Rail strike: এই দিন ভারত জুড়ে বন্ধ থাকবে রেল পরিষেবা

0
246
train

খাস খবর ডেস্ক: ফের রেল ধর্মঘটের আশঙ্কা। চলতি মাসের ৩১ মে কার্যত স্তব্ধ হতে চলেছে গোটা দেশ। বন্ধ হতে পারে রেল পরিষেবা। এর ফলে, সাধারণ জনজীবনের ওপর যে প্রভাব পড়বে তা বলাই বাহুল্য। কারণ, রেলের ওপর নির্ভর করে বহু মানুষের জীবিকা। সুতরাং, কেন্দ্রীয় রেল মন্ত্রক অবিলম্বে পদক্ষেপ না নিলে যে বড়সড় সমস্যায় পড়তে চলেছেন সকল দেশবাসী।

আরও পড়ুনঃ Wifi-Network -থেকে দূরে, ‘ভালোবাসার গ্রামে’ সময় কাটিয়ে আসুন

রেলওয়ের বিরুদ্ধে চরম উদাসীনতার অভিযোগ এনে একযোগে রেলকে নোটিশ ধরিয়েছেন দেশের ৩৫ হাজারের বেশি স্টেশন মাস্টার। সেই নোটিশে আগামী ৩১ মে ধর্মঘটের কথা স্পষ্ট ভাবেই জানিয়েছেন তাঁরা। ২০২০ সালের অক্টোবর থেকেই একাধিক দাবি জানিয়ে আসছে। তাঁদের দাবি, রেলওয়ের সমস্ত শূন্যপদ যত তাড়াতাড়ি সম্ভব পূরণ করতে হবে। রেলওয়ে কর্মচারীদের নাইট ডিউটিতে ভাতা ফের বহাল করতে হবে। ১৬/০২/২০১৮ এর পরিবর্তে ০১/০১/২০১৬ থেকে স্টেশন মাস্টারদের ক্যাডারে MACP-এর সুবিধা দিতে হবে।

আরও পড়ুনঃ সরকারি কর্মীদের জন্য সুখবর, একলাফে ১৪% বাড়বে DA

সর্বভারতীয় স্টেশন মাস্টার্স অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি ধনঞ্জয় চন্দ্রত্রে জানান, ‘সরকার স্টেশন মাস্টারদের কোনও দাবিই শুনছে না। সারা দেশে ৬ হাজারেরও বেশি স্টেশন মাস্টার পদ শূন্য পড়ে রয়েছে। এই পদগুলিতে নিয়োগ করছে না রেলওয়ে। বর্তমানে দেশের প্রায় অর্ধেক স্টেশনেই মাত্র ২ জন করে স্টেশন মাস্টার রয়েছেন। যা ভয়াবহ সমস্যার সৃষ্টি করছে। স্টেশন মাস্টারদের কাজের শিফট ৮ ঘন্টার হলেও এই কর্মী ঘাটতির জন্য ১২ ঘন্টা করে কাজ করতে হচ্ছে তাঁদের।’

তিনি আরও জানিয়েছেন, ‘কোনওদিন একজন স্টেশন মাস্টার ছুটি নিলে অন্য স্টেশন থেকে কর্মীদের ডাকতে হচ্ছে কোনও মতে কাজ সামাল দেওয়ার জন্য। নির্দিষ্ট কাজের অনেক বেশি কাজ করানো হচ্ছে স্টেশন মাস্টারদের দিয়ে। অবিলম্বে স্টেশন মাস্টার পদে নিয়োগ করতে হবে সরকারকে। না হলে একযোগে ধর্মঘটের ডাক দিতেই বাধ্য হবেন সবাই।’