অবহেলায় নষ্ট হচ্ছে মন্মথ রায়ের ঐতিহ্য, সরব অশোক লাহিড়ি

0
25

কলকাতা: শিক্ষা, শিল্প চর্চ্চা, কৃষ্টি ও সংস্কৃতি চর্চ্চার পীঠস্থান হিসেবে পরিচিত বালুরঘাট৷ একাঙ্ক নাটকের জনক মন্মথ রায়ের দৌলতে এই শহরের নাট্যচর্চ্চার খ্যাতি রয়েছে সারা দেশে৷ তাই মন্মথ রায়ের স্মৃতিতে বালুরঘাট শহরে নাট্য চর্চ্চার জন্য ২০১৯ সালে সরকারের তরফ থেকে ১৩ কোটি টাকা ব্যয়ে তৈরি করা হয়েছিল নাট্য উৎকর্ষ কেন্দ্র৷ কিন্তু আজও সেখানে একটি নাটকও উপস্থাপিত হল না৷ বরং অনাদরে, অবহেলায় ক্রমেই নষ্ট হতে বসেছে জনগণের ১৩ কোটি টাকা ব্যয়ে তৈরি নাট্য উৎকর্ষ কেন্দ্রটি৷ স্বভাবতই, এই বিষয়ে দ্রুত যথাযথ পদক্ষেপ গ্রহণের জন্য এবার রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে চিঠি দিলেন দেশের বিশিষ্ট অর্থনীতিবিদ তথা বালুরঘাটের বিজেপি বিধায়ক ড: অশোক লাহিড়ি (Dr. Ashok Lahiri)৷

আক্ষেপের সুরে বিধায়ক বলেন, ‘‘২০১৯ সালে ওই নাট্য উৎকর্ষ কেন্দ্রটি চালু হয়েছে৷ কিন্তু আজও সেখানে একটি নাটকও তৈরি হল না৷ অথচ কেন্দ্রটি তৈরির পর নাটক বাদে বাকি বহু কাজে ব্যবহার করা হচ্ছে৷ কোভিডের সময় এখানে সেফ হোমও চালু করা হয়েছিল৷ এখন সেসবও নেই৷ পুরোপুরি অবহেলায়, অনাদরে নষ্ট হচ্ছে নাট্য উৎকর্ষ কেন্দ্রটি৷ অথচ এই সেই বালুরঘাট যা একাঙ্ক নাটকের জনক মন্মথ রায়ের গর্বের শহর৷ তাই মুখ্যমন্ত্রীকে যথাযথ পদক্ষেপ গ্রহণের আর্জি জানালাম৷’’

- Advertisement -

বস্তুত, সরকারি দফতর মানেই যে ১৮ মাসে বছর, এই ঘটনা তারই প্রমাণ বলে স্থানীয়দের অভিমত৷ তাঁদের কথায়, জেলায় অসংখ্য নাট্য কর্মী ছড়িয়ে ছিটিয়ে রয়েছেন৷ তাঁদের একত্রিত করে সরকারি উদ্যোগে কিছু পদক্ষেপ নেওয়া হলে ভাল হয়৷ কিন্তু তা না করে ওই নাম কা ওয়াস্তে কোটি কোটি টাকা খরচ করে শুধু ভবন নির্মাণ করে সত্যি তো সংস্কৃতি ফেরানো যায় না৷ এরজন্য প্রয়োজন ধারবাহিক প্রয়াস৷ সরকারি কাজে সেটারই বড্ড অভাব বলেই মত ওই মহলের৷ তাঁদের কথায়, অশোকবাবু (Dr. Ashok Lahiri) সত্যিটাই সামনে এনেছেন৷

আরও পড়ুন: পার্থর পর এবার বিদ্রুপের মুখে অনুব্রত, শুনতে হল ‘গরু চোর’