২৪ ঘণ্টা পার, অধিকারী সাম্রাজ্যের পতন নিয়ে নিশ্চুপ Suvendu

বৃহস্পতিবারও শান্তিকুঞ্জেই গৃহবন্দি রইলেন

0
254

কাঁথি: ভোট গণনা ২৪ ঘন্টা অতিক্রান্ত। দীর্ঘ কয়েক দশক পর কাঁথি পুরসভাতে অধিকারী পরিবার হাতছাড়া হয়েছে। একদিন পরও কাঁথির রাস্তাঘাটে দেখা মিলল না রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারীর (Suvendu Adhikari)। সূত্রের খবর, বুধবারের ন্যায় বৃহস্পতিবারও শান্তিকুঞ্জেই গৃহবন্দি রইলেন৷ তথৈবচ, কাঁথির বর্ষীয়ান রাজনীতিক, সাংসদ শিশির অধিকারী৷ দিনভর রাজপথে দেখা মেলেনি তমলুকের সাংসদ দিব্যেন্দু অধিকারিতেও৷ শুধুমাত্র সন্ধ্যায় কাঁথি শহরে বিজেপির দলীয় পার্টি অফিসে যেতে দেখা গেল শুভেন্দুর ছোট ভাই সৌমেন্দুকে৷ দলীয় কর্মীদের সঙ্গে বৈঠক করেন তিনি।

যদিও কাঁথি ভোট নিয়ে কোনও প্রতিক্রিয়া মেলেনি সৌমেন্দুরও৷ অন্যান্য দিনের তুলনায় এদিন পার্টি অফিসে কর্মীদের সংখ্যা ছিল খুবই কম। রাজনৈতিক মহলের মতে, এবারের পুরভোটের ফল প্রকাশের সঙ্গে সঙ্গে কাঁথির অনেক প্রশ্নের অবসান হল৷ প্রথমত, ৪০ বছরের অধিকারী গড়ে এই প্রথম অধিকারীদের ছাড়া পুরসভা দখল করল তৃণমূল৷ দ্বিতীয়ত, নন্দীগ্রামে নেত্রীকে পরাস্ত করার পর শুভেন্দুর (Suvendu Adhikari) যে দাপট কাঁথিতে ছিল, ভোটের ফলের জেরে তা অনেকটাই কমল বলে মনে করছে ওই মহল৷

ওই মহলের মতে, পুরভোটে বাড়ি বাড়ি চষে বেরিয়েছিলেন শুভেন্দু (Suvendu Adhikari) ৷ তারপরেও কাঁথির মানুষ যেভাবে তৃণমূলে আস্থা রাখলেন তাতে একটা বিষয় স্পষ্ট, নিজ ভূমে জনসংযোগ কমছে অধিকারীদের৷ বস্তুত, শুভেন্দু অধিকারী ছাড়া পরিবারের বাকি সদস্যদের রাজনৈতিক অবস্থান নিয়ে একাধিক প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে৷ কারণ, শিশিরবাবু ও দিব্যেন্দু এখনও অফিসিয়ালি তৃণমূলেরই সাংসদ৷ যদিও বিজেপির পক্ষ থেকে দাবি করা হয়েছে, ভোটের নামে কাঁথিতে লুঠ হয়েছে৷ অবাধ ভোট হলে ফল অন্য রকম হত৷ আদালতের রায়ের দিকে তাকিয়ে রয়েছেন তাঁরা৷ পাল্টা হিসেবে তৃণমূলের দাবি, ‘‘লজ্জা নেই, তাই গোহারান হেরেও ওরা কুৎসার রাজনীতি করছে৷’’

আরও পড়ুন: IMA: পরাজয় আটকাতে শাসানি, নির্মল মাজির বিরুদ্ধে সরব দলেরই একাংশ

আরও পড়ুন: যুদ্ধবিধ্বস্ত Ukraine থেকে দেশে ফিরেও আতঙ্কে শিউড়ে উঠছেন সনিয়া