নুপূর শর্মা-বিতর্কের পর প্রথমবার আবুধাবি সফরে নরেন্দ্র মোদী, নেপথ্যে কোন খেলা

0
17

খাস খবর ডেস্ক: নুপূর শর্মা বিতর্কে শুধু দেশ নয়, উত্তাল গোটা বিশ্ব। বিশেষ করে, মুসলিমপ্রধান আরব দুনিয়া। আর এবারে সেই আরব দুনিয়াতেই পা রাখতে চলেছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। আগামী রবিবার জার্মানির বাভারিয়ায় জি-৭ শীর্ষ সম্মেলনে যোগ দিতে চলেছেন মোদী। এরপর সংযুক্ত আরব আমীরশাহীর আবুধাবি হয়ে দেশে ফিরবেন তিনি।

আরও পড়ুন: পেট্রলের অপচয় কমাতে গাড়ি চড়ছেন না এমপি-রা, স্থগিত পার্লামেন্টের অধিবেশন

- Advertisement -

যে কটি দেশ মহানবীর প্রতি নুপূর শর্মার বিস্ফোরক মন্তব্যের প্রতিবাদ জানিয়েছিল, তাদের মধ্যে আরব আমিরশাহী-ও রয়েছে। নুপূর শর্মা বিতর্কের পর এই প্রথম দেশটিতে সফর করতে চলেছেন ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী। কী উদ্দেশ্যে এই সফরের নেপথ্যে?

ভারত সরকারের তরফ থেকে একটি নেহাতই সাদামাটা যুক্তি দেওয়া হয়েছে। সদ্য প্রয়াত হয়েছেন আবুধাবির শাসক শেখ খলিফা বিন জায়েদ আল নাহিয়ান। তাঁর স্থলাভিষিক্ত হচ্ছেন শেখ মহম্মদ বিন জায়েদ আল নাহিয়ান। কেন্দ্রের দাবি, সেই উপলক্ষ্যেই জার্মানি থেকে ফেরার পথে আবুধাবিতে এক বেলা কাটিয়ে আসবেন প্রধানমন্ত্রী। তিনি প্রয়াত শাসকের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করার পাশাপাশি নয়া শাসককে অভিনন্দন জানাবেন।

খাস খবর ফেসবুক পেজের লিঙ্ক:
https://www.facebook.com/khaskhobor2020/

বলাই বাহুল্য, এ যুক্তিতে সন্তুষ্ট হতে পারছে না রাজনৈতিক মহল। বরং বিশেষজ্ঞদের দাবি, নুপূর শর্মা বিতর্কের পর মোদীর এই সফর আসলে এক কূটনৈতিক পদক্ষেপ। দুই দেশের মধ্যে বাণিজ্যিক সম্পর্ক বেশ গভীর। ভারত কখনওই চাইবে না, সামান্য কারণে সে সম্পর্ক নষ্ট হোক। প্রবীণ সাংবাদিক তথা রাজনৈতিক বিশ্লেষক শরদ গুপ্তা এ প্রসঙ্গে এক সাক্ষাৎকারে বলেন, “তেল রফতানি বাদ দিলে সংযুক্ত আরব আমিরশাহীর অন্যতম প্রধান বাণিজ্য সঙ্গী ভারত-ই। মোদী এই সফরে সেই সম্পর্ক টিকিয়ে রাখার-ই বার্তা দিতে চলেছেন।”