পর্যটকদের অপেক্ষায় দিন গুনছে চোখ ধাঁধানো জলপ্রপাত, তবু হুঁশ নেই প্রশাসনের

0
19
waterfalls created by nature in Tripura, tourist spots not develope due to lack of govt

বিক্রম কর্মকার, ত্রিপুরা: তীব্র দাবদাহে অনেকেই খুঁজছে একটু ঠাণ্ডা আশ্রয়। পাহাড়ের কোলের নির্জনতায় শীতল পরিবেশে বাড়ছে পর্যটকদের ভিড়। অফুরন্ত জল পাহাড়ের পাথর বেয়ে অনবরত পড়ছে। অনন্তকাল থেকে প্রকৃতির দ্বারা সৃষ্ট ত্রিপুরা বড়মুড়া পাহাড়ের পাদদেশে ওয়াটারফল বা ঝর্ণাধারা বর্তমান বিজ্ঞান যুগেও একই অবস্থানে রয়েছে। তীব্র দাবদাহের দিনগুলিতে অনেক যুবকরাই এখানে স্নান করতে আসেন। তবে সেখানেও শান্তি নেই। বড়মুড়া পাহাড়ের পাদদেশে ওয়াটারফলে যাতায়াত করার রাস্তার বেহাল দশা।

একটি রাস্তা থাকলেও তার হাল অত্যন্ত খারাপ। সেই কারণে যুবকরা মোটরবাইক বা বিভিন্ন যানবাহন নিয়ে যাওয়ার সময় যথেষ্ট ঝুঁকি থাকে। ফলে যে কোনও সময় পথ দুর্ঘটনার আশঙ্কা থেকেই যাচ্ছে। এই বিষয়ে যদিও নিশ্চুপ ত্রিপুরা প্রশাসন। রাজ্যের প্রশাসনের উদ্যোগে বড়মুড়া পাহাড়ের এই ওয়াটারফলে যাতায়াত করার জন্য বেহাল দশা রাস্তা সংস্কার করা হয়নি। সংস্কারের কাজ শুরু হলে পথ দুর্ঘটনা যেমন হ্রাস পাবে তেমনই অতি সহজে ওয়াটারফলে যাতায়াত করতে পারবে মানুষজন।

আরও পড়ুন: স্বর্ণপদকজয়ী বাস্কেটবল তারকাকে অবৈধ ভাবে আটক, প্রায় তিন মাস বাদে রাশিয়ার বিরুদ্ধে সরব মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র

 waterfalls created by nature in Tripura, tourist spots not develop  due to lack of govt

শুধু ত্রিপুরার মানুষরাই নন প্রকৃতির সৃষ্ট ঝর্ণা দেখতে পর্যটকরা আসেন। এর ফলে এখানে একটি পর্যটন কেন্দ্রও গড়ে উঠতে পারে। আরও অনেক পর্যটকরাও প্রত্যক্ষ করতে আকৃষ্ট হবে। আদতে লাভ হবে ত্রিপুরা প্রশাসনেরই। রাজ্যবাসীর পাশাপাশি দেশ-বিদেশের একাধিক পর্যটকরাও অপরূপ প্রাকৃতিক দৃশ্য চাক্ষুষ করতে পারবেন। তবে ত্রিপুরা রাজ্য প্রশাসন এবং এডিসি প্রশাসন যৌথভাবে উদ্যোগী হলেই তবেই সম্ভব।