চেনা ছকের বাইরে গিয়ে ট্যুর প্ল্যান করুন, ঘুরে আসুন পাহাড়ের কোলে অবস্থিত এই মায়াবি গ্রামে

0
15

খাস ডেস্ক: ভ্রমণপ্রিয় মানুষেরা সময় পেলেই ছুটি কাটানোর প্ল্যান বানিয়ে এদিক ওদিক ঘুরতে যাওয়ার প্ল্যান করে ফেলে। শর্ট ট্রিপ-এর পরিকল্পনা করলেই কাছাকাছি জায়গা হিসেবে দিঘা, পুরি, দার্জিলিংয়ের নাম মাথায় আসে। তবে এর বাইরেও এই রাজ্যেই কিছু অজানা জায়গা রয়েছে যেখানকার সৌন্দর্য্য ও পরিবেশ পর্যটকদের মুগ্ধ করবে।

দার্জিলিং থেকে ২২ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত ছোট গ্রাম চটকপুর। এই গ্রাম সিঞ্চল ওয়াইল্ড লাইফ স্যানচুয়ারির অন্তর্গত এই গ্রাম আদতে একটি ইকো ভিলেজ। চটকপুর ৭ হাজার ৮৮৭ ফুট উচ্চতায় অবস্থিত। ছোট্ট এই গ্রামে মাত্র ১৯ টি পরিবার বাস করে। ওয়াচ টাওয়ারের মাধ্যমে দেখা যায় সূর্যোদয় এবং সূর্যাস্ত। গ্রামের চারিদিক সবুজে ঘেরা। এখান থেকে হিমালয়ের বেশ কয়েকটি শৃঙ্গ চোখে পড়ে। নিরিবিলি পরিবেশে বিভিন্ন প্রজাতির পাখির ডাক শোনা যাবে।

- Advertisement -

আরও পড়ুন: আর দু’মাস পরেই রাজ্যে ক্ষমতায় আসছে AAP, শাসক দল বিজেপিকে বার্তা কেজরিওয়ালের

চটকপুর যাওয়ার উপযুক্ত সময় অক্টোবর থেকে এপ্রিল। তবে ডিসেম্বর এবং জানুয়ারি মাসে এখানকার আকাশ সবথেকে বেশি পরিষ্কার থাকে। তাই শীত সহ্য করতে পারলে বছরের এই সময়ে গ্রামে ঘুরে আসতে পারেন। উল্লেখ্য, বন্য প্রাণীর প্রজননের সময় অর্থাৎ ১৫ জুন থেকে ১৫ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত বন্ধ থাকে চটকপুর।

কীভাবে যাবেন?

শিয়ালদহ স্টেশন থেকে পদাতিক, দার্জিলিং মেল, উত্তরবঙ্গ মেলের মত কিছু ট্রেন রয়েছে। এনজেপি স্টেশন থেকে গাড়ি বুক করে চটকপুর পর্যন্ত চলে যাওয়া যায়। ভাড়া পড়তে পারে ২ হাজার থেকে ৩ হাজার টাকা পর্যন্ত। দার্জিলিং থেকে আসতে গেলে যেকোনও গাড়ি ভাড়া করলেই এক ঘণ্টার মধ্যে পৌঁছে যাওয়া যাবে।

আরও পড়ুন: বিজেপির পরবর্তী প্রধানমন্ত্রীর প্রার্থী কি সনিয়া গান্ধী, কেজরিওয়ালের মন্তব্যে উঠেছে ঝড়

গ্রামে থাকতে হোম- স্টে ভাড়া নেওয়া যাবে। থাকার ব্যবস্থা থেকে শুরু করে ব্রেকফাস্ট, লাঞ্চ, ডিনার সব মিলিয়ে দিনপ্রতি মাথাপিছু খরচ পড়বে প্রায় দেড় হাজার টাকা।