আজ রায় দিবস: পরিবর্তন? নাকি প্রত্যাবর্তন?

0
206

সৌমেন শীল: আর কিছুক্ষণের অপেক্ষা। তারপরেই ঘোষণা করা হবে বাংলার জনগণের রায়। একই সঙ্গে দেশের আরও তিনটি রাজ্য এবং একটি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলের জনগণের রায় ঘোষণা করবে নির্বাচন কমিশন। স্থির হবে আগামী পাঁচ বছরের রাজনৈতিক রূপরেখা। এই রায় ঘোষণার দিনটি অন্য একটি কারণেও সমগ্র দেশবাসীর কাছে স্মরণীয়। কারণ ২মে বিখ্যাত চলচ্চিত্র পরিচালক সত্যজিৎ রায়ের জন্মদিন।

আরও পড়ুন- মমতার বিরুদ্ধে প্রেমে বিশ্বাসঘাতকার অভিযোগে ধর্ণায় যুবক

১৯২১ সালের এই দিনেই অর্থাৎ ১০০ বছর আগে জন্মগ্রহণ করেছিলেন সত্যজিৎ রায়। যার সৃষ্টিশীলতায় মুগ্ধ হয়েছিল সমগ্র বিশ্ব। তাঁর ঝুলিতে অস্কারের মতো পুরষ্কারও রয়েছে। তাঁর জন্ম শতবর্ষের দিনেই নয়া ইতিহাস রচিত হতে চলেছে বাংলার মাটিতে। আরও প্রত্যাবর্তন ঘটবে তৃণমূলের নাকি হবে পরিবর্তন! প্রথমবারের জন্য বাংলার পাঁকে ফুটবে পদ্ম!

আরও পড়ুন- করোনার ডোজকে ঘিরে ভুতুড়ে কাণ্ডে তাজ্জব দম্পতি

এই সকল রাজনৈতিক বিতর্ক ছাড়াও এই মুহূর্তে বিশেষ গুরুত্বপূর্ণ বিষয় করোনা ভাইরাসের দাপটে সৃষ্টি হওয়া অতিমারি। এই করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ের কারণে বেশ প্রতিকূল অবস্থায় রয়েছে ভারত। বাংলার অবস্থাও একই রকম। নির্বাচনের প্রচারের কারণে করোনা আরও ছড়িয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন মাদ্রাজ হাইকোর্টের বিচারপতি। এই নিয়েও অবশ্য বিতর্ক আছে।

আরও পড়ুন- লকডাউন না ওঠা পর্যন্ত গোটা গ্রামের রেশনের দায়িত্ব সোনুর কাঁধে

এই সকল বিষয়ের কারণে ধামাচাপা পড়ে গিয়েছে বিশিষ্ট বাঙালি ব্যক্তিত্ব সত্যজিৎ রায়ের ১০০ বছরের জন্মদিন। যিনি তাঁর চলচ্চিত্রের মাধ্যমে ফুটিয়ে তুলেছিলেন সমাজের নানান অবস্থা। রাজনীতি এবং সমাজনীতি সবই ফুটে উঠেছে তাঁর চলচ্চিত্রে। ঘটনাচক্রে তাঁর জন্মদিনেই ঘোষণা হবে বাংলার মানুষের রায়।

আরও পড়ুন- করোনা রুখতে কঠোর প্রশাসন

রাজ্য রাজনীতির পথের পাঁচালী যে অপরাজিত থাকবে তা বলাই বাহুল্য। তবে রাজ্যের সংসার চালানোর গুরুদায়িত্ব কার হাতে তুলে দেবে বাংলার জনগণ তা জানা যাবে আর কয়েক ঘণ্টা পরে।