শুভেন্দুর কেস উঠলেই সিবিআই, বিচারকের নিরপেক্ষতা নিয়ে প্রশ্ন তুললেন তৃণমূল নেতা

0
380

কাঁথি ও কলকাতা: এবার শাসকদলের কোপে কলকাতা হাইকোর্টের বিচারক৷ রবিবার ছুটির দুপুরে রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারীর পাড়ার এক সভা থেকে সরাসরি কলকাতা হাইকোর্টের বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়ের নিরপেক্ষতা নিয়ে প্রশ্ন তুললেন তৃণমূলের কাঁথি-১ ব্লকের পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি প্রদীপ গায়েন। তাঁর দাবি, ‘‘এখন টাকার বিনিময়ে চাকরি দেওয়ার কথা বলা হচ্ছে৷ লক্ষ লক্ষ টাকার বিনিময়ে চাকরি দিয়েছেন শুভেন্দু অধিকারী৷ তদন্ত চাইছি, তদন্ত হোক৷’’

এরপরই সরাসরি বিচারকের নাম উল্লেখ করে প্রদীপ বলেন, ‘‘হাইকোর্টের বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়কে বলছি, ২০১৪ সালে যারা কাথি-১ নম্বর ব্লকে প্রাথমিক শিক্ষকের চাকরি পেয়েছিলেন, তারা কত টাকার বিনিময়ে চাকরি পেয়েছিলেন সেটার তদন্ত হোক৷ নিষ্ঠা দেখাচ্ছো? তাহলে আমরা-ওরা কেন? সবকিছুরই তদন্ত করুন৷’’ খানিক থেমে চড়িয়েছেন আক্রমণের সুর, ‘‘আমাদের ট্যাক্সের টাকায় যাদের বেতন হয়৷ মাসে ২ লক্ষ ২৫ হাজার টাকা বেতন নেয়৷ শুভেন্দুর কেস উঠলেই সিবিআই!’’

বিচারকের পাশাপাশি একই সঙ্গে শুভেন্দুকে সতর্ক করে প্রদীপের হুঁশিয়ারি, ‘‘তোমার সমস্ত কুকীর্তি আমরা জানি৷ তাই বলছি, বেশি লাফালাফি করবে না৷ তুমি যে স্কুলের মাস্টার, আমরা সেই একই কারখানার প্রোডাক্ট৷ তাই বলছি, বেশি বাড়াবাড়ি কোরো না৷ এর ফল ভাল হবে না৷’’ দাবি করেছেন, ‘‘রাজনীতি করতে হলে উন্নয়নের নিরিখে রাজনীতি করো৷ অকারণ কুৎসা কোরো না৷’’

শনিবার শুভেন্দু অধিকারী পাড়ায় তৃণমূল কংগ্রেসের গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধানকে মারধর করা হয়েছিল বলে অভিযোগ৷ ওই ঘটনার প্রতিবাদে এদিন সেখানে সভার আয়োজন করে তৃণমূল৷ সেখান থেকেই বিচারক ও শুভেন্দুকে একই বন্ধনীতে রেখে আক্রমণ তীব্রতর করেছেন তৃণমূল নেতা৷ যদিও এই বিষয়ে শুভেন্দুর কোনও প্রতিক্রিয়া এখনও সামনে আসেনি৷

আরও পড়ুন: ঘুমন্ত কুকুর ছানাকে হত্যা, রুখে দাঁড়ালেন দুই তরুণী