কয়লা পাচার নিয়ে মুখ খুললেন অভিষেক

0
155

খাস খবর ডেস্ক: একুশের বিধানসভা নির্বাচনে পশ্চিমবঙ্গে বড় ইস্যু হয়ে দাঁড়িয়েছে কয়লা পাচার। ওই কয়লা নিয়ে নিত্যদিন শাসক তৃণমূলকে কাঠগড়ায় তুলছে বিজেপি। দলের যুবনেতা অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়কে ওই পাচারের পাণ্ডা বলে ক্রমাগত আক্রমণ করে চলেছেন তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যাওয়া দাপুটে নেতা শুভেন্দু অধিকারী।

আরও পড়ুন- মঙ্গলবার তৃতীয় দফার ভোট, মোতায়েন ৬১৮ কোম্পানি কেন্দ্রীয় বাহিনী

- Advertisement -

সোমবার সেই বিতর্ক নিয়ে মুখ খুলেছেন ডায়মন্ড হারবার কেন্দ্রের সাংসদ তথা তৃণমূল যুব কংগ্রেসের সভাপতি অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। খুব স্বাভাবিকভাবেই তাঁর বিরুদ্ধে ওঠা যাবতীয় অভিযোগ উড়িয়ে দিয়েছেন তিনি। সেই সঙ্গে কয়লা পাচারের জন্য প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এবং স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহকে কাঠগড়ায় তুলেছেন তিনি। অভিষেক জানিয়েছেন যে নিজেদের ব্যর্থতা ঢাকতে ভ্রান্ত অভিযোগ করছে বিজেপি।

আরও পড়ুন- প্রচারে আমার বিরুদ্ধে মন্তব্য করবেন না জয়া বচ্চন: বাবুল সুপ্রিয়

কয়লা পাচার করে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় ৯০০ কোটি টাকা পকেটস্থ করেছে বলে দাবি করলেন শুভেন্দু অধিকারী। কয়লা পাচারের সঙ্গে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় পরিচালিত রাজ্য সরকার জড়িত বলেও দাবি করেন তিনি। তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে নাম লেখানোর পর থেকেই কয়লা কেলেঙ্কারি নিয়ে সরব হয়েছেন শুভেন্দু। আর সেই দুর্নীতির সঙ্গে তৃণমূলের যুবনেতা অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় প্রত্যক্ষভাবে জড়িত রয়েছেন বলেও দাবি করেন তিনি। যদিও অভিষেকের নাম উল্লেখ না করে তোলাবাজ ভাইপো বলে কটাক্ষ করে থাকেন।

এই বিষয়ে টুইট করে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় লিখেছেন, “কয়লা খনি এবং কয়লা সংক্রান্ত যাবতীয় সম্পত্তি কেন্দ্রের অধীনে আবং তা রক্ষনাবেক্ষণের দায়িত্বও কেন্দ্রীয় সংস্থার। যদি বিজেপি মনে করে যে তৃণমূলের নেতারা অবৈধ কয়লা পাচার করে টাকা উপার্জন করেছে তাহলে কেন্দ্রীয় সংস্থাগুলি ব্যবস্থা নেয়নি কেন?” কয়লা পাচার হওয়ার জন্য কেন্দ্রীয় সংস্থাগুলিও দায়ী বলে দাবি করেছেন অভিষেক।

আরও পড়ুন- ‘হিন্দুদের ভোট করতে দিতে চান না, এটাই মমতার আসল চেহারা’, বিস্ফোরক শুভেন্দু

তৃণমূলের যুবনেতা দাবি করেছেন যে কয়লা পাচারের গল্প বলে আসলে সাধারণ মানুষকে বিজেপি বোকা বানাতে চাইছে। টুইটে অভিষেক লিখেছেন, “বিজেপি নেতাদের কথা অনুযায়ী, কয়লা মন্ত্রক এবং স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক তৃণমূল নেতাদের কয়লা পাচারে সাহায্য করেছিল। যার অর্থ ওই দুই মন্ত্রকের আধিকারিকেরা নিজেদের বস(পড়ুন মোদী-শাহ)-কে উপেক্ষা করে তৃণমূল নেতাদের নির্দেশ পালন করেছেন।” এই অবস্থায় বিজেপির প্রতি অভিষেকের প্রশ্ন, “কাদের বোকা বানাতে চাইছেন!