অমরনাথ যাত্রার রাস্তাকে নিরাপদ রাখতে চলতি বছরে থাকছে এই বিশেষ ব্যবস্থাগুলি

0
11

শ্রীনগর: আর মাত্র দু’দিন পরেই শুরু হতে চলছে বার্ষিক অমনাথ যাত্রা। একধিক গোয়েন্দা সংস্থা এই তীর্থযাত্রায় সন্ত্রাসবাদি হামলা নিয়ে একাধিক সতর্কবার্তা দিয়েছে। সেই সমস্ত কিছুর উপর নজর দিয়েই তীর্থযাত্রীদের সুরক্ষার্থে জম্মু-কাশ্মীর প্রশাসন নিয়েছে বিশেষ কতগুলি ব্যবস্থা। জঙ্গি হামলার হুমকির মধ্যেও অমরনাথ যাত্রা সুষ্ঠুভাবে পরিচালনা করার চেষ্টাই চলছে।

একজন নিরাপত্তা আধিকারিক বলেছেন যে সন্ত্রাসবাদী হুমকি এবং সম্ভাব্যতার পরিপ্রেক্ষিতে কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা করা হয়েছে। ৩,৮৮০ মিটার উচ্চতায় অবস্থিত হিমালয় গুহা মন্দিরে যাওয়া জন্য তীর্থযাত্রীদের লক্ষ্যবস্তু করতে জঙ্গিরা স্টিকি বোমার ব্যবহার করতে পারে বলেই সতর্ক করা হয়েছে। লক্ষাধিক তীর্থযাত্রীর এই সুরক্ষার জন্য তাই যাত্রাপথে থাকছে ড্রোনের মত বিশেষ ব্যবস্থা। এছাড়াও পুলিশ, সেনা, সিআরপিএফ, বিএসএফ এবং এসএসবি বাহিনীকে যাত্রা রুটের উভয় পাশে মোতায়েন করা হয়েছে। ৪৩ দিনের যাত্রাটি দুটি পাহাড়ি রুট থেকে শুরু হওয়ার কথা । একটি হল দক্ষিণ কাশ্মীরের অনন্তনাগের পাহালগামের নুনওয়ান থেকে গুহা মন্দির পর্যন্ত ৪৮ কিলোমিটার পথ এবং দ্বিতীয়টি হল মধ্য কাশ্মীরের গান্ডারবাল জেলার বালতাল থেকে ১৪ কিলোমিটার ছোট পথ।

- Advertisement -

আরও পড়ুন- জাতীয় তদন্তকারী সংস্থার প্রধান হিসাবে দায়িত্ব নিলেন পাঞ্জাবের প্রাক্তন DGP

৩০ জুন শুরু হতে যাত্রা অমরনাথ যাত্রা নিয়ে ইতিমধ্যেই জম্মু-কাশ্মীর পুলিশ ও নিরাপত্তা সংস্থার সঙ্গে বৈঠক করেছেন জম্মু-কাশ্মীরের রাজ্যপাল। এক নিরাপত্তা আধিকারিক জানিয়েছেন, কনভয়গুলিকে নিরাপত্তা প্রদানকারি গাড়ির সাহায্যে নিয়ে যাওয়া হবে। কর্তৃপক্ষ এই বছর তীর্থযাত্রীদের রিয়েল-টাইম ট্র্যাকিং এবং পর্যবেক্ষণের জন্য রেডিও ফ্রিকোয়েন্সি আইডেন্টিফিকেশন (RFID) বাধ্যতামূলক করেছে। কাশ্মীরে অতিরিক্ত সেনা পাঠানো হয়েছে। জম্মু ও কাশ্মীরের নিয়ন্ত্রণ রেখা এবং আন্তর্জাতিক সীমান্ত বরাবর নিরাপত্তা ব্যবস্থাও জোরদার করা হয়েছে। উল্লেখ্য, সরকার আশা করছে দীর্ঘ দু বছর পর করোনা ভয় কাটিয়ে চলতি বছরে প্রায় ৮ লাখ তীর্থযাত্রী অমরনাথ ভ্রমণ করবেন। এই পুন্যযাত্রা শেষ হবে ১১ আগস্ট রাখী পূর্ণিমার দিন।