সেনার সঙ্গে লড়াইয়ে কাশ্মীরে জঙ্গিরা ব্যবহার করছে আফগানিস্তান থেকে আসা বুলেটপ্রুফ জ্যাকেট ভেদ করা গুলি

0
141
Grenade Attack

শ্রীনগর: গত বছর তালিবানরা আফগানিস্থন দখল নেওয়ার পর থেকেই ভারতের বড় মাথা ব্যথার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে সন্ত্রাস। এই আশঙ্কা যদিও আগে থেকেই করা। নিরাপত্তা বিশেষজ্ঞরা আগেই জানিয়েছিলেন তালিবানদের ক্ষমতা বিসাত্র মানের পাকিস্তানের লাভ। সেই সঙ্গেই জম্মু-কাশ্মীরে সন্ত্রাসবাদে মদত দেওয়া আর বাড়বে। সেটাই হয়েছে। এমনকি সন্ত্রাসবাদীরা সেই সমস্ত অস্ত্রের ব্যবহার করছে জেগুলি আমেরিকান সেনা ফেলে গিয়েছে। সেই প্রমাণ আবারও মিলেছে। সামনে এসেছে চাঞ্চল্যকর তথ্য। কাশ্মীর উপত্যকার কিছু সন্ত্রাসবাদী ভারতীয় নিরাপত্তা বাহিনীর সাথে লড়াইয়ে সময় ব্যবহার করছে আমেরিকান আর্মার ভেদকারী বুলেট যা সেনাদের বুলেটপ্রুফ জ্যাকেট লঙ্ঘন করতে সফল হয়েছে।

আফগানিস্তান থেকে কাশ্মীরে জঙ্গিদের হাতে আসা এই আমেরিকান উন্নতমানের অস্ত্র এখন সেনার কাছে চিন্তার কারণ। সেনাসূত্রে জানানো হয়েছে বুলেটগুলি আফগানিস্তানে মার্কিন বাহিনীর অবশিষ্ট অস্ত্রের অংশ যা তালিবানদের দ্বারা সমস্ত গুরুত্বপূর্ণ প্রদেশ এবং শহরগুলি দখলের কারণে পরিকল্পনার আগে ছেড়ে যেতে হয়েছিল। সরকারি সূত্র সংবাদ মাধ্যমকে জানিয়েছে, “সন্ত্রাসবাদীরা নিরাপত্তা বাহিনীর বিরুদ্ধে পোশাক ছিদ্রকারী বুলেট ব্যবহার করেছিল এবং কিছু সেনাদের দ্বারা পরিধান করা বুলেটপ্রুফ জ্যাকেটগুলি লঙ্ঘন করতে সক্ষম হয়েছিল৷ কানাডায় তৈরি রাতে দেখতে সক্ষম উন্নত অস্ত্রওজঙ্গিদের কাছে পাওয়া গিয়েছে যেগুলি ন্যাটো সৈন্যদের অবশিষ্ট স্টক।”

আরও পড়ুন- ‘BJP-র হাইকমান্ড তাদের নেতাদের নির্দেশ দিয়েছে রাজস্থানে মানহানি ও অস্থিরতা তৈরির’ বিস্ফোরক গেহলট

উল্লেখ্য, এপ্রিলের শুরুতেই এই বিদেশ অস্ত্র ব্যবহার নিয়ে সেনাকর্তারা বৈঠক করেছেন। তাঁরা আশঙ্কা প্রকাশ করে জানিয়েছেন, আর্মার-পিয়ার্সিং বুলেট বা ইস্পাত কোর বুলেটগুলি একটি নির্দিষ্ট স্তরের জ্যাকেট দ্বারা বুলেটের বিরুদ্ধে প্রদত্ত সুরক্ষা লঙ্ঘন করতে পারে। শুধু তাই নয় বিদেশী এই অস্ত্রগুলি সন্ত্রাসবাদ দমনের অপারেশন পরিচালনার জন্য সমস্যা তৈরি করতে পারে।