চিন ভবিষ্যতের শত্রুতামূলক পদক্ষেপের ভিত্তি তৈরি করছে, ফের মোদী সরকারকে সতর্ক করলেন রাগা

0
57
Rahul-Modi

নয়াদিল্লি: লাদাখ সীমান্তে চিনের গতিবিধি উদ্বেগজনক। একাধিক ব্রিজ বানাচ্ছে ড্রাগন, ভারতকে সতর্ক করে আমেরিকা সেনার কমান্ডিং জেনারেল এই বার্তা দেওয়ার পরেই আরও একবার লাদাখ সীমান্তে চিনের অবস্থান নিয়ে মোদী সরকারকে নিশানা করেছেন প্রাক্তন কংগ্রেস প্রধান রাহুল গান্ধী (rahul Gandhi)। আরও একবার সতর্ক করে বলেছনে, লাদাখে প্রকৃত নিয়ন্ত্রণ রেখা বরাবর চিন ভবিষ্যতের শত্রুতামূলক পদক্ষেপের ভিত্তি তৈরি করছে।

রাহুল গান্ধী টুইটে মোদী সরকারকে জোরাল ভাষায় আক্রমণ করে করেছেন টুইট। লিখেছেন, “চিনের এই একের পর এক পদক্ষেপ উপেক্ষা করে, কেন্দ্রীয় সরকার ভারতের সঙ্গে বিশ্বাসঘাতকতা করছে।” গত মাসে, বেশ কয়েকটি প্রতিবেদনে ইঙ্গিত দিয়েছে যে, চিন পূর্ব লাদাখের কৌশলগতভাবে গুরুত্বপূর্ণ প্যাংগং তসোর আশেপাশে একটি অঞ্চলে একটি দ্বিতীয় সেতু নির্মাণ করছে। যা তাদের সেনাবাহিনী ও অস্ত্র সরবরাহের রাস্তাকে আরও সহজ করে তুলবে। লাদাখে ভারত-চিনের অবস্থান প্রসঙ্গে জানতে চাওয়া হলে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সেনাবাহিনীর প্যাসিফিক কমান্ডিং জেনারেল চার্লস এ ফ্লিন বলেছেন, “আমি বিশ্বাস করি যে কার্যকলাপের স্তরটি চোখ খুলে দেওয়ার মতো এবং আমি মনে করি পশ্চিমা থিয়েটার কমান্ডে যে কিছু অবকাঠামো তৈরি করা হচ্ছে তা উদ্বেগজনক।”

- Advertisement -

হিমালয় সীমান্ত জুড়ে চিনের পরিকাঠামো নির্মাণেকে চার্লস এ ফ্লিন “অস্থিতিশীল এবং ক্ষতিকারক আচরণ” বলেই উল্লেখ করেছেন। তিনি আরও বলেছেন, এই অঞ্চলে চিনের “ক্রমবর্ধমান এবং ছলনাময় পথ, এবং অস্থিতিশীল ও ক্ষয়কারী আচরণ সহায়ক নয়।” আমেরিকার পক্ষ থেকে তিনি এশিয়া-প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলের দেখভাল করেন। তাঁর পর্যবেক্ষণকে গুরুত্ব দেওয়ার কথা আরও এবার বলছেন কংগ্রেস নেতা (rahul Gandhi)। উল্লেখ্য, ২০২০ সালের ১৫ জুন গালওয়ানে ভারত-চিনা সেনার রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষে ২০ জন ভারতীয় জওয়ান শহিদ হওয়ার পর থেকেই দুই দেশের সম্পর্কে চিড় ধরেছে। লাদাখে প্রকৃত নিয়ন্ত্রণ রেখা বরাবর কিছু জায়গা নিয়ে সমাধান মিললেও আরও বেশ কয়েকটি জায়গা নিয়ে দুই দেশ সমাধানসূত্র বের করতে পারেনি। ভারত-চিনের শীর্ষ সামরিক কর্তারা বৈঠক করেছেন একাধিক দফায়।