বেদনাদায়ক, অস্ট্রেলিয়া থেকে বাবার আনা চকলেট খেতে গিয়ে মৃত ৮ বছরের শিশু

0
97

হায়দরাবাদ: প্রতিদিনের মত বাবা তাঁর সন্তানদের স্কুলে ছেরে দিয়ে ফিরছিলেন নিজের কাজে। কিন্তু কিছু মুহূর্ত পরেই যে তাঁর দেওয়া জিনিসের কারণে নিজের সন্তানের মৃত্যু হবে তা স্বপ্নের কল্পনা করতে পারেননি বাবা। অস্ট্রেলিয়া থেকে আনা চকলেট গলায় আটকে মৃত্যু হয়েছে ৮ বছরের শিশুর।

অস্ট্রেলিয়া থেকে আনা একটি চকোলেট আট বছর বয়সী ছাত্রের শ্বাসরোধ হয়ে মৃত্যুর কারণ হয়ে উঠেছে। ঘটনাটি ঘটে সকাল ৯.১৫ টার দিকে বাবা তাঁর সন্তানদের স্কুলে নামানোর কিছুক্ষণ পর। ওয়ারঙ্গলের পিন্নাওয়ারি স্ট্রিটে শোকের ছায়া নেমে এসেছে কারণ ছেলেটির স্কুল এবং তার বাড়ি উভয়ই একই এলাকায় অবস্থিত। চকলেটটি তার গলায় আটকে যায় এবং শ্বাসরোধের কারণে তার মৃত্যু হয় বলে জানা গিয়েছে। স্কুল ম্যানেজমেন্টের মতে, সন্দীপ, তৃতীয় শ্রেণীর ছাত্র। শনিবার তাঁর বাবা কাঙ্গাহান সিং যিনি একজন ব্যবসায়ী তিনি তাঁর তিন সন্তানকে স্কুলের ক্যাম্পাসের কাছে নামিয়ে দিয়ে যান। যথারীতি তিন সন্তান ক্লাসরুমের দিকে হাঁটা শুরু করে। এর সেই সময়েই পকেট থেকে একটা চকলেট বের করে মুখে ভরে। তারপর যখন ৮ বছরের শিশু তার ক্লাসরুমে বসতে যায় তখনই সে বেঞ্চে পড়ে গেল। বিষয়টি টের পেয়ে বিদ্যালয়ের কর্মীরা তাকে উঠানোর চেষ্টা করলেও তিনি অজ্ঞান হয়ে পড়েন। তারা সঙ্গে সঙ্গে অধ্যক্ষ ও ছাত্রের বাবাকে খবর দেন।

- Advertisement -

আরও পড়ুন- এইভাবেই গুজরাটের মানুষের আস্থা ফেরানো যাবে, নির্বাচনের আগে কংগ্রেসকে পরামর্শ PM Modi-র

ছেলে অজ্ঞান হয়ে গিয়েছে খবর পেয়েই বাবা স্কুলে ছুটে আসেন। স্থানীয়দের সহায়তায় শিশুটিকে এমজিএম হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। তার গলায় একটি চকলেট আটকে গিয়েছে বলেই জানান চিকিৎসকরা। তড়িঘড়ি অস্ত্রপ্রচারের ব্যবস্থা করা হলেও শেষ রক্ষা হয়নি। চিকিত্সকরা জানিয়েছেন যে চকলেটের কারণে দম বন্ধ হয়ে যাওয়াই সন্দীপের মৃত্যুর কারণ। জানা গিয়েছে কাঙ্গাহান সিং, যার পূর্বপুরুষরা রাজস্থান থেকে চলে এসেছিলেন। সম্প্রতি বিদেশ সফর থেকে ফেরার সময় তাঁর সন্তানদের জন্য চকলেট নিয়ে এসেছিলেন। ছেলেটির মা, গীতা, সকালে তাঁর তিন সন্তানকে চকলেট দিয়েছিল কিন্তু মা একেবারেই বুঝতে পারেনি যে এই চকলেট তাঁর এক সন্তানের প্রাণ কেড়ে নেবে।