আদালতের নির্দেশে উচ্চপর্যায়ের তদন্ত, প্রশাসনের নজরে শুভেন্দুর ভাই

0
54

কাঁথি: একটা নয়, একের পর এক দুর্নীতির অভিযোগ উঠছে রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারীর ভাই সৌমেন্দু অধিকারীর বিরুদ্ধে। পুরসভা থেকে পথবাতি, স্টল নির্মাণ থেকে কলেজ বিল্ডিং নির্মাণ- একাধিক দুর্নীতির অভিযোগে মামলা দায়ের হয়েছে শান্তিকুঞ্জের ছোট ছেলে সৌমেন্দু অধিকারীর নামে! এরই মাঝে কাঁথি প্রভাত কুমার কলেজের বিল্ডিং নির্মাণের দুর্নীতির মামলায় এবার তদন্তের ভার গেল পূর্ব মেদিনীপুর জেলা শাসকের হেফাজতে। কাঁথি থানার পুলিশের হাত থেকে মামলাটি উচ্চপর্যায়ে তদন্তের জন্য পূর্ব মেদিনীপুর জেলা শাসক পূর্ণেন্দু মাজির কাছে তদন্তের নির্দেশ দিলেন কলকাতা হাইকোর্টের বিচারক তীর্থঙ্কর ঘোষ। যার জেরে দুর্নীতি কাণ্ডে শুভেন্দুর ভাইয়ের গ্রেফতারির সম্ভবনা নিয়ে নতুন করে চর্চ্চা শুরু হয়েছে কাঁথির স্থানীয় রাজনীতিতে৷

জানা গিয়েছে, কাঁথি প্রভাত কুমার কলেজের বিল্ডিং নির্মাণের দুর্নীতির মামলায় ৪ নভেম্বরের মধ্যে পূর্ব মেদিনীপুর জেলাশাসক পূর্ণেন্দু মাজিকে রিপোর্ট জমা দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন কলকাতা হাইকোর্টের বিচারপতি তীর্থঙ্কর ঘোষ৷ বস্তুত, ওই দুর্নীতি মামলায় অভিযুক্তদের তালিকায় নাম রয়েছে রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারীর ভাই তথা কাঁথি পুরসভার দু’বারের পুরপ্রধান সৌমেন্দু অধিকারীর। দীর্ঘ কয়েক বছর ধরে কাঁথি কলেজ পরিচালন কমিটির সভাপতি ছিলেন সৌমেন্দু। একই সঙ্গে শুভেন্দুর আরেকভাই তথা তমলুকের সাংসদ দিব্যেন্দু অধিকারী ও দক্ষিণ কাঁথি বিজেপি প্রতীকে জেতা বিধায়ক অরূপ কুমার দাসেরও নাম রয়েছে৷ তদন্তে নেমে কলেজের বিল্ডিং দুর্নীতির মামলায় তদন্তের শুরু করে কাঁথি থানার পুলিশ। আগেই কাঁথি থানার তদন্তকারীরা কলেজের অধ্যক্ষ অমিত কুমার দে কে জিজ্ঞাসাবাদ চালায়। কলেজের অধ্যক্ষের কাছ থেকে একাধিক নথিও বাজেয়াপ্ত করেন তদন্তকারীরা৷

- Advertisement -

বস্তুত, গত ফেব্রুয়ারি মাসে কাঁথি প্রভাত কুমার কলেজের বিল্ডিং নির্মাণ দুর্নীতি নিয়ে কাঁথি আদালতে মামলা দায়ের করেন আইনজীবী আবু সোহেল। আদালত থেকে সেই মামলা কাঁথি থানায় পাঠিয়ে দেওয়া হয়। এরপর তদন্ত শুরু করে কাঁথি থানার পুলিশ৷ এই মামলায় গ্রেফতারের আশঙ্কা করে কলকাতা হাইকোর্টের দ্বারস্থ হন শুভেন্দু অধিকারীর ভাই সৌমেন্দু অধিকারী। কলকাতা হাইকোর্ট সৌমেন্দু অধিকারীর রক্ষাকবচ দেন। তদন্ত চালিয়ে যেতে পারবেন, কিন্তু গ্রেফতার করতে পারবেন না পুলিশ। মামলাকারী তথা পেশায় আইনজীবী আবু সোহেল বলেন, “উচ্চপর্যায়ের তদন্তের জন্য কলকাতা হাইকোর্টের বিচারক পূর্ব মেদিনীপুরে জেলাশাসক পূর্ণেন্দু মাজিকে নির্দেশ দিয়েছেন। তদন্ত হলে অনেক রাঘববোয়াল এই ঘটনায় গ্রেফতার হবে।’’

কাঁথি থানার আইসি অমলেন্দু বিশ্বাস বলেন, “কলকাতা হাইকোর্ট এই মামলার তদন্তের জন্যই জেলাশাসককে তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন। তদন্তের স্বার্থে বেশ কিছু মন্তব্য করব না৷” যদিও এই বিষয়ে সৌমেন্দু অধিকার বা অধিকারী পরিবারের অন্য কোনও সদস্যের প্রতিক্রিয়া মেলেনি। তবে কাঁথি সাংগঠনিক জেলার এক বিজেপি নেতার দাবি, “শাসকদল তৃণমূল কংগ্রেস রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারীকে ভয় পাচ্ছেন। তাই একের পর এক মিথ্যে মামলা দায়ের করেছেন। তবে এসব করে কিছু করতে পারবে না৷”

আরও পড়ুন: ‘কিভাবে সাইজ করতে হয়, তা আমি জানি’- কাকে বললেন শুভেন্দু

downloads: https://play.google.com/store/apps/details?id=app.aartsspl.khaskhobor