এই সন্ত্রাসবাদীটাকে নেতা বানাবেন না, মমতাকে হুঁশিয়ারি ১১ বারের বিধায়ক করিমের

0
152

ইসলামপুর: দলকে দুর্নীতিমুক্ত করার জন্য বারেবারে হুঙ্কার দিয়ে থাকেন নেত্রী৷ এবার সেই তৃণমূল নেত্রীর বিরুদ্ধেই দুর্নীতিতে মদত দেওয়ার অভিযোগে সরব হলেন ইসলামপুরের বিধায়ক আব্দুল করিম চৌধুরী৷ সোমবার নিজের বাড়িতে সাংবাদিক বৈঠক থেকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে হুঁশিয়ারি দিয়ে করিম বলেন, অবিলম্বে ইসলামপুর তৃণমূল ব্লক সভাপতি পরিবর্তন না হলে ইসলামপুরে আন্দোলন শুরু হবে৷ পরিস্থিতির জন্য দায়ী থাকবেন নেত্রী৷

১১বারের বিধায়ক করিমের অভিযোগ, বর্তমানে ইসলামপুরে তৃণমূল ব্লক সভাপতি হিসেবে রাজ্য নেতৃত্ব জাকির হোসেনের নাম ঘোষণা করেছেন৷ উনি একজন ধান্ডাবাজ লোক, গুন্ডামি করে ক্ষমতা ধরে রেখেছেন৷ ১ লাখ টাকা, ২ লাখ টাকা নিয়ে ভোটের টিকিট বিক্রি করেন৷ এমন লোককে পদে রাখা মানে দলের দুর্নাম বাড়ানো৷ আর্জির সুরে নেত্রীর উদ্দেশ্যে করিম বলেন, ‘‘এই সন্ত্রাসবাদীটাকে নেতা বানাবেন না দিদি৷ আমি তো সন্ত্রাস করে জিতিনি৷ আমি ১১ বার জিতেছি৷ কিন্তু হিংসা করে, ভোট লুঠ করে জিতিনি৷ মানুষের আর্শীবাদ নিয়ে জিতে এসেছে৷ এই নেতা তো হুমকি দিয়ে ভোট করান৷ এদের জন্য দলের বদনাম হচ্ছে৷ তবু এদেরকেই নেতা করা হচ্ছে৷’’

- Advertisement -

খানিক থেমে নেত্রীর উদ্দেশ্যে যোগ করেছেন, ‘‘আপনি তো আমাকে দাদা বলেন৷ তাহলে কেন আমাকে সম্মান দিচ্ছেন না৷ আমার টাকা নেই বলে কি? আপনার কাছে এই ব্যবহার আশা করিনি৷ আপনি এভাবে মুখ ফিরিয়ে নিয়েছেন সেজন্য খুব দুঃখ লাগছে৷ মন্ত্রী হতে পারিনি বলে দুঃখ নেই৷ কিন্তু ব্লকটা তো আমার হাতে থাকবে৷ নিজের মতো করে উন্নয়ন করব৷ কিন্তু এমন দুর্নীতিবাজ নেতা থাকলে মানুষের জন্য কাজ করব কি করে?’’
একই সঙ্গে তাঁর অভিযোগ, বিষয়টি নিয়ে দলের সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়কে জানিয়েছিলাম৷ কিন্তু কোনওরকমে পদক্ষেপ নেননি৷ উল্টে রাজ্য নেতৃত্ব নানাভাবে আমাকে অত্যাচার করছে৷ তাই বাধ্য হয়ে সংবাদ মাধ্যমের শরনাপন্ন হলাম৷ আগামীদিনে ওই ব্লক সভাপতিকে না পরিবর্তন করা হলে মানুষকে নিয়ে পথে নেমে আন্দোলন সংগঠিত করারও হুঁশিয়ারি দেন বিধায়ক৷ যদিও অভিযুক্ত ব্লক সভাপতির কোনও প্রতিক্রিয়া মেলেনি৷ তবে ঘটনাটিকে ঘিরে জোর চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে এলাকার রাজনৈতিক মহলে৷

আরও পড়ুন: রাজ্যে বাড়ছে ডেঙ্গুর দাপট, বিশেষ সর্তকতার পরামর্শ বিশেষজ্ঞদের