জিন্না টাওয়ারের নাম বদলে প্রাক্তন রাষ্ট্রপতির নামে রাখার দাবি বিজেপির

0
11

খাস খবর ডেস্ক: দেশের বহু পুরনো, জনপ্রিয়, ঐতিহ্যবাহী স্থানের নাম বদলে গিয়েছে। মুঘলসরাই হয়েছে দীনদয়াল উপাধ্যায় জংশন। এলাহাবাদ এখন প্রয়াগরাজ। বেশ কিছু জায়গার নাম বদলের আবেদনের দীর্ঘ তালিকা রয়েছে। এবার অন্ধ্রপ্রদেশের প্রাচীন জিন্না টাওয়ারের নাম বদলে দেশের প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি এপিজে আবদুল কালামের নামে রাখার দাবি উঠল। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় বিজেপি জাতীয় সচিব সুনীল দেওধর-সহ অন্য বিজেপি কর্মীরা জিন্না টাওয়ারের দিকে মিছিল করে যাচ্ছিলেন। ঠিক সেই সময় পুলিশ তাঁদের আটক করে।

আরও পড়ুনঃ ফের থমকে গেল Instagram পরিষেবা

জানা গিয়েছে, দলের যুব শাখা বিজেওয়াইএম এই নিয়ে একটি বৈঠক করেছিল। সেই বৈঠকের পরই ঠিক হয়, নাম বদলের দাবিতে জিন্না টাওয়ারে গিয়ে বিক্ষোভ দেখানো হবে। কিন্তু সেই কর্মসূচি ব্যর্থ হয়। পুলিশ মাঝপথেই আটকে দেয় মিছিলটিকে। আটক করা হয় বিজেপি নেতাদের।

আরও পড়ুনঃ এ কি কাণ্ড, স্কুলের সিঁড়িতে-রাস্তায়-দেওয়ালে লাল অক্ষরে লেখা ‘SORRY’

এদিকে, দলীয় নেতাদের আটকের ঘটনার তীব্র নিন্দা করেছেন বিজেপি রাজ্যসভার সদস্য জিভিএল নরসিমহা রাও। তিনি বলেছেন, ‘এটা অন্ধ্রপ্রদেশ না পাকিস্তান?‌’ বিজেপি রাজ্য সভাপতি সোমু বীররাজু বলেছেন, ‘শুধু বিজেপি নয়, সাধারণ মানুষও চাইছেন জিন্না টাওয়ারের নাম বদল হোক। আমাদের দাবির বিরুদ্ধে এমন আক্রমণাত্মক পদক্ষেপ করতে পারবে না রাজ্য সরকার।’

উল্লেখ্য, অন্ধ্রপ্রদেশের গুন্টুরে অবস্থিত জিন্না টাওয়ার একটি বিখ্যাত স্মৃতিসৌধ। শহরের মহাত্মা গান্ধী রোডে অবস্থিত জাতীয় পতাকার তিন রঙে রঞ্জিত এই টাওয়ারটির নামকরণ নিয়ে বিতর্ক আগেও হয়েছে। ছ’টি পিলারের সাহায্যে গঠিত এই টাওয়ারের গঠনশৈলী দ্বাদশ শতকের মুসলিম স্থাপত্যের কথা মনে করায়। প্রায় ৬০ বছরের বেশি সময়ের ইতিহাস জড়িয়ে রয়েছে জিন্না টাওয়ারের সঙ্গে। যদিও এই টাওয়ারটির রক্ষণাবেক্ষণে অবহেলার অভিযোগ রয়েছে। রাজ্যের আর্কিওলজি বিভাগের মতে, অবিলম্বে একে সুরক্ষিত স্মৃতিসৌধের তালিকাভুক্ত করা দরকার।