এই শর্তেই কথা বলব, উদ্ধবকে বড় চ্যালেঞ্জ একনাথের

0
15

মুম্বই: সময় জোট যাচ্ছে ততই বাড়ছে উদ্ধব ঠাকরে ও একনাথ শিণ্ডের লড়াই। মুম্বই থেকে অসমের মধ্যে শুরু হয়েছে চ্যালেঞ্জ ছোঁড়ার লড়াই। বুধবাররে মহারাষ্ট্রের ভিডিও বার্তার পরেই রাজনৈতিক তরজা চরমে উঠেছে। ইস্তফাপত্র তৈরি বলেই দাবি করেছিলেন উদ্বব। সেই বার্তারই পাল্টা চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দিলেন অসমে হোটেলে থাকা একনাথ। বৈঠকে বসার জন্য শিণ্ডে মুখ্যমন্ত্রীকে দিয়েছেন বড় শর্ত।

মোট ৪৯ জন বিধায়ককে সঙ্গে নিয়ে মুখ্যমন্ত্রীকে নিশানা করে শিণ্ডে দিয়েছেন নতুন ভিডিও বার্তা। যেখানে তিনি শিবসেনা প্রধানকে নিশানা করে বলেছেন, “উদ্ধব কথায় কোনও ভরসা নেই আগে তিনি ইস্তফা দিন।” একনাথের সাফ কথা, “জোট ছেড়ে আগে মুখ্যমন্ত্রিত্ব ছাড়ুন।” একই সঙ্গে শিণ্ডে ভিডিও বার্তায় দাবি করেছেন বিক্ষুব্ধ বিধায়কদের সংখ্যা আরও বাড়বে। বর্তমানে ৪৯ জন বিধায়কের মধ্যে ৪২ জন শিবসেনার বলেই দাবি করা হয়েছে। যদিও শিণ্ডের এই দাবি মানতে নারাজ শিবসেনা শিবির। পাল্টা দাবি করে জানানো হয়েছে বিক্ষুব্ধ বিধায়কদের মধ্যে ১৫ জন শিবসেনার রয়েছে বলেই দাবি করেছেন দলের মুখপাত্র সঞ্জয় রাউত। এমনকি শিণ্ডের বিরুদ্ধে জোর করে বিধায়কদের আটকে রাখার অভিযোগ এনেছে শিবসেনা।

আরও পড়ুন- কুণালের পছন্দের প্রার্থীতেই কেন আস্থা রাখলেন মোদী, বাড়ছে জল্পনা

 অন্যদিকে শিণ্ডের শিবিরের দাবি নস্যাৎ করে পাল্টা দাবি করে শিবসেনার মুখপাত্র সঞ্জয় রাউত বলেছেন, “ভোটাভুটিতেই দেখা যাবে কার পাশে কতজন রয়েছেন।” সেই সঙ্গেই শিবসেনার দুই বিধায়ক নীতিন দেশমুখ ও কৈলাস দেশমুখ শিণ্ডে বিরুদ্ধে তাঁদের জোরজবরদস্তির অভিযোগ এনেছেন। যত সময় যাচ্ছে ততই প্রকট হয়ে উঠছে একনাথ ও উদ্ধবের দ্বন্দ। এনসিপি প্রধান একনাথকে মুখ্যমন্ত্রী করার প্রস্তাব দিয়ে ব্যপারটা ঠাণ্ডা করার চেষ্টা করলেও হয়নি কিছুই। উল্টে উদ্ধবকেই সরাসরি চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দিলেন।