মেয়েদের পেটে কেন কোনও কথা থাকে না, মহাভারত দেয় যে ব্যখ্যা

0
60

বিশ্বদীপ ব্যানার্জি: মহাভারত হল ধর্ম এবং অধর্মের লড়াই। যার পটভূমি রচিত হয়েছিল কুরুক্ষেত্র নামক প্রাঙ্গণে। কিন্তু এই যুদ্ধটা-ই হয়ত হত না যদি পাণ্ডবেরা কর্ণের প্রকৃত পরিচয় জানতেন।

আরও পড়ুন: ৪ ঋষির অভিশাপে বিষ্ণুর দ্বাররক্ষী থেকে তাঁর চরম শত্রুতে পরিণত হন এই দুই ভাই, চিনে নিন

হস্তিনাপুরের মহারাজ পাণ্ডুর সঙ্গে বিবাহের আগে সূর্যদেবের ঔরসে কর্ণের জন্ম দেন। সে বৃত্তান্ত যুধিষ্ঠিরসহ বাকি ৫ ভাই জানতেন না বলে কৌরবদের পাশাপাশি কর্ণের-ও বিরোধিতা করেন। আর তৃতীয় পাণ্ডব অর্জুন তো হত্যাই করেন তাঁদের সর্বজ্যেষ্ঠ ভ্রাতাকে। তা-ও অন্যায়ভাবে, কর্ণের রথের চাকা মাটিতে বসে গেলে।

এসব কিছুই হত না। যদি কুন্তী কর্ণের প্রকৃত পরিচয় পঞ্চপাণ্ডবকে আগেভাগেই জানিয়ে দিতেন। কিন্তু তিনি তা করেননি। তাই যুধিষ্ঠির তাঁর মা কুন্তী এবং সেইসঙ্গে দুনিয়ার সকল নারীকে অভিশাপ দেন, তাঁরা কখনও কোনও কথা পেটে চেপে রাখতে পারবেন না।

আরও পড়ুন: মহাভারত: যাজ্ঞসেনী দ্রৌপদী এবং অক্ষয়পাত্র উপাখ্যান

পুরুষতান্ত্রিক ভারতীয় সমাজব্যবস্থায় যতরকমভাবে সম্ভব নারীদের ছোট করার চেষ্টা করা হয়েছে। নানা রকম ঘৃণ্য প্রবাদ তাঁদের নিয়ে চালু। তেমনই একটি হল, মেয়েদের পেটে কোনও কথা থাকে না। ধারণা করা হয়, যুধিষ্ঠিরের অভিশাপই তার কারণ।