শ্লীলতাহানির অভিযোগ, মুসলিম যুবককে পিটিয়ে মারার Viral Video

0
46
Viral Video

ভোপাল: মধ্যপ্রদেশে এক মহিলার শ্লীলতাহানির অভিযোগে নির্দয়ভাবে মারধর করা হল এক যুবককে। এই ঘটনায় ছয়জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। খান্ডোয়াতে এই হামলার ঘটনা ঘটে, ইতিমধ্যেই সেখানে পুলিশ একটি মামলা দায়ের করেছে। হামলার একটি ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ব্যাপকভাবে ভাইরাল (Viral Video) হয়ে গিয়েছে। সেই ভাইরাল হওয়া ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, একদল লোক অভিযুক্ত ব্যক্তিকে একটি শপিং মলের পার্কিং লটে ঘিরে ধরে রেখেছে।

প্রথমে তারা ওই ব্যক্তিকে হুমকি দেয় এবং তাদের প্রশ্নের উত্তর চায়। এরপর তারা তাকে গালিগালাজ করে ও চড় মারতে থাকে। ঘরের মাঝখানে টেনে নিয়ে যাওয়া হয় এবং রড দিয়ে দুই ব্যক্তি তাকে মারতে থাকে। পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে যে, ঘটনাটি ৩ জানুয়ারী হয়েছিল। ভিডিওটি ভাইরাল হওয়ার পর অভিযুক্ত ব্যক্তিদের বুধবার গ্রেফতার করা হয়েছে। এর আগে বুধবার হামলার দুই সপ্তাহ পরও কোনও গ্রেফতার না হওয়ায় স্থানীয় মুসলিম সম্প্রদায়ের একটি প্রতিনিধি দল জেলা পুলিশ প্রধানের সঙ্গে দেখা করে।

- Advertisement -

আরও পড়ুন: কম খরচে hot air balloons রাইড, কাশী বারাণসীতে ১৫০০ ফুট উঁচু থেকে বিশ্বনাথ দর্শন

ভাইরাল ভিডিও নিয়ে (Viral Video) খান্ডোয়া শাহর কাজী সৈয়দ নিসার আলী বলেন, “ছেলেটি সাহার গ্রামের বাসিন্দা এবং একজন কলেজ ছাত্র। তার বিরুদ্ধে একটি ষড়যন্ত্র করা হয়েছিল। তার বিরুদ্ধে ভুল অভিযোগ আনা হচ্ছে এবং শুধুমাত্র একজন মুসলিম বলেই তাকে মারধর করা হয়েছিল। দুষ্কৃতকারীরা গুন্ডা যারা নিজেদেরকে একটি গ্রুপের সদস্য বলে। এই ধরনের ঘটনা আমাদের শহরের নাম নষ্ট করবে।” অভিযুক্ত ব্যক্তি সেহবাজ স্থানীয় এসএন কলেজে কম্পিউটার অ্যাপ্লিকেশনে স্নাতকোত্তর কোর্স করছেন। এদিকে জেলা পুলিশ প্রধান বিবেক সিং বলেছেন, “ভাইরাল ভিডিও থেকে অভিযুক্তদের শনাক্ত করা হয়েছে। তাদের ছয়জনকেই এখন হেফাজতে রাখা হয়েছে।” এর আগে এক মহিলার শ্লীলতাহানির অভিযোগে সেহবাজের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছিল পুলিশ।