তালিবানদের উত্থানে লাভ পাকিস্তানের, ভারতে বাড়াবে সন্ত্রাসবাদী কার্যকলাপ

0
29
প্রতীকী ছবি

নয়াদিল্লি: আফগানিস্তান সম্পূর্ণ নিজেদের দখলে করে নিয়েছে তালিবানরা। নিরাপত্তা বিশেষজ্ঞদের মতে আফগানে তালিবানদের উত্থান ভারতের পক্ষে যথেষ্ট উদ্বেগের কারণ। একজন যে নিরাপত্তা বিশেষজ্ঞের মতে আফগানিস্তানের সাম্প্রতিক ঘটনাবলী কাশ্মীরের সন্ত্রাসবাদবাদকে আরও বাড়িয়ে তুলবে।

প্রাক্তন জম্মু-কাশ্মীর পুলিশ প্রধান এসপি বৈদ এই নিয়ে আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন। তিনি বলেছেন, “পাকিস্তান এখন আন্তর্জাতিক তদন্ত এড়ানোর জন্য এবং কাশ্মীরের হিংসায় তাদের কোন ভূমিকা নেই দাবি করার জন্য জইশ এবং লস্করের জঙ্গিদের প্রশিক্ষণ শিবিরগুলিকে পিওকে থেকে আফগানিস্তানে স্থানান্তরিত করবে। এটা পাকিস্তানের জন্য উপযুক্ত। ভারত বিরোধী সন্ত্রাসবাদী গোষ্ঠীগুলো আফগানিস্তানে নিরাপদ আশ্রয় পাবে।”

আরও পড়ুন- যে লড়াই আফগানদের, সেখানে মার্কিন সেনা প্রাণ দেবে না: জো বাইডেন

তিনি উদ্বেগ প্রকাশ করে বলেছেন, আফগানিস্তানের মাটি এখন ৯/১১-এর মতো বড় হামলার পরিকল্পনা এবং কাশ্মীরে জঙ্গিদের উত্সাহিত করার জন্য ব্যবহার করা হতে পারে। তাঁর দাবি সন্ত্রাসবাদী কার্যক্রম পুনরুজ্জীবিত করার জন্য পাকিস্তান তালিবানকে জম্মু-কাশ্মীরে কিছু পদ দিতে পারে। তিনি আশঙ্কা প্রকাশ করে দাবি করেছেন, “৯/১১ আফগানিস্তানের মাটি থেকে ঘটেছিল যখন তালিবানরা শাসন করছিল, তাহলে এরকম বড় কিছু আবার হবে না তার গ্যারান্টি কি?”

আরও পড়ুন- পাক সীমান্তবর্তী গ্রামেও ড্রোন হামলা করতে পারে জঙ্গিরা, সতর্ক করল BSF

সিনিয়র প্রতিরক্ষা বিশ্লেষক মেজর জেনারেল এসবি আস্থানা (retd) আরও এক ধাপ এগিয়ে বলেছিলেন যে সন্ত্রাসবাদেরের জন্য বিস্ফোরক পদার্থ রপ্তানি “আমাদের প্রত্যাশার চেয়ে দ্রুত হবে”। উল্লেখ্য, গত কয়েক বছর ধরে জাতিসংঘের তৈরি একাধিক রিপোর্টে দাবি করা হয়েছে যে, জৈশ-ই-মহম্মদ এবং লস্কর-ই-তৈবার মতো দলগুলি তালিবানদের সঙ্গে ঘনিষ্ঠ সমন্বয়ে কাজ করছে।