লক্ষ্য রাষ্ট্রপতি নির্বাচন, বৈঠকে বসলেন বিজেপির শীর্ষ নেতৃত্ব 

0
43

নয়াদিল্লি : অমিত শাহ এবং জেপি নাড্ডা সহ শীর্ষ বিজেপি নেতারা সোমবার রাজ্যসভা নির্বাচন এবং মাত্র দুই মাস পরে রাষ্ট্রপতি নির্বাচন নিয়ে চার ঘন্টার বৈঠক করেছেন। বিজেপি-নেতৃত্বাধীন জোট এবং বিরোধীরা উভয়েই ভারতের নতুন রাষ্ট্রপতির জন্য তাদের নিজস্ব প্রার্থী দাঁড় করানোর জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছে, এই নির্বাচনটি আরেকটি নির্ণায়ক নির্বাচনকে প্রতিফলিত করবে, সেটা হল ২০২৪ সালের জাতীয় নির্বাচন।

আরও পড়ুন : বিজেপির অস্বস্তি বাড়িয়ে জাতি গণনার জন্য চাপ বাড়ালেন নীতিশ 

১০ জুন রাজ্যসভার ৫৭টি আসনের জন্য মনোনয়ন শুরু হওয়ার এক দিন আগে, সোমবার সন্ধ্যায় জেপি নাড্ডার বাড়িতে বিজেপি নেতারা মিলিত হন। রাজ্যসভার নির্বাচনেও প্রভাব পড়বে রাষ্ট্রপতি নির্বাচনের ওপর। বর্তমান রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দের মেয়াদ শেষ হচ্ছে ২৫ জুলাই। বিরোধীরা এখনও রাষ্ট্রপতির জন্য একটি যৌথ প্রার্থী ঘোষণা করতে পারেনি এবং ঐক্যমত্য গড়ে তোলার জন্য বৈঠকে নেতৃত্ব দিচ্ছেন তেলেঙ্গানার মুখ্যমন্ত্রী কে চন্দ্রশেখর রাও বা কেসিআর এবং মহারাষ্ট্রের নেতা শরদ পাওয়ার।

আরও পড়ুন : মাদ্রাসা নিয়ে মন্তব্য করায় এবার ওয়াইসির আক্রমণের মুখে অসমের মুখ্যমন্ত্রী 

সমস্ত সাংসদ এবং বিধায়কের ভোটের ৪৮.৯% বিজেপির রয়েছে। বিরোধী দল ও অন্যান্য দলগুলোর ভোট ৫১.১ শতাংশ। তাঁর প্রার্থীকে সমর্থন করার জন্য বিজেপির কেবলমাত্র একজন বন্ধু দরকার – যেমন ওড়িশার মুখ্যমন্ত্রী নবীন পট্টনায়কের বিজেডি (বিজু জনতা দল) বা অন্ধ্রপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী জগন মোহন রেড্ডির ওয়াইএসআর কংগ্রেস। কেসিআর, যিনি ২০২৪ সালের সাধারণ নির্বাচনের জন্য একটি অ-কংগ্রেস, অ-বিজেপি ফ্রন্টের হয়ে কাজ করছেন, মুখ্য বিরোধী নেতাদের সঙ্গে দেখা করছেন, স্পষ্টতই রাষ্ট্রপতি নির্বাচনকে একটি পরীক্ষামূলক চর্চা হিসেবে ব্যবহার করছেন।