দেশবিরোধী স্লোগান দিলেও এফআইআর নয়, মত মেহবুবার

0
13

খাস খবর ডেস্ক : পিডিপি সভাপতি মেহবুবা মুফতি রবিবার কট্টর বিচ্ছিন্নতাবাদী নেতা সৈয়দ আলী শাহ গিলানীর মরদেহ পাকিস্তানি পতাকায় ফেলা এবং তার মৃত্যুর পর “দেশবিরোধী” স্লোগান দেওয়ার অভিযোগে এফআইআর দায়েরের জন্য কেন্দ্রীয় সরকারকে কটাক্ষ করেন।

আরও পড়ুন : জৈব চাষের ধাক্কায় ভাড়ে মা ভবানী দশা শ্রীলঙ্কার 

বুদগাম পুলিশ বেআইনি কার্যকলাপ (প্রতিরোধ) আইন এবং ভারতীয় দণ্ডবিধির বিভিন্ন বিধানের অধীনে অজ্ঞাতনামা ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে এফআইআর নথিভুক্ত করেছে, একটি ভিডিও ক্লিপের নোটিশ গ্রহণ করে যাতে দেখা গেছে গিলানীর মরদেহ পাকিস্তানি পতাকায় আবৃত।যাইহোক, পুলিশ মৃতদেহটি নেওয়ার জন্য এগিয়ে যাওয়ার সাথে সাথে প্রয়াত বিচ্ছিন্নতাবাদী নেতার সহযোগীরা পতাকাটি সরিয়ে দেয়।দীর্ঘদিন অসুস্থ থাকার পর ৯১ বছর বয়সী গিলানী বুধবার রাতে নিজ বাসভবনে মারা যান। মৃতদেহটি পাশের একটি মসজিদের কবরস্থানে শায়িত করা হয়।

আরও পড়ুন : উত্তরপ্রদেশে ছোট দলের সঙ্গে জোটে কংগ্রেস বলছেন লাল্লু

এফআইআর দায়েরের সমালোচনা করে মেহবুবা টুইট করেছেন, “কাশ্মীরকে একটি উন্মুক্ত বায়ু কারাগারে পরিণত করার পর এখন মৃতরাও রেহাই পাচ্ছে না। একটি পরিবারকে তাদের ইচ্ছানুযায়ী শোক করার এবং চূড়ান্ত বিদায় জানানোর অনুমতি নেই। গিলানি সাহেবের বুকিং ইউএপিএ -র অধীনে পরিবারের প্রতি গভীর বদ্ধমূল প্যারানিয়া এবং নির্মমতা দেখায় কেন্দ্রীয় সরকার। এটি নতুন ভারতের নয়া কাশ্মীর।”

আরও পড়ুন : “ভারত বিক্রি করাই কেন্দ্রীয় সরকারের নীতি” কটাক্ষ টিকায়েতের 

প্রসঙ্গত আফগানিস্তানে তালিবানের শাসন শুরু হওয়ার পর থেকেই কাশ্মীরকে নিয়ে খুবই চিন্তিত নয়াদিল্লি। সেই সময়েই কাশ্মীরের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রীর এহেন মন্তব্য খুবই তাৎপর্যপূর্ণ বলছেন রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকরা।