে দিয়েছেন, ‘‘এখানে উন্নয়নের অনেক কথা শোনা যায়, কিন্তু আলোচনা ছাড়াই বাজেট পেশ হয়ে যায়!’’

আরও পড়ুন: অশোক লাহিড়ির দৌলতে ক্লাসরুমে পরিণত হল বিধানসভা কক্ষ

- Advertisement -

সপ্তাহের সবচেয়ে জনপ্রিয় সংবাদ

অভিনয় জগৎ থেকে বিরতি নিয়ে কলকাতা ছাড়ছেন মিশমী দাস

অর্পিতা দাস: জি বাংলার এই পথ যদি না শেষ হয় ধারাবাহিকের রিনির চরিত্রে হয়তো আর দেখা যাবে না অভিনেত্রী মিশমী দাস কে। বিশেষ কিছু...

শেষদিনে হাসিমুখে বিদায় ‘রিনি’ মিশমির

অর্পিতা দাস: মুখোশ খুলে গেছে এই পথ যদি না শেষ হয় ধারাবাহিকের রিনির। এবার সত্যিই সরকার পরিবার থেকে পাকাপাকিভাবে বিদায় নিচ্ছে রিনি, ধারাবাহিকের মতোই...

মিঠাইতে জনের double role- দেখালেন নেটিজেনরাই

অর্পিতা দাস: জি বাংলায় মিঠাই ধারাবাহিকে ওম আগরওয়াল এর চরিত্রে দর্শকরা দেখছেন অভিনেতা জন ভট্টাচার্যকে, তবে এই ধারাবাহিকে জনের দ্বৈত চরিত্র- আর তা খুঁজে...

মিঠাই পরিবারে নতুন সদস্য

অর্পিতা দাস: মিঠাই পরিবারের মেকআপ রুমে হাজির নতুন সদস্য, লাঞ্চ টাইমে এই নতুন সদস্যর সঙ্গে শুটিং এর মাঝে আড্ডা জমিয়ে দিলেন সকলের প্রিয় মিঠাই,...

খবর এই মুহূর্তে

মরিচঝাঁপির উদ্বাস্তুদের পাশে বিজেপি

কলকাতা: দেশভাগ এবং সাম্প্রদায়িক দাঙ্গার ফলে বহু বাঙালি শরণার্থী হিন্দু তদানীন্তন পূর্ব-পাকিস্তান ছেড়ে পশ্চিমবঙ্গে চলে আসে। ১৯৭৯ সালের ফেব্রুয়ারি। মরিচঝাঁপি হত্যাকাণ্ড। বাঙালি জাতির জীবনে...

Aay tobe sohochori : দেবিনাকে জব্দ করতে এবার টিপু’র মোক্ষম চাল

বিনোদন ডেস্কঃ গোপন মুহূর্তের ভিডিওর ভয় দেখিয়ে সমরেশকে দিয়ে সমস্ত কাজ করিয়ে নিচ্ছে দেবিনা । আর অন্য দিকে সমরেশ-দেবিনার সম্পর্ক প্রকাশ্যে আনতে মরিয়া বরফি-সহচরী।...

Special Recipe: শীতের সন্ধ্যায় মুচমুচে পকোড়ার সঙ্গে বানিয়ে নিন এই চাটনির রেসিপি

খাস ডেস্ক: একেই তো শীতকাল তার ওপরে ছুটির দিন। সকলেই চায় বাড়িতে আরাম করতে। কিন্তু বাড়িতে সকলে মিলে থাকলেই ভালো কিছু খাওয়ার ইচ্ছে হয়।...

রাবণ নিজে থেকেই চেয়েছিলেন রামের হাতে মরতে, জেনে নিন কারণ

বিশ্বদীপ ব্যানার্জি: রামায়ণ যদি রাম-সীতা এবং হনুমান ছাড়া অসম্ভব হয়, তাহলে রাবণ ছাড়াও অসম্ভব। মহাকাব্যে রাক্ষসরাজে'র যেমন চরিত্রই বর্ণণা করা হোক না কেন, একাধারে...