রাহুলের অফিসে হামলা সিপিএমের ছাত্র সংগঠনের, নিন্দায় পিনারাই, সীতারামরা 

0
27

নয়াদিল্লি ও ওয়ানাদ : কেরলের ওয়ানাদে রাহুল গান্ধীর অফিস ভাঙচুরের ঘটনায় আন্দোলিত হচ্ছে দিল্লির জাতীয় রাজনীতি। এই ঘটনায় অভিযোগের তীর সরাসরি সিপিএমের ছাত্র সংগঠন এসএফআইয়ের দিকে। বিরোধী রাজনীতির অন্যতম প্রিয় সতীর্থর অফিসে হামলার অভিযোগ যখন তাঁর দলের ছাত্র সংগঠনেরই বিরুদ্ধে, তখন আর চুপ করে থাকেননি সিপিএমের সাধারণ সম্পাদক সীতারাম ইয়েচুরি।

আরও পড়ুন : মোদী, রাজনাথকে ফোন রাষ্ট্রপতি নির্বাচনে বিরোধী প্রার্থী যশবন্তের 

এই ঘটনায় সীতারাম ইয়েচুরি বলেছেন, “ওয়ানাদে যে ঘটনাটি ঘটেছে তার নিন্দা করছি। প্রত্যেক বিরোধীর মতপ্রকাশের অধিকার আছে। এই ধরণের হামলা কোনও প্রতিবাদের মাধ্যম হতে পারে না।   এই ঘটনায় পুলিশ তদন্ত করে ব্যবস্থা নেবে এই ঘটনায় যারা দোষী তাদের বিরুদ্ধে”। প্রসঙ্গত এহেন আক্রমণটি ঘটে শুক্রবার যখন এসএফআই কর্মীরা কেরলে রাহুল গান্ধীর অফিসের সামনে দিয়ে মিছিল করে যাচ্ছিল এবং সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশে কৃষকদের পক্ষে রাহুলের হস্তক্ষেপের দাবি করেছিল যে সুরক্ষিত বনভূমি এবং বন্যপ্রাণী অভয়ারণ্যগুলিকে তাদের সীমানা থেকে এক কিলোমিটারের একটি ইকো-সংবেদনশীল অঞ্চল থাকতে হবে।

আরও পড়ুন : শিবসেনা বিধায়কদের বিদ্রোহের সঙ্গে বিজেপি যোগের কথা অস্বীকার করলেন একনাথ 

ওয়ানাদ জেলার সদর দফতর কালপেট্টার কাছে একদল এসএফআই কর্মী এমপির অফিসে ঢুকে পড়ে, অফিসের কর্মীদের লাঞ্ছিত করে এবং আসবাবপত্র নষ্ট করে। হামলার প্রতিবাদে কংগ্রেস কর্মীরা জাতীয় সড়ক অবরোধ করে। ভাঙচুরের নিন্দা করে, বিরোধী নেতা ভিডি সতীসান বলেছেন যে এটি রাজ্যের অনাচার দেখায়। শাসক সিপিএম একটি সংগঠিত মাফিয়ায় পরিণত হয়েছে, তিনি অভিযোগ করেন। এদিকে রাহুল গান্ধীর কার্যালয়ে হামলার নিন্দা করেছেন মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়ন। “গণতান্ত্রিক উপায়ে প্রতিবাদ করার স্বাধীনতা রয়েছে। যাইহোক, বিক্ষোভ সহিংসতায় পরিণত হওয়া একটি ভুল প্রবণতা। হামলায় জড়িতদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে,” তিনি এক বিবৃতিতে বলেছেন।