মুখ্যমন্ত্রী আমাকে দলের নেতৃত্ব দিতে বলেছিলেন, আমি রাজি হইনি: পিকে

0
18
Prashant kishor

পাটনা: ২০২৪-লোকসভা নির্বাচনের আগে সরগরম বিহারের রাজ্যরাজনীতি। এই পরিস্থিতিতে প্রাক্তন রাজনৈতিক উপদেষ্টা প্রশান্ত কিশোরের সঙ্গে জেডি(ইউ)-এর বর্তমান সভাপতি রাজীব রঞ্জন সিং-এর বাকযুদ্ধ অব্যাহত। জেডি(ইউ)-এর প্রাক্তন জাতীয় সহ সভাপতি প্রশান্ত কিশোরকে (Prashant Kishor) “বিজেপির পক্ষে” কাজ করার জন্য কটাক্ষ করা হয়।

জেডি(ইউ) সভাপতি রাজীব রঞ্জন সিং ওরফে লালনও কিশোরের রাজ্যব্যাপী “পদযাত্রা”-কে তিরস্কার করেছেন এবং নীতীশ কুমারের সুশাসনের দাবির এক দশকেরও বেশি সময় সত্ত্বেও বিহার পিছিয়ে রয়েছে বলে প্রশান্ত কিশোরের মন্তব্যের বিরুদ্ধে উষ্মা প্রকাশ করেছেন। মঙ্গলবার রাজীব রঞ্জন সিং তথা লালনকে “দালাল” বলে কটাক্ষ করেন পিকে। এবার ফের ২০১৪-র লোকসভা নির্বাচনের কথা স্মরণ করিয়ে লালনকে একহাত নিলেন প্রশান্ত কিশোর।

- Advertisement -

আরও পড়ুন- আজও বহাল ৫০০ বছরের পুরনো রীতি, আবেগ ও ভক্তিভরে বিদায় বড় দেবীকে

তিনি বলেন, “আমরা কাঁধে কাধ মিলিয়ে এই সরকার গঠন করেছিলাম। আর এখন উনি এসে আমাকে জ্ঞান দিচ্ছেন!” পাশাপাশি, গত ১৪ সেপ্টেম্বর নীতীশ কুমারের সঙ্গে তার সাক্ষাতের কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, “মুখ্যমন্ত্রী আমাকে দলের নেতৃত্ব দিতে বলেছিলাম। কিন্তু আমি সেই প্রস্তাব নাকচ করি”। উল্লেখ্য, সোমবার জেডি(ইউ) প্রধান সাংবাদিকদের বলেন, “বিহারের জনগণ জানে নীতীশ কুমারের শাসনে কতটা অগ্রগতি হয়েছে। আমাদের প্রশান্ত কিশোরের (Prashant Kishor) শংসাপত্রের প্রয়োজন নেই। যদিও অন্য নাগরিকদের মতো তিনি মিছিল বা বিক্ষোভ করতে স্বাধীন”।