এসি ঘরে বসে রাজনীতি হয় না, মমতাই বাংলার মুখ: Arjun Singh

0
65

খাস ডেস্ক: নানা জল্পনার অবসান ঘটিয়ে রবিবার বিকেলে নিজের পুরনো দলে ফিরে আসেন অর্জুন সিং। তাঁর দলবদলের জল্পনা অনেকদিন ধরেই চলছিল যা অবশেষে এদিন সত্যি হল। তৃণমূলে ফিরতে না ফিরতেই মুখ্যমন্ত্রীর প্রশংসায় পঞ্চমুখ প্রাক্তন বিজেপি নেতা। তাঁর মতে, আগামী দিনে বাংলাকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার ক্ষমতা রয়েছে একমাত্র মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের।

আরও পড়ুন: রাত ১০ টা হোক কিংবা ভোর ৪ টে, মিডনাইট মেনুর বিশেষ ব্যবস্থা রয়েছে এই ক্যাফেতে

এদিন তৃণমূলে যোগদানের পর সাংবাদিক বৈঠকে অর্জুন সিং প্রথমেই বলেন, ‘যে ঘরের ছেলে ছিলাম সেই ঘরেই আবার ফিরে এসেছি। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নির্দেশে তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদকের হাত ধরে ফিরে আসা। এই ঘর তৈরি হওয়ার দিন থেকে ছিলাম। মাঝে কিছু ভুল বোঝাবুঝির জন্য বিজেপিতে যাই, সেখানে সাংসদ হই।’ পাটশিল্প নিয়ে কেন্দ্রীয় সরকারকে কড়া সুরে ফের আক্রমণ করতে দেখা যায় তাঁকে। অর্জুনের দাবি, ‘বাংলায় কেবল ফেসবুকে, এসি ঘরে বসে রাজনীতি হয় না, এভাবে চললে বাংলা বিজেপি শীঘ্রই মুছে যাবে। মুখ্যমন্ত্রী এবং অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে যোগাযোগ শুরু হয়। তাঁদের অনুমোদনের পরই বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে ফিরলাম।’ অর্জুন দাবি করেন, একমাত্র মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় পারেন বাংলার উন্নয়নকে এগিয়ে নিয়ে যেতে। তাঁর এই লড়াইয়ে পাশে থাকা উচিত। খুব শীঘ্রই রাজনীতিতে লড়াই শুরু হবে যার নেতৃত্বে থাকবেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।’

প্রসঙ্গত, রবিবার সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের ক্যামাক স্ট্রীটটের অফিসে যান ব্যারাকপুর সাংসদ অর্জুন সিং। সেখানেই তৃণমূল কংগ্রেসের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদকের হাত থেকে দলীয় পতাকা নিয়ে তৃণমূলে যোগ দেন। উল্লেখ্য, ২০১৯ সালের মার্চ মাসে লোকসভা ভোটের আগে তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দেন অর্জুন, তিন বছর ঘর ওয়াপসি হল তাঁর।