কলেজ করল বিশেষ ব্যবস্থা, প্রফেসরদের সঙ্গে ক্লাসে বসেই পর্ন মুভি দেখতে পারবে ছাত্ররা

0
67

খাস ডেস্ক: নীলছবি অর্থাৎ পর্ন প্রকাশ্যে নাম শুনলেই লজ্জায় পড়তে হয়। তবে এবার লজ্জা নয় রয়েছে অবাক হওয়ার পালা। কারণ কলেজের ছাত্র-ছাত্রীরা একবার থেকে তাদের প্রফেসরদের সঙ্গে বসেই দেখতে পারবেন পর্ন সিনেমা। এই বাক্য পড়তে গিয়ে হোঁচট খেলেন নিশ্চয়ই। যদিও সেটাই স্বাভাবিক। ভাববেন না এটা গল্প। এই খবর একেবারেই সত্যি। ‘হার্ডকোর’ পর্নোগ্রাফির উপর একটি কোর্সের অফার দেওয়া হয়েছে কলেজ ছাত্রদের।

একটি মার্কিন কলেজ তাঁদের ছাত্রদের ‘হার্ডকোর’ পর্নোগ্রাফির উপর একটি কোর্স অফার করেছে। যেখানে বলা হয়েছে কোর্স চলাকালীন, ছাত্ররা তাদের লেকচারারদের সঙ্গে বসেই একসাথে নীলছবি অর্থাৎ পর্ন দেখবে। সংবাদ মাধ্যম থেকে প্রাপ্ত তথ্য অনুযায়ী, প্রথমবারের মতো এই চমকপ্রদ কোর্সটি অফার করছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের উটাহ শহরের ওয়েস্টমিনস্টার কলেজ। এই কোর্সের জন্য তিনটি ক্রেডিট রয়েছে এবং কোর্সটি ‘ফিল্ম থ্রি থাউজ্যান্ড’ (Film 3000) প্রোগ্রামের অধীনে পড়ে। এই সিদ্ধান্ত নিয়ে বলতে জানানো হয়েছে, কলেজ ম্যানেজমেন্ট বিশ্বাস করে যে এই পর্নোগ্রাফি কোর্স ছাত্রদের সিদ্ধান্ত নিতে সাহায্য করবে যে তারা বিতর্কিত বিষয়গুলি নিয়ে নিজেদের যুক্ত করতে চায় কি এড়িয়ে যেতে চায়। সংবাদ মাধ্যমের প্রকাশিত তথ্য অনুযায়ী পর্নোগ্রাফি ক্লাস চার সপ্তাহের মেয়াদে তিন ঘন্টার জন্য সপ্তাহে দুবার হবে এবং শিক্ষার্থীরা “এই মিডিয়া সম্পর্কে গুরুত্ব সহকারে চিন্তা করবে”।

কলেজের কথায়, “সামাজিক সমস্যা বিশ্লেষণ করার একটি সুযোগ” করে দেবে পর্নোগ্রাফির ইলেকটিভ কোর্সটি। ছাত্র ও শিক্ষকদের শ্রেণী, লিঙ্গ, জাতি এবং একটি পরীক্ষামূলক র‌্যাডিক্যাল আর্ট ফর্মের যৌনতা নিয়ে আলোচনা করাই হল কোর্সের মূল উদ্দেশ্য। ওয়েস্টমিনস্টার কলেজর এই সিদ্ধান্ত সামনে আসার পরেই চর্চা শুরু হয়েছে। একটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান কিভাবে এই ধরনের কোর্সটি অফার করতে পারে তা নিয়েই শুরু হয়েছে সমালোচনা। যদিও এই সব কথাকে আমল দিতে নারাজ কর্তৃপক্ষ। উল্টে কলেজ কর্তৃপক্ষ ২০২২-২০২৩ শিক্ষাবর্ষ থেকেই পর্ন ক্লাস শুরু করতে চলেছে যেখানে শিক্ষকের সঙ্গে বসেই দেখা যাবে পর্নোগ্রাফি৷ কলেজের চিফ মার্কেটিং অফিসার, শিলা রাপ্পাজো ইয়র্কিন বলেন, কোর্সটি কলেজে নতুন নয় এবং অতীতে এটি বেশ কয়েকবার অফার করা হয়েছিল, কিন্তু করোনা মহামারীর কারণে এটি স্থগিত করা হয়েছিল।